cbn  

মো. নুরুল করিম আরমান, লামা:

সংস্কার কাজ শেষ না হতেই বান্দরবানের লামা পৌর শহরস্থ স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তরের লামা বাজার থেকে মিশনঘাট পর্যন্ত সড়কের বিভিন্ন অংশ ধসে পড়েছে। এতে আসন্ন বর্ষায় সড়কটি ধসে পড়ে চলাচলের অনুপযোগি হতে পারে বলে আশঙ্কা করছেন স্থানীয়রা। সংস্কার কাজে অনিয়ম ও নিম্নমাানের সামগ্রী ব্যবহারের কারণেই কাজ শেষ না হতে সড়কের কয়েকটি অংশ ধসে পড়েছে বলে স্থানীয়দের অভিযোগ।

সূত্রে জানা যায়, চলতি অর্থ বছরে রক্ষণাবেক্ষণ বরাদ্দের আওতায় লামা বাজার থেকে মিশনঘাট পর্যন্ত ১৪৭০ মিটার চেইনেজ সংস্কার কাজ বাস্তবায়নের জন্য টেন্ডার আহবান করা হয়। বান্দরবান সদরস্থ ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান মেসার্স মিল্টন ট্রেডার্স কাজটি পায়। ৩৯ লাখ ৭৮ হাজার টাকা চুক্তিমূল্যে কাজ বাস্তবায়নের জন্য ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান মিল্টন ট্রেডার্ডের সাথে স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর (এলজিইডি) চুক্তিবদ্ধ হয়।

অভিযোগ উঠেছে, ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের যোগসাজসে কাজে নিম্নমানের সামগ্রী ব্যবহার, পিস ঢালাইয়ের পর প্রয়োজনমত ফিনিশিং করেনি। এছাড়া সড়ক পরিস্কার না করেই মাটি কাদাসহ পিস ঢালাই দিয়েছে ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান। এতে সড়কটি টেকসই হবেনা। আসন্ন বর্ষা মৌসুমের শুরুতেই সম্পুর্ণ সড়ক ধসে যেতে পারে।

অভিযোগ অস্বীকার করে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান মিল্টন ট্রেডার্সের পক্ষে মনসুর আলম সাংবাদিকদের বলেছেন, সড়কের উভয় পাশের বিভিন্ন অংশে মাটির কাজ থাকলেও সিডিউলে ধরা হয়নি। বিধায় বৃষ্টির সময় দু এক স্থানে সড়ক ভেঙ্গে পড়েছিল। তবে সড়কের কাজে সিলেটের পাথর ব্যবহার করা হয়েছে। এছাড়া ১৪৭০মিটার চেইনেজ কাজ করার পর ধরা হয়েছে ১৩৬০ মিটার। সব মিলিয়ে এ কাজ করতে দুই লাখ টাকা লোকসান হয়েছে বলেও জানান তিনি।

এ বিষয়ে স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তরের লামা উপজেলা সার্ভেয়ার মো. জাকের হোসেন মোল্লা বলেন, সড়কে ডেন্স কার্পেটিং করা হয়েছে। বৃষ্টির কারণে দু এক স্থানে সড়ক ভেঙ্গে পড়েছিল। পরে কাজ পুণরায় সংস্কার করে নেওয়া হয়েছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •