চট্টগ্রামে গৃহকর্মীর রহস্যজনক মৃত্যু, ২৫ হাজার টাকায় দফারফা

তাজুল ইসলাম পলাশ, চট্টগ্রাম:

চট্টগ্রাম চাঁদমনি ওরফে ইয়াছমিন (১৫) নামে এক গৃহকর্মী কিশোরীর রহস্যজনক মৃত্যু হয়েছে। ব্যবসায়ী গৃহকর্তা পরিবারের দাবী বকাঝকা করায় ভবনের উপর থেকে লাফিয়ে পড়ে ইয়াছমিন আত্মহত্যা করেছে। কিন্তু এ কথা কোনভাবে মানতে পারছেনা তার পরিবার। তাদের দাবী ইয়াছমিনকে মেরে লাশ উপর থেকে ফেলে দিয়ে আত্মহত্যা বলে চালানোর চেষ্টা করছে। তারা ইয়াছমিনকে মারধর করেন বলেও অভিযোগ করেন তার মা ও ভাই।

অভিযোগ উঠেছে মাত্র ২৫ হাজার টাকায় দফারফা করে এ মৃত্যুর রহস্য উদঘটনা চাপা দেয়া হয়েছে। মামলা না করতে হুমকি-ধমকি দিয়ে সাদা কাগজে সাক্ষর নিয়ে ২৫ হাজার টাকা দিয়ে মরদেহসহ ইয়াছমিনের মা বাবাকে বুঝিয়ে দেয়া হয়। নিহত কিশোরী ইয়াছমিনের গ্রামের বাড়ী কক্সবাজার চকরিয়া থানার খুটাখালী গ্রামে। বাবার নাম নূর আহমদ।

জানা যায়, গত ১৭ মে বৃহস্পতিবার মধ্যরাতে কাদের টাওয়ারের পাশে এ,কে ম্যানসনের (ইউসিবিএল জোনাল অফিস ভবন) ৯ তলায় এ ঘটনা ঘটে। ওই দিনের ধামাচাপা দেওয়ায় কোন গণমাধ্যমে এ খবর প্রকাশিত হয়নি। ওই ভবনের ৮ম তলায় গৃহকর্তা জাফর আহমদের বাসায় কাজ করতো ইয়াছমিন। এ বিষয়ে ব্যবসায়ী গৃতকর্তা জাফর আহমদের দাবি বকাঝকা করায় ভবনের উপর থেকে লাফিয়ে পড়ে ইয়াছমিন আত্মহত্যা করেছে। পরে পুলিশের মাধ্যমে তার পরিবাকে লাশ বুঝিয়ে দেয়া হয়েছে। তিনি আরো বলেন, আমাদের ড্রাইভারের সাথে তার অবৈধ সম্পর্ক থাকায়, তাকে বকাঝকা করা হয়। এতেই সে অভিমান করে আত্মহত্যা করেন।

এ ঘটনায় জাফর আহমদের ড্রাইভার সাহেদকে আটক করলেও পরে তাকে ছেড়ে দেয়া হয়েছে। বর্তমানে সাহেদ জাফর আহমদের বাসায় গাড়ী চালাচ্ছেন। ড্রাইভার সাহেদ এর সাথে প্রেমের সম্পর্কের অভিযোগ আনলেও তার ব্যাপারে কোন ব্যবস্থা নেয়নি পুলিশ।

এ বিষয়ে ইয়াছমিনের মা শাফিয়া বেগম বলেন, জাফর আহমদের শ্যালিকা মুক্তা বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় ফোন করে বলেন যে আমার ইয়াছমিনকে পাওয়া যাচ্ছেনা। পরে রাতে ফোন করে বলেন, ইয়াছমিন আত্মহত্যা করেছে। তিনি বলেন আমার মেয়ে আত্মহত্যা করতে পারেনা। তার মৃত্যু নিয়ে রহস্য রয়েছে। শাফিয়া বেগম বলেন, তাকে মেরে লাশ উপর থেকে ফেলে দিয়ে আত্মহত্যা বলে চালানোর চেষ্টা করছে। বৃহস্পতিবার তারা ইয়াছমিনকে মারধর করেন বলেও অভিযোগ করেন তিনি। থানায় মামলা করেননি এমন প্রশ্নে তিনি বলেন, আমরা গরিব, মামলা নিতে এতো টাকা কোথায় পাবো। তাছাড়া তারা অনেক বড় লোক। তাদের সাথে কি আমরা পারবো ?

