প্রকাশিত সংবাদে পশ্চিম বাহারছড়ার কেরামত আলীর প্রতিবাদ

গত ২৯ মে কক্সবাজারের বহুল প্রচারিত অনলাইন পত্রিকা কক্সবাজার নিউজ ডট কম এ (সিবিএন) প্রকাশিত ‘কক্সবাজার শহরের ইয়াবা ব্যবসায়ীরা ধরা ছোঁয়ার বাইরে‘ শিরোনামে প্রকাশিত সংবাদটি আমার দৃষ্টিগোচর হয়েছে। সংবাদে আমাকে ইয়াবা ব্যবসার সাথে জড়িয়ে মানহানিকর তথ্য প্রকাশ করা হয়েছে। যা সম্পূর্ণ মিথ্যা, বানোয়াট, উদ্দেশ্য প্রণোদিত ও মানহানিকর। আমি উক্ত ভূঁয়া সংবাদের তীব্র নিন্দা ও জোর প্রতিবাদ জানাচ্ছি।

প্রকাশিত সংবাদে উল্লেখ করা হয়েছে, ‘এলাকার ফেন্সিডিল ব্যবসায়ি কালুর আটকের পর তার ব্যবসায় হাল ধরেছে তারই শালা কেরামত আলী। গত বছর কালুর বিরুদ্ধে বাহারছড়াবাসি তীব্র আন্দোলন করার পর পুলিশ কালুকে ফেন্সিডিল সহ আটক করে এবং তার আস্তানা গুড়িয়ে দেয়। মাস দেড়েক ব্যবসা বন্ধ থাকার পর তার শালা কেরামত পুনরায় বাংলা মদ ও ফেন্সিডিল বিক্রি শুরু করে। কবে তার বিবুদ্ধে ইয়াবা বিক্রির কোন অভিযোগ নেই বলে দাবি এলাকাবাসির। শুধুমাত্র বাহারছড়ায় রয়েছে ১৫/২০ জনের মাদক সিন্ডিকেট। তাদেও চলাচল এবং বেশ ভুষা হঠাৎ পরিবর্তনের কারনে স্বল্প সময়ের মধ্যে বড় দালানের কারনে স্থানীয়দের মনে সন্দেহ তীব্র আকার ধারন করছে বলে উল্লেখ করা হয়েছে। যা আমার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র ছাড়া কিছুই নয়। প্রকৃত পক্ষে আমি একজন দরিদ্র কৃষক। বাড়িতে কয়েকটি গরু রয়েছে তা লালন পালন করেই জীবিকা নির্বাহ করি।

অপরাধ মাদক ব্যবসায়ী কালু আমার ভগ্নিপতি হওয়াটাই আমার জীবনে কাল হয়ে দাড়িয়েছে। কালুকে একালাছাড়া করতে এলাকার মানুষের আন্দোলনে আমিও জোর সমর্থন জানাই। যার কারতে তার সিন্ডিকেটের সদস্যরা ক্ষিপ্ত হয়ে আমি এবং আমার পরিবারের বিরুদ্ধে উঠে পড়ে লেগেছে। আমি মাদক ব্যবসাতো দূরের কথা মাদক কখনও চোঁখেও দেখিনি। আমি এখনও আমার পৈত্রিক ভিটা বাড়িতেই থাকি। কারণ আমার নিজস্ব জায়গা জমি ক্রয় করার মতো কোন অর্থ নেই। শুধু কয়েকটা গরুই আমার সম্ভল। আমার পরিবারে এখনও নুন আনতে পান্তা ফুরিয়ে যায়, তারমধ্যে আমার নাকি ১৫/২০ জনের সিন্ডিকেট রয়েছে। পুরো একটা কাল্পনিক কাহিনী সাঁজানো হয়েছে আমার মতো একজন নিরীহ ব্যক্তির বিরুদ্ধে। আমি কি করি না করি প্রশাসন অবশ্যই তার বিষয়ে অবগত রয়েছে। তাই আমাকে ষড়যন্ত্রের হাত থেকে রক্ষা করতে প্রশাসনের সহযোগীতা কামনা করছি। আমার বিরুদ্ধে মিথ্যা সংবাদ পরিবেশন করে আমি এবং আমার পরিবারের মানহানি করা হয়েছে। যা জাতির বিবেক সাংবাদিক ভাইদের কাছে আশা করিনি। আমি আবারও মিথ্যা, বানোয়াট ও ভিত্তিহীন সংবাদের জোর প্রতিবাদ জানাচ্ছি। পাশাপাশি স্থানীয় জনসাধারণ ও প্রশাসনকে মিথ্যা সংবাদে বিভ্রান্ত না হওয়ার অনুরোধ জানাচ্ছি।

প্রতিবাদকারী

মোহাম্মদ কেরামত আলী

পিতা- মৃত ফজলুল করিম, সাং- পশ্চিম বাহারছড়া, পৌরসভা কক্সবাজার।

cbn

সর্বশেষ সংবাদ

ইসলামী জনকল্যাণ ফাউন্ডেশনের ঈদ পুনর্মিলনী

কক্সবাজার সদর থানা পুলিশের অভিযানে গ্রেফতার- ২৭

পেকুয়ায় সংগ্রামের জুমে চলছে বালি উত্তোলন

B a n g a b a n d h u : The epic poet of politics

সদর উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতির উপর হামলার প্রতিবাদে জেলা ছাত্রলীগের মিছিল-সমাবেশ

দৈনিক সৈকত সম্পাদকের পিতা হাবিবুর রহমানের ৩৩তম মৃত্যুবার্ষিকী আজ

কক্সবাজার জেলা জয় বাংলা তথ্য-প্রযুক্তি লীগের আহবায়ক তুহিনের বিবৃতি

আজ শুভ জন্মাষ্টমী: কক্সবাজারে নানা আয়োজন

কক্সবাজার ইনার হুইল ক্লাবের শিক্ষা উপকরণ বিতরণ

টেকনাফে যুবককে তুলে নিয়ে হত্যা করলো রোহিঙ্গা সন্ত্রাসীরা

সব ধরনের মতামত প্রকাশের নিরাপত্তা আছে?

চীন বলেছে মধ্যস্থতার দায়িত্ব নিয়েছি : মায়ানমার কিন্তু মুখ খুলছেনা

যে মসজিদ নির্মাণে কাজ করে ২ লাখ ১০ হাজার শ্রমিক

সুশিক্ষায় শিক্ষিত হয়ে দেশের জন্য কাজ করতে হবে

জেলা আ.লীগের চিকিৎসা ক্যাম্প শুক্রবার, চিকিৎসা পাবে ৫হাজার মানুষ

চকরিয়ায় দুই হাজার মিটার নিষিদ্ধ কারেন্ট জাল আগুনে পুড়ে ধ্বংস

নিরহঙ্কার জীবন : মানবিক উৎকর্ষের চাবিকাঠি

JOB VACANCY ANNOUNCEMENT – HumaniTerra International (HTI)

প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ

বিদ্যুৎস্পৃষ্টে সদ্যবিবাহিত যুবকের মৃত্যু ইসলামাবাদে