মো. ফারুক, পেকুয়া:

পেকুয়ায় সন্ত্রাসীদের গুলিতে যুবক মো: আবুল হোসেন (প্রকাশ মো: হাশেম) নিহত তার ভাই মো: শাহাজাহান আহত ও অস্ত্র উদ্ধারের ঘটনায় দুইটি মামলা রুজু হয়েছে। ভিকটিম মো: শাহাজাহান বাদি হয়ে হত্যা মামলায় (মামলা নং-২৭/১৮) ১২জন আর থানার এসআই শফিকুর রহমান বাদি হয়ে অস্ত্র উদ্ধার মামলায় (মামলা নং-২৮/১৮) ৬জনকে আসামী করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার (৩১ মে) মামলা দুটি রেকর্ড করা হয়।

হত্যা মামলার আসামীরা হলেন, এহসান আরফাত মো: ইয়াসিন, মো: তোফাইল, মো: সাদ্দাম, সালাউদ্দিন, আবুল শামা, মো: শাকের, মো: তোফাইল (২), মো: বেলাল উদ্দিন, মো: কাইয়ুম, মো: রফিক, মো: ওসমাণ, মো: মকছুদ।

অস্ত্র মামলার আসামীরা হলেন, এহসান আরফাত মো: ইয়াসিন, মো: কাইয়ুম, মো: সাদ্দাম, আবুল শামা, সালাউদ্দিন, মো: তোফাইল। তার মধ্যে ঘটনার দিন ও পরেরদিন ৮জনকে আটক করা হলেও ৬জনকে মামলার এজাহারভুক্ত করে আদালতে প্রেরণ করা হয়। বাকি দু’জনকে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে।

উল্লেখ্য: মঙ্গলবার (৩০ মে) দিনগত রাত ১টার সদর ইউনিয়নের বাইম্যাখালী এলাকায় উল্লেখিত অস্ত্রধারীদের গুলিতে মো: হাশেম নিহত তার ভাই মো: শাহাজাহান গুলিবিদ্ধ হয়ে গুরুতর আহত হয়। ছাগল চুরির অভিযোগে আসামীদের বিরুদ্ধে থানায় লিখিত অভিযোগ দেওয়ায় তাদেরকে গুলি করে বলে ভুক্তভোগিদের দাবী।

পেকুয়া থানার ওসি জহিরুল ইসলাম খান জানিয়েছেন, মো: হাশেমকে হত্যা তার ভাইকে আহত ও অস্ত্র উদ্ধারের ঘটনায় পৃথক দুইটি মামলা রুজু করা হয়েছে। জড়িত ৬জনকে আটক করে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে। বাকি আসামীদের আটকের সর্বাত্বক অভিযান অব্যাহত আছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •