‘অামরা প্রিয়াঙ্কা চোপড়াকে চিনি’

বাংলাট্রিবিউন:
মিয়ানমারের রাখাইন থেকে নির্যাতনের শিকার হয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নেওয়া রোহিঙ্গাদের অনেকেই বলিউড অভিনেত্রী প্রিয়াঙ্কা চোপড়াকে চেনেন। নানা প্রতিকূলতার মধ্যে বেড়ে ওঠা এসব রোহিঙ্গা আন্তর্জাতিক সাংস্কৃতিক অঙ্গনেরও নানা খবরাখবর রাখেন। ভারতীয় অভিনেত্রী প্রিয়াঙ্কা চোপড়া রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শনে এলে তাকে চিনতে ভুল করেননি তারা।

সোমবার (২১ মে) চারদিনের সফরে কক্সবাজারে রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শনে আসেন বলিউড অভিনেত্রী প্রিয়াঙ্কা চোপড়া। মঙ্গলবার (২২ মে) দ্বিতীয় দিনের মতো টেকনাফের সাবরাং ইউনিয়নের হারিয়াখালী, উনচিপ্রাং এবং দুপুরে উখিয়ার বালুখালী রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শন করেন তিনি। এ সময় ইউনিসেফ কর্তৃক রোহিঙ্গা শিশুবান্ধব বিভিন্ন কেন্দ্র পরিদর্শন করেন এবং নির্যাতিত শিশুদের সঙ্গে কথা বলেন তিনি। এ সময় বলিউডের অভিনেত্রী প্রিয়াঙ্কা চোপড়াকে দেখতে হাজার হাজার রোহিঙ্গা ভিড় জমান। তখন কয়েকজনের কাছে প্রিয়াঙ্কা সম্পর্কে জানতে চান এ প্রতিবেদক।

রোহিঙ্গা যুবক সাইফুল আলম বলেন, ‘প্রিয়াঙ্কা চোপড়াকে চিনবো না তো কাকে চিনবো? তার কত ছবি আমরা দেখেছি। আজ বাস্তবে দেখতে পেয়ে খুব ভালো লাগছে।’

একই কথা বলেছেন রোহিঙ্গা যুবক আবুল কালাম। তিনি বলেন, ‘প্রিয়াঙ্কা চোপড়াকে দেখে সত্যি মনে হচ্ছে আমি স্বপ্ন দেখছি। তাকে এভাবে দেখতে পাবো কোনও দিন কল্পনাও করিনি। আমরা ভারতের অধিকাংশ অভিনেতা ও অভিনেত্রীদের চিনি।’

বালুখালী রোহিঙ্গা ক্যাম্পের নেতা লালু মাঝি বলেন, ‘রাখাইনে শিক্ষার হার কম হলেও আন্তর্জাতিক নানা ইস্যুর সঙ্গে তারা পরিচিত। টিভি, ভিসিডি ও মোবাইল নেটওয়াকিং সম্পর্কে ভালো ধারণা রাখেন রোহিঙ্গারা। বিশেষ করে ভারতীয় নানা ছবিতে ছেয়ে গেছে রাখাইন প্রদেশ। এ কারণে প্রিয়াঙ্কা চোপড়াকে না চেনার কোনও কারণ নেই।’

সাইফুল আলম, আবুল কালাম ও লালু মাঝির মতো প্রিয়াঙ্কা চোপড়াকে চেনেন বলে জানান তাকে দেখতে আসা শত শত রোহিঙ্গা নারী-পুরুষ।

প্রসঙ্গত, সোমবার (২১ মে) সকাল সাড়ে ১১টার দিকে প্রিয়াঙ্কা চোপড়া বেসরকারি একটি ফ্লাইটে কক্সবাজার বিমানবন্দরে পৌঁছান। এরপর সড়কপথে তিনি ইনানীর একটি পাঁচতারকা হোটেলে ওঠেন। সেখান বিকাল ৪টার দিকে বাংলাদেশে আশ্রয় নেওয়া রোহিঙ্গাদের সার্বিক পরিস্থিতি দেখতে এবং খোঁজ-খবর নিতে টেকনাফের শামলাপুর রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শন করেন। আজ দ্বিতীয় দিনের মতো ভারতের এই অভিনেত্রী ইউনিসেফ হয়ে সকালে টেকনাফের হারিয়াখালী, উনচিপ্রাং এবং দুপুরে উখিয়ার বালুখালী রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শন করেন। বুধবার টেকনাফের লেদা ও উখিয়ার কুতুপালং রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শন করার কথা রয়েছে প্রিয়াঙ্কার। পরিদর্শন শেষে ২৪ মে কক্সবাজার ত্যাগ করার কথা রয়েছে।

