cbn  

নিজস্ব প্রতিবেদক:

এ যেন এক মগের মুল্লক- সংঘবদ্ধ সশস্ত্র চাঁদাবাজ সন্ত্রাসীরা গভীর রাতে হানা দিয়ে একটি সেমি পাকা বসত ঘর গুড়িয়ে দিয়েছে। গত ৩০ মে গভীর রাত ১২ টায় শহরের সৈকত পাড়া এলাকায় এই সন্ত্রাসী ঘটনা ঘটে। সন্ত্রাসীদের বেপরোয়া তান্ডবের শিকার মনির আহমদ উত্তর কলাতলীর সৈকত পাড়ার মৃত গুরা মিয়ার পুত্র।

ক্ষতিগ্রস্ত মনির জানান- তিনি সৈকত পাড়া বহুমুখী সমবায় সমিতির সদস্য। সূ-দীর্ঘকাল ধরে মনির কয়েক গন্ডা খরিদা জায়গায় পরিবার- পরিজন নিয়ে সেমি পাকা ঘর করে বসবাস করে করে আসছেন। সম্প্রতি গৃহটি সংস্কারে উদ্যোগ নেন মনির। অভিযোগ রয়েছে-পাশ্ববর্তী বন বিভাগের জায়গায় অবৈধভাবে বসবাস করা চিহ্নিত সন্ত্রাসী নুরুল আলম, ছরওয়ারের নেতৃত্বে একদল চাঁদাবাজ বাড়ি মালিক মনিরের কাছে চার লাখ টাকা চাঁদা দাবি করে আসছিল। মনির চাঁদা দিতে অপরাগতা জানালে ক্ষিপ্ত হয়ে চাদাঁবাজরা গত ৩০ মে গভীর রাতে প্রথমে বসত ঘরের সীমানা প্রাচীর ভেঙ্গে ফেলে। পরে বাড়ির একটি অংশও গুড়িয়ে দেয়। এছাড়া লুট করে সাত/ আট লাখ টাকার নির্মাণ সামগ্রী। ক্ষতির পরিমাণ আনুমানিক ১০ লাখ টাকা।

এদিকে রাতের আধাঁরে সন্ত্রাসীদের এই তান্ডবের খবর পেয়ে সদর মডেল থানা পুলিশের একটি দল মধ্য রাতে ঘটনাস্থলে যায়। এ সময় পুলিশের অভিযান টের পেয়ে সন্ত্রাসীরা পালিয়ে যায়। চাঁদাবাজদের ভয়ে তটস্থ বাড়ির মালিক মনির আহমদ জানান- বর্তমানে অস্ত্রধারী চাঁদাবাজরা বিধস্ত বাড়ির আশপাশে সশস্ত্র পাহারা বসিয়ে তাকে হুমকি-ধমকি দিয়ে যাচ্ছে। এ ঘটনায় ক্ষতিগ্রস্থ বাড়ির মালিক মনির আহমদ বাদি হয়ে গতকাল রাতে কক্সবাজার মডেল থানায় নুরুল আলম ও ছরওয়ারের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাত আরও ২০/২৫ চাঁদাবাজ সন্ত্রাসীর বিরুদ্ধে কক্সবাজার মডেল থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •