জনগণের দরজায় বিচার পৌঁছাতে পারে গ্রাম আদালত- জেলা ও দায়রা জজ

শাহেদ মিজান, সিবিএন:

কক্সবাজারের জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক মীর শফিকুল আলম বলেছেন, ‘দেশের বিচার ব্যবস্থার যে কয়টি আদালত কাঠামো রয়েছে গ্রাম আদালত তার মধ্যে একটি। গ্রাম আদালত অন্যান্য আদালত থেকে কোনো অংশেই কম নয়। বরং প্রয়োগের ভিত্তিতে গ্রাম আদালতের গুরুত্ব একটুখানি বেশি।

শনিবার (১৯ মে) বিকালে জেলা জজ আদালতের সম্মেলন কক্ষে বিচারক ও পুলিশের সাথে ‘গ্রাম আদালত শক্তিশালী করণ ’ বিষয়ক এক মতবিনিময় সভায় তিনি একথা বলেন।

তিনি আরো বলেন, ‘সর্বস্তরের মানুষ হাতের নাগালে বিচার পেতে পারে একমাত্র গ্রাম আদালতে। এতে সময় ও অর্থ সাশ্রয় হয়। ফলে গরীব ও সাধারণ লোকজনের জন্য গ্রাম আদালতের গুরুত্ব অনেক বেশি। মূলত জনগণের দৌরগোড়ায় বিচার সেবা পৌঁছাতেই গ্রাম আদালতের প্রবর্তন। তাই লোকজনকে গ্রাম আদালতকে গুরুত্ব দিয়ে থানা ও আদালতে আসার প্রবণতা কমাতে হবে। এতে রোধ হবে হয়রানি, বাঁচবে অর্থ ও সময়। একই সাথে উপাজেলা ও জেলা পর্যায়ের ম্যাজিস্টেট আদালতের উপর চাপ কমে মামলার জট কমবে।’ এই জন্য তিনি গ্রাম আদালতে সমস্যা নিষ্পত্তি করতে জনপ্রতিনিধি ও পুলিশের আন্তরিক হওয়ার আহ্বান জানান।

ইউএনডিপি ও ইউরোপীয় ইউনিয়নের সহযোগিতায় ও সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট তামান্না ফারাহার সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত উক্ত মতবিনিময় সভায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, জেলা নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-১ এর বিচারক এ.এইচ.এম মাহমুুদুর রহমান, জেলা নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-২ এর বিচারক জেবুন্নাহার আয়েশা, চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ তৌফিক আজিজ, অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ মোহাম্মদ ওসমান গণি, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) আশরাফ হোসেন, সহকারী পুলিশ সুপার (ট্রাফিক) বাবুল চন্দ্র বণিক, ইউএনডিপির কর্মকর্তা মাহমুদা আফরোজ ও শিরীন সুলতানা লীরা, জেলা জজ আদালতের পিপি এড. মমতাজ আহমদ, জেলা আইনজীবির সমিতির সভাপতি নূরুল ইসলাম। এছাড়াও থানার ওসিরা বক্তব্য রাখেন।

মতবিনিময় সভায় সামগ্রিক বক্তব্যে উঠে আসে, গ্রাম আদালত অনেক সুবিধার ও সহজলভ্য হলেও কিছু কারণে তা শক্তিশালী হচ্ছে না। কারণ গুলোর মধ্যে রয়েছে, অদক্ষ ইউপি চেয়ারম্যান, রাজনৈতিক বিভাজন ও ভোটের রাজনীতির কারণে চেয়ারম্যান কর্তৃক ন্যায় বিচার না পাওয়ার আশঙ্কা, চেয়ারম্যানদের বিচারিক সীমাবদ্ধতা, থানায় মামলা নিতে পুলিশের অতি উৎসাহ।

সমাধান হিসেবে উঠে আসে- গ্রাম আদালতকে শক্তিশালী করণে চেয়ারম্যান-মেম্বাদের প্রশিক্ষণ দিতে হবে। পুলিশকে হুট করে মামলা না নিয়ে তা গ্রাম আদালতে পাঠাতে হবে। জনগণকে গ্রাম আদালতের সুফল সম্পর্কে অবহিতকরণ ও সেখানে মামলা করতে উৎসাহ দিতে হবে। স্বার্থের উর্ধ্বে থেকে চেয়ারম্যানদের ন্যায়বিচার নিশ্চিত করতে হবে।

মতবিনিময় সভায় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন যুগ্ম- জেলা ও দায়রা জজ-১ সালমা খাতুন, যুগ্ম- জেলা ও দায়রা জজ-২ সৈয়দ মো. ফখরুল আবেদীন। এছাড়াও সিনিয়র সহকারী জজগণ, সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেটবৃন্দ, সহকারী জজবৃন্দ, জেলা প্রতি উপজেলার ওসি ও ওসির প্রতিনিধি উপস্থিত ছিলেন।

সর্বশেষ সংবাদ

চকরিয়ায় গরিবের কুঁড়েঘরে প্রতিপক্ষের অগ্নি সংযোগ!

নাজমা-অপুকে সরিয়ে নতুন আহ্বায়ক কমিটি গঠনের প্রক্রিয়া চলছে!

রামুতে পন্ডিত সত্যপ্রিয় মহাথের’র জাতীয় অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া অনুষ্ঠান শুরু আজ

দিল্লিতে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ২৩

রামু অন্তেষ্টিক্রিয়ায় যোগ দিতে আসছেন ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া

রামু অন্তেষ্টিক্রিয়ায় যোগ দিতে আসছেন এইচ টি ইমাম

চট্টগ্রাম বিভাগীয় কমিশনার এবিএম আজাদ কক্সবাজারে

রামুতে বিকেএসপি পরিদর্শনে যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী রাসেল

উখিয়ায় সাংবাদিক ফারুক আহমদের মাতার জানাজা সম্পন্ন

পেকুয়ায় ইয়াবাসহ দুই ব্যক্তি আটক

ন্যুনতম সম্মান নিয়ে বাঁচতেই বাধ্য হয়ে আন্দোলন : কালেক্টরেট সহকারী সমিতি

সেন্টমার্টিন রক্ষা , পলিথিন ও ওয়ান টাইম প্লাস্টিক ব্যবহার বন্ধে সভা ও প্রচারপত্র বিলি

চট্টগ্রামে অশ্লীল ছবি ধারণ করে মুক্তিপণ আদায় , ২ প্রতারক গ্রেফতার

ফাঁসিয়াখালীতে বাঁশের সাঁকোতে ৪শতাধিক পরিবারের ঝুকিপূর্ণ চলাচল

পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে গুচ্ছ ভিত্তিতেই ভর্তি পরীক্ষা

সত্য প্রিয় মহাথেরোর জাতীয় অন্তষ্টিক্রিয়ায় অংশ নিতে আসছেন মির্জা ফখরুল

কক্সবাজার শহরের সন্ত্রাসী রবিউল আটক

কক্সবাজার সাহিত্য একাডেমীর ৪৬৭তম সাহিত্য সভা ২৯ ফেব্রুয়ারি

কুতুবদিয়ায় ওয়ারেন্টভুক্ত আসামী প্রকাশ্যে

নাইক্ষ্যংছড়ির আনোয়ার বাঁশখালীতে ইয়াবাসহ আটক