উল্লেখ্য, প্রিয়াঙ্কা চোপড়া এ সফরে এসেছেন ইউনিসেফের হয়ে। প্রকৃতি, স্বাস্থ্য, শিক্ষা, নারী অধিকার ইত্যাদি বিষয়ে কাজ করে চলেছেন এ বলিউড অভিনেত্রী। এর আগে গত বছর প্রিয়াঙ্কা গিয়েছিলেন জর্ডানে, সিরিয়ান শরণার্থী শিশুদের সঙ্গে সাক্ষাৎ করতে। ফেসবুক স্ট্যাটাসে প্রিয়াঙ্কা লিখেছেন, ‘রোহিঙ্গা শরণার্থী ক্যাম্প পরিদর্শন করবো এবং সেখানকার সব অভিজ্ঞতা শেয়ার করবো ইনস্টাগ্রামে। এ বিষয়টি নিয়ে সারা বিশ্বের এগিয়ে আসা উচিত। ভাবা উচিত আমাদেরও।’

সর্বশেষ সংবাদ

পণ্যের মান বজায় রাখতে প্রশাসন কাউকে ছাড় দেবেনা : ডিসি কামাল হোসেন

নাইক্ষ্যংছড়ির তিন ইউপিতে ভোট গ্রহণ চলছে, ভোটার উপস্থিতি কম

উখিয়ায় দুই ছাত্র-ছাত্রীর পলায়নের জেরে উত্তেজনা

কক্সবাজার সিটি কলেজ – নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি

নাইক্ষ্যংছড়ি ৩ ইউনিয়নে ভোটগ্রহণ চলছে

আগামী ৮ ই নভেম্বর বাংলাদেশ প্রেসক্লাব ইউএই’র নির্বাচন

নববধূকে তালাক দিয়ে শাশুড়িকে বিয়ে

পিয়ন থেকে ১২শ’ কোটি টাকার মালিক আনিস

কক্সবাজার সদর থানা পুলিশের অভিযানে গ্রেফতার- ৫

প্রিয় শিক্ষার্থীরা: হাতে বই থাকার কথা, হাতকড়া কেন?

নাইক্ষ্যংছড়ির তিন ইউপির ভোট আজ : বহিরাগত ঠেকাতে বারটি তল্লাশিচৌকি

চট্টগ্রামে র‌্যাবের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ যুবলীগ নেতা খোরশেদ নিহত

নাইক্ষ্যংছড়ির ৩ ইউনিয়ন, টেকনাফ সদর ও বড়ঘোপে ইউনিয়নের ৫ নম্বর ওয়ার্ডে সোমবার সাধারণ ছুটি

চকরিয়ায় বিপুল উদ্দীপনায় বৌদ্ধ সম্প্রদায়ের ধর্মীয় উৎসব প্রবারণা পূর্ণিমা

প্রধানমন্ত্রীর হাত থেকে শ্রেষ্ঠ স্বেচ্ছাসেবকের স্বর্ণপদক নিলেন চকরিয়ার বুলবুল জন্নাত

শুভ প্রবারণা পূর্ণিমা উপলক্ষে মেয়র মুজিবের মৈত্রিময় শুভেচ্ছা

কক্সবাজারে শতাধিক বৌদ্ধ বিহারে প্রবারণা উৎসব শুরু

আট মহল্লা সমাজ কমিটির দাবী : সড়ক ফুটপাথ দখলমুক্ত ও ছিনতাই বন্ধ করুন

ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্যে প্রবারণা পূর্ণিমা উদযাপিত

মসজিদুল হারাম ও মসজিদে নববীর নতুন খতিব ও ইমাম হলেন যারা