হাফেজ মুহাম্মদ কাশেম, টেকনাফ

মাদক বিরোধী চলমান অভিযান এবং থানায় লিখিত অভিযোগ দেয়া সত্বেও এক ইয়াবা ব্যবসায়ীর অব্যাহত হুমকিতে এলাকাবাসী অতিষ্ট হয়ে উঠেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এব্যাপারে এলাকার লোকজন টেকনাফ মডেল থানায় লিখিত অভিযোগ দিয়েছে বলে জানা গেছে। থানায় অভিযোগ দেয়ার পর অভিযুক্ত ইয়াবা ব্যবসায়ীর হুমকি-ধমকি এবং দাপট আরও বৃদ্ধি পেয়েছে বলে ভুক্তভোগী এলাকাবাসীগণ জানিয়েছেন। টেকনাফ উপজেলার রোজারঘোনা গ্রামে ঘটেছে এ ঘটনা।

জানা যায়, একই এলাকার আমান উল্লাহর (৩০) বাড়িতে নিয়মিত ইয়াবা সেবনের আসর বসে। এলাকার বখাটে ছেলেরা রাতদিন সেখানে ইয়াবা সেবন করে। তাছাড়া অভিযুক্ত ব্যক্তি অবৈধভাবে পাহাড় কেটে মাটি বিক্রি করে ফেলছে। এতে কেউ বাধা দিলে চরম দুর্ব্যবহার এমনকি খুন করার হুমকি দেয়। অভিযুক্ত আমান উল্লাহ ইয়াবা ব্যবসার টাকার জোরে কাউকেও তোয়াক্কা করছেনা। এনিয়ে এলাকায় চরম বিশৃংখলা এবং আইন শৃংখলা পরিস্থিতির অবনতি ঘটছে। তাছাড়া পাহাড় কাটার ফলে বর্ষা মৌসুমে এলাকায় ব্যাপক ভাঙ্গণের আশংকা দেখা দিয়েছে। এব্যাপারে রোজারঘোনা গ্রামের মৃত নুর আহমদের পুত্র আবদুর রহমান প্রকাশ মোঃ কালা মিয়া একটি লিখিত অভিযোগ গত ২১ জুন টেকনাফ মডেল থানায় দাখিল করেন। যার নং-১০২৭। থানায় অভিযোগ দেয়ার পর অভিযুক্ত ইয়াবা ব্যবসায়ী ক্ষীপ্ত হয়ে টাকার জোরে আরও বেশী বেপরোয়াভাবে হুমকি-ধমকি দিচ্ছে বলে জানা গেছে।

এব্যাপারে ২৫ জুন সোমবার রাতে যোগাযোগ করা হলে টেকনাফ মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) রনজিত কুমার বড়–য়া বলেন ‘ইয়াবা ব্যবসায় বাধা দিলে আবার হুমকি দেবে তা কখনও হতে পারেনা। অভিযুক্ত ব্যক্তির বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে’।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •