রামুতে অতিবৃষ্টি ও পাহাড়ী ঢলে গ্রামীণ যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন, বন্যার আশংকা

আবুল কাশেম সাগর, রামু:

রামুতে টানা কয়েক দিনের বৃষ্টি ও পাহাড়ি ঢলের পানিতে ডুবে আছে উপজেলার একাধিক ইউনিয়নের গ্রামীণ যাতায়াতের পথ। তলিয়ে গেছে বিভিন্ন গ্রামীণ সড়ক। এতে করে চরম দূর্ভোগে পড়েছে উপজেলার হাজারো জনসাধারণ। বিদ্যুৎ বিহীন হয়ে পড়েছে গর্জনিয়া বাজার, কচ্ছপিয়া, কাউয়ারখোপসহ কয়েকটি ইউনিয়নের সর্বসাধারণ।

বিশেষ করে বৃষ্টি ও পাহাড়ী ঢলে উপজেলার নিন্মাঞ্চল গর্জনিয়া ইউনিয়নের বড় বিল, পূর্ব জুমছড়ি, টাইম বাজার, পশ্চিম জুমছড়ি, গর্জনিয়া ইউনিয়ন পরিষদের আশপাশের গ্রামের বসত বাড়িতে সকাল হতে পানি উঠতে শুরু করেছে। তবে সর্বশেষ পাওয়া তথ্যমতে হতাহতের সংবাদ পাওয়া যায়নি। খোঁজ নিয়ে জানা যায়, ১২ মঙ্গলবার দিবাগত রাত হতে অতিবৃষ্টি ও পাহাড়ী ঢলে রামু উপজেলার গর্জনিয়া ইউনিয়নে কয়েকটি গ্রাম, কচ্ছপিয়া ইউনিয়নের বুমাংখিল, গর্জনিয়া বাজার হতে চাকমার কাটা গুরুর বাজার পর্যন্ত সড়কসহ কযেকটি গ্রাম, কাউয়ারখোপ ইউনিয়নের চর পাড়া, পশ্চিম পাড়া, ফরেষ্ট অফিস এলাকা সমূহ, দক্ষিণ মিঠাছড়ি ইউনিয়নের কাইম্যারঘোনা , উমখালী গ্রামে পানি উঠে যাতাযত করতে পারছেনা জনসাধারণ। এছাড়া রামু সড়র ইউনিয়নের হাইটুপি সড়কে বাকখাঁলী নদীর পানি বিপদ সীমার প্রবাহিত হওয়ায় হাইটুপি সড়কটি ভাঙ্গার আশংকা করছেন স্থানীয়রা।

গর্জনিয়া ইউনিয়নের পশ্চিম জুমছড়ি গ্রামের বাসিন্দা মুহিদুল আলম মুফিজ জানান, মঙ্গলবার দিবাগত রাত হতে গর্জনিয়ার ইউনিয়নের টাইম বাজার হতে সিকদার পাড়া, পূর্ব জুমছড়ি, বড় বিল এবং শাহ সুজাঁ সড়কে পানি বিপদ সীমার উপরে বেড়ে যাওয়ায় সকাল হতে কোন জনসাধারণের চলাচল করে পারছেনা । এছাড়া ও গর্জনিয়া বাজারে সোমবার সন্ধ্যা হতে বিদ্যুৎ বিহীন অবস্থায় দিন যাপন করছে মানুষ। এদিকে এভাবে বৃষ্টি অব্যাহত থাকলে বন্যার আশংকা করছেন বিশ্লেষকরা। অন্যদিকে প্রবল বৃষ্টির ফলে রামুতে থমকে পড়েছে ঈদের বাজার। বৃষ্টির ফলে বসত বাড়িতে পানি উঠায় ঈদ আনন্দ নিয়ে সংশয় জানিয়েছেন অনেকেই।

কক্সবাজার নিউজ সিবিএন’এ প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ।

সর্বশেষ সংবাদ

অনূর্ধ ১৭ ফুটবলে সহোদরের ২ গোলে মহেশখালী চ্যাম্পিয়ন

টাস্কফোর্সের অভিযানঃ ৪৫০০ ইয়াবাসহ ব্যবসায়ী আটক

টেকনাফে ৭৫৫০টি ইয়াবাসহ দুইজন আটক

এলোমেলো রাজনীতির খোলামেলা আলোচনা

কক্সবাজারে হারিয়ে যাওয়া ব্যাগ ফিরে পেলেন পর্যটক

সুষ্ঠু নির্বাচনে জাতীয় ঐক্য

সঠিক কথা বলায় বিচারপতি সিনহাকে দেশত্যাগে বাধ্য করেছে সরকার : সুপ্রিম কোর্ট বার

সিনেমায় নাম লেখালেন কোহলি

যুক্তরাষ্ট্রের কথা শুনছে না মিয়ানমার

তানজানিয়ায় ফেরিডুবিতে নিহতের সংখ্যা শতাধিক

যশোরের বেনাপোল ঘিবা সীমান্তে পিস্তল,গুলি, ম্যাগাজিন ও গাঁজাসহ আটক-১

তরুণদের এগিয়ে নিয়ে যাওয়াটা অনেক বেশি জরুরি- কক্সবাজারে মোস্তফা জব্বার

চলন্ত অটোরিকশায় বিদ্যুতের তার, দগ্ধ হয়ে নিহত ৪

খরুলিয়ায় বখাটেকে পুলিশে দিলো জনতা, রাম দা উদ্ধার

টস হেরে ব্যাটিংয়ে বাংলাদেশ

সতীদাহ প্রথা: উপমহাদেশের ইতিহাসে কলঙ্কজনক অধ্যায়

খুরুশকুলে সন্ত্রাসী হামলায় কলেজ ছাত্র আহত

নুরুল আলম বহদ্দারের কবর জিয়ারত করলেন লুৎফুর রহমান কাজল

জীবনের প্রথম প্রচেষ্টাতে ঈর্ষনীয় সাফল্য মৌসুমীর

এলআইসিটি বেস্ট অ্যাওয়ার্ড পেলো চবি শিক্ষার্থী নিপুন