যেভাবে গাজায় অত্যাধুনিক অস্ত্র ব্যবহার করছে ইসরায়েল (ভিডিও)

যেভাবে গাজায় অত্যাধুনিক অস্ত্র ব্যবহার করছে ইসরায়েল (ভিডিও)

 আন্তর্জাতিক ডেস্ক:

ফিলিস্তিনিদের বিক্ষোভ ও ইসরায়েলি বাহিনীর তাণ্ডবের সঙ্গে এখন ড্যাভিড ও গোলিয়াথের নাম উচ্চারণ হয়। খ্রিস্টানদের ধর্মগ্রন্থ বাইবেলে ডেভিড-গোলিয়াথের যুদ্ধের বর্ণনা আছে; যেখানে বিশালাদেহী যোদ্ধা গোলিয়াথ হার মানে পুচকে ডেভিডের কাছে। তবে বর্তমানে যুদ্ধের ময়দানে লড়ায়ের প্রয়োজন হয় না গোলিয়াথের।

ইসরায়েলি সীমান্তের গাজা উপত্যকা ও অধিকৃত পশ্চিম তীরে ফিলিস্তিনিদের বিক্ষোভে ইসরায়েলি সেনাবাহিনী বৃষ্টির মতো টিয়ারগ্যাস ফেলছে নতুন