ইয়াছমিনের ছোট বোন জোৎসনা মনি বলেন, আমার বোনকে হত্যা করা হয়েছে। আমার বোনকে জাফর সাহেব’র স্ত্রী হিরা সবসময় মারধর করতো। তারাই আমার বোনকে হত্যা করেছে।

এ ব্যাপারে কোতোয়ালী থানার ওসি মো. এহসিন জানান, ইয়াছমিন নামে এক গৃহকর্মীর মরদেহ উদ্ধার করার পর এ বিষয়ে একটি অপমৃত্যু মামলা দায়ের করা হয়েছে। পুলিশ তাদের ২৫ হাজার টাকা বুঝিয়ে দেয়নি। গৃহকর্মীর বাবা ও গৃহকর্তা মিলে তার সমঝোতার মাধ্যমে টাকা পয়সা লেনদেন করেছে। পুলিশ লাশ বুঝে পাওয়ার বিষয়ে স্বাক্ষর নিয়েছে। লাশের ময়নাতদন্ত প্রতিবেদন পেলে বুঝা যাবে এটা হত্যা না আত্মহত্যা। এরপর ব্যবস্থা নেয়া হবে। হত্যার ঘটনা হলে এ ব্যাপারে হত্যা মামলা নেয়া হবে বলে তিনি জানান।

কক্সবাজার নিউজ সিবিএন’এ প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ।

সর্বশেষ সংবাদ

নুরুল আলম বহদ্দারের কবর জিয়ারত করলেন লুৎফুর রহমান কাজল

জীবনের প্রথম প্রচেষ্টাতে ঈর্ষনীয় সাফল্য মৌসুমীর

এলআইসিটি বেস্ট অ্যাওয়ার্ড পেলো চবি শিক্ষার্থী নিপুন

খরুলিয়ায় মাদকবিরোধী মতবিনিময় সভা

ঈদগাঁও-খুটাখালী থেকে দিনদুপুরে কাঠ পাচার!

কর্মসুচিতে যোগ দিতে ২২ সেপ্টেম্বর চট্টগ্রাম আসছেন ইলিয়াস কাঞ্চন

টেকনাফ উপজেলা যুবদলের সম্মেলনকে ঘিরে প্রাণচাঞ্চল্য : চাপিয়ে দেয়া কমিটি মানবে না!

 বিচার শুরুর অপেক্ষায় খালেদা জিয়ার আরও ৭ মামলা

অক্টোবর থেকে সেন্টমার্টিনে জাহাজ চলাচল শুরু

প্রধানমন্ত্রীকে আল্লামা শফীর অভিনন্দন

রাত ১০-১১টার পর ফেসবুক বন্ধ চান রওশন এরশাদ

আফগানদের কাছে বাংলাদেশের শোচনীয় পরাজয়

আজ পবিত্র আশুরা

দেশের স্বার্থেই ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন : প্রধানমন্ত্রী

সরকারের শেষ সময়ে আইন পাসের রেকর্ড

রাঙ্গামাটিতে ঘুম থেকে তুলে দু’জনকে গুলি করে হত্যা

শেখ হাসিনার গুডবুক ও দলীয় হাই কমান্ডের তরুণ তালিকায় যারা

মালয়েশিয়ার শ্রমবাজার নিয়ে ‘ধোঁয়াশা’ কাটবে এ মাসেই

বিষাদময় কারবালার ইতিহাস

পবিত্র আশুরা : সত্যের এক অনির্বাণ শিখা