চকরিয়ায় সরকারী কর্মকর্তার নাম ভাঙ্গিয়ে জায়গা জবর দখলের চেষ্টা

চকরিয়া প্রতিনিধি:

চকরিয়ায় প্রভাবশালী এক উচ্চপদস্থ সরকারী কর্মকর্তা নাম ব্যবহার করে জায়গা জবর দখল করার অভিযোগ উঠেছে।জায়গা জবর দখলে নেয়ার এমনটাই অভিযোগ তুলেছেন প্রকৃত জায়গার মালিক ও ভুক্তভোগী পরিবার সদস্যরা।উপজেলার পশ্চিম বড় ভেওলা ইউনিয়নস্থ পোকখালী এলাকায় ২৮মে (সোমবার)সকাল ৮টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। এনিয়ে ভুক্তভোগী ইলিশিয়া পোকখালী এলাকার আবদুর রহমানের পুত্র নুর মোহাম্মদ বাদী হয়ে থানায় অভিযোগ দায়ের করেছে।

অভিযোগ সূত্রে জানাগেছে,পশ্চিম বড় ভেওলা ইউনিয়নস্থ ইলিশিয়া এলাকার জমিদার খান সাহেব মকবুল আলীর পুত্র আলহাজ মোস্তাক আহমদ চৌধুরীর পৈত্রিক ১একর ৫০শতক জায়গা আর এস মূলে জোতদারী রায়তি সম্পত্তি হিসেবে সফর উদ্দিনের পুত্র আবদু রহমান ও ছলিমা খাতুনের নামে ১৯৪৮সালে ২৫ নভেম্বর তারিখে জমি বিক্রি করে কবুলিয়ত দলিল মূলে মালিক হয় ভোক্তভোগী পরিবার।পরবর্তীতে ক্রয়কৃত ওই জায়গার মালিক তাদের নামে পশ্চিম বড় ভেওলা মৌজার অধীনে ২২১নম্বর বিএস খতিয়ানে ২৫৫৬দাগে ১.৫০শতক নাল জমি হিসেবে রেকর্ড করে খতিয়ান সৃজন করেন।জায়গার মালিক আবদুর রহমানের পুত্র ভোক্তভোগী নুর মোহাম্মদ বলেন,সোমবার সকালে আমার পৈত্রিক ভোগদখলীয় জায়গায় দোকান ঘরে মেরামতের কাজ করতে গেলে একই উপজেলার সাহারবিল ইউনিয়নের কোরালখালীস্থ পূর্ব পাড়া ৯নম্বর ওয়ার্ড এলাকার মোক্তার আহমদের পুত্র জিয়াবুল হক ও ডেমুশিয়া হাসপাড়া এলাকার হারুনুর রশিদের পুত্র মিনারের নেতৃত্বে ১০/১২জনের একদল দুবৃর্ত্ত দেশীয় তৈরি ধারালো অস্ত্র নিয়ে আমাকে বাঁধা দিয়ে হুমকি প্রদর্শন করে জায়গা থেকে তাড়িয়ে দেয়।এ ছাড়াও দখলবাজরা তাদের উচ্চপদস্থ এক সরকারী কর্মকর্তার ভয়ভীতি দেখিয়ে তার নাম ব্যবহার করে আমার দীর্ঘদিনের পৈত্রিক  ভোগদখলীয় জায়গা জবর দখলে নিয়ে কাটাতারের ঘেরা দেন।   জোরপূর্বক ভাবে ওই দখলবাজ চক্ররা তাদের জমি দাবী করে প্রতিনিয়ত নানা হুমকি দিয়ে যাচ্ছে।এনিয়ে স্থানীয় চেয়ারম্যান সিরাজুল ইসলাম চৌধুরী বাবলাকে জবর-দখলে বিষয়ে অবহিত করলে চেয়ারম্যান পরিষদের দুইজন সদস্য ও চৌকিদারকে ঘটনাস্থলে পাঠাইলে দুবৃর্ত্তরা তাদের লোকজন নিয়ে পালিয়ে যায়।

প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায় যে, অবৈধ পন্থায় জোরপূর্বক জায়গা দখল ও দোকান নির্মাণের ঘটনার দিন সকালে ১০/১২ জনের একটি সঙ্গবদ্ধ দল হঠাৎ করে মাটি ভরাট শুরু করে এবং কিছু সংখ্যক লোক পূর্ব থেকে তৈরি করা ভেঙ্গে যাওয়াবস্থায় পড়ে থাকা বেড়া, টিন  অন্যত্রে সরিয়ে নেয়ার চেষ্টা চালায়। এ সময় খবর পেয়ে স্থানীয় ইউপি মোজাম্মেল হকের উপস্থিতিতে এহেন কাজে বাধা প্রদান করলে তারা ক্ষিপ্ত হয়ে উঠে। তারা আরও বলেন, স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যানের বাধা উপেক্ষা করে অভিযুক্ত জিয়াবুল তার সরকারী কর্মকর্তার প্রভাব দেখিয়ে দাম্ভিকতার পরিচয় দিয়েছেন বলে স্থানীয়রা জানান।

এ বিষয়ে প্রকৃত জায়গার মালিক ভূমিটি পুনরুদ্ধারে সংশ্লিষ্ট প্রশাসনের সার্বিক সহযোগিতা কামনা করছে।

এ ব্যাপারে চকরিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ(ওসি) মো: বখতিয়ার উদ্দিন চৌধুরীর কাছে জানতে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ঘটনার বিষয়ে লিখিত একটি অভিযোগ দেয়া হয়েছে।ঘটনাটি তদন্তপূর্বক পরবর্তীতে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে তিনি জানান।

কক্সবাজার নিউজ সিবিএন’এ প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ।

সর্বশেষ সংবাদ

বুবলীর সঙ্গে শাকিবের বিয়ে, গুঞ্জন নাকি সত্যি?

সাবেক ডিসি ও ইউএনওসহ তিনজনের কারাদণ্ড

ইয়াবাসহ আইন মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তা আটক

চকরিয়া উগ্রবাদ ও সহিংসতা প্রতিরোধে দক্ষতা উন্নয়ন প্রশিক্ষণ

চকরিয়ায় কথিত চিকিৎসকের ভূল চিকিৎসার শিকার বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থী

রামুর গর্জনিয়ায় বজ্রপাতে একই পরিবারের নারীসহ আহত ৫

মালুমঘাটে প্রভাবশালীর সহযোগিতায় চলছে বাল্য বিবাহ!

চট্টগ্রাম কলেজে ছাত্রলীগের কমিটি নিয়ে দফায় দফায় সংঘর্ষ

নিরাপদ সড়ক চাই: নিজে বাঁচব, অপরকে বাঁচাব

বিএনপির ১৭৩ প্রার্থী প্রায় চূড়ান্ত

চবি উপাচার্যের সাথে মিশর আল আযহার বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রতিনিধি দলের সাক্ষাৎ

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যকে সংবর্ধনা

বিমানবন্দর থেকে ইয়াবাসহ বরিশালের দুই তরুণী আটক

ইয়াবা পাচারের দায়ে টেকনাফের যুবকের ১০ বছর জেল

মহেশখালী-কুতুবদিয়া আসনে আ. লীগের মনোনয়ন পাচ্ছেন সিরাজুল মোস্তফা!

উলঙ্গ থাকার বিধান কী?

গ্যারেজে চাকরি করা প্রবাসী, কাগজ ব্যবসায় কোটিপতি

হঠাৎ স্যামসাং স্মার্টফোন বিস্ফোরণ! তারপর…

হাটহাজারীতে পিকআপ-মোটরসাইকেল সংঘর্ষে নিহত ১

দেড় লাখ ইভিএম কেনার সিদ্ধান্ত