প্রধানমন্ত্রী কী এনেছেন, জানতে চান এরশাদ

প্রধানমন্ত্রী কী এনেছেন, জানতে চান এরশাদ

প্রধানমন্ত্রী ভারত সফর থেকে দেশের জন্য কী এনেছেন তা জানতে চান জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ। তিনি বলেন, শেখ হাসিনা ভারত থেকে অামাদের জন্য কি এনেছেন? অামরা জানি না, জানতে চাই। তিস্তার কোনো সমাধান কি করতে পেরেছেন? অাশা করি, উনি এ বিষয়ে সুস্পষ্ট বক্তব্য রাখবেন।

শনিবার রাজধানীর বিজয়নগরে একটি হোটেলে জাতীয় ইসলামী মহাজোট অায়োজিত অালোচনা সভা ও ইফতার মাহফিলে তিনি এ মন্তব্য করেন।

তিনি বলেন, মাদক নির্মূলের নামে যাদের হত্যা করছেন তারা এদেশের নাগরিক। মানুষ মারার অধিকার অাপনাদের কে দিয়েছে? দেশে কি অাইন বা অাদালত নেই।

এরশাদ বলেন, রমজান শান্তি ও সংযমের মাস। কিন্তু অামরা কেউ শান্তি ও স্বস্তিতে নেই। অাগামীকাল কে বন্দুকযুদ্ধের শিকার হবো অামরা কেউ জানি না। রমজানে দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণের কথা বললেও পারেননি।

রোহিঙ্গা প্রসঙ্গে জাপা চেয়ারম্যান বলেন, রোহিঙ্গাদের দেখতে অনেকে যাচ্ছে। অনেক প্রতিশ্রুতি দিচ্ছে কিন্তু তাদের প্রতিশ্রুতির কোনো মূল্য নেই। নোম্যান্স ল্যান্ডে দুর্বিষহ জীবন-যাপন করছে সাড়ে চার লাখ রোহিঙ্গা। তাদের বাংলাদেশে নিয়ে অাসুন। ১০ লাখ রোহিঙ্গাকে খাওয়াতে পারলে অারও চার লাখ মানুষকেও খাওয়াতে পারবেন।

তিনি অারও বলেন, ইসলামী রাষ্ট্রগুলো অাজ বিচ্ছিন্ন। কারও সঙ্গে কারো মিল নেই। ফিলিস্তিনিসহ অনেক মুসলিম রাষ্ট্র অাজ নিগৃহীত। তাদের পক্ষে বলার কেউ নাই। মুসলমান রাষ্ট্রগুলো নীরব। ফিলিস্তিনিরা নিজ দেশেই অাজ ইসরাইলিদের দ্বারা হত্যার শিকার হচ্ছে, বিশ্ব বিবেক নীরব।

এইচ এম এরশাদ বলেন, দেশেও অামরা সবাই ঐক্যবদ্ধ নই। সবাই ঐক্যবদ্ধ থাকলে এদেশে কেউ ইসলাম বিনষ্ট করার সাহস পাবে না। সব ইসলামী দলের প্রতি অাহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, অাসুন সব ইসলামীদল একত্রিত হয়ে নির্বাচন অংশ নেই। যাতে অামরা ইসলামের সেবা করতে পারি।

কক্সবাজার নিউজ সিবিএন’এ প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ।

সর্বশেষ সংবাদ

শহীদ জাফর মাল্টিডিসিপ্লিনারী একাডেমিক ভবনের উদ্বোধন

মালয়েশিয়ায় বাংলাদেশি কর্মীদের ন্যায় বিচার কোথায়?

আইনগত ভিত্তি পেলেই ইভিএম ব্যবহার : সিইসি

খাগড়াছড়িতে ব্রিজ ভেঙে ট্রাক নদীতে, নিখোঁজ ১

আজ ঈদগাঁওতে ওবায়দুল কাদের’র জনসভা

সাগরে বৈরি আবহাওয়ার কবলে পড়ে ফিশিং ট্রলার ডুবি

‘ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন মুক্তগণমাধ্যমের জন্য বড় বাধা হয়ে দাঁড়াবে’

ফাইভ-জি মোবাইল নেটওয়ার্কে বিকিরণের ঝুঁকি বেশি?

রাখাইনে এখনো থামেনি সেনা ও মগের বর্বরতা

জাতীয় ঐক্য নিয়ে অস্বস্তিতে আ’লীগ

প্রধানমন্ত্রীর জাতিসঙ্ঘ সফরে প্রাধান্য পাচ্ছে রোহিঙ্গা ইস্যু

সাকা চৌধুরীর কবরের ‘শহীদ’ লেখা নামফলক অপসারণ করলো ছাত্রলীগ

তিন মাসের জন্য প্রত্যাহার আনোয়ার চৌধুরী

মনোনয়ন দৌড়ে শতাধিক ব্যবসায়ী

ফখরুল-মোশাররফ-মওদুদ যাচ্ছেন ঐক্য প্রক্রিয়ার সমাবেশে

এবার ভারতের কাছেও শোচনীয় হার বাংলাদেশের

রোহিঙ্গা শিশুদের শিক্ষায় ২০০ কোটি টাকা অনুদান বিশ্বব্যাংকের

বিরোধীরা সব জায়গায় সমাবেশ করতে পারবে

চাকরি না পেয়ে সুইসাইড নোট লিখে খুবি ছাত্রের আত্মহত্যা

নবাগত এসপি মাসুদ হোসেনের চকরিয়া থানা পরিদর্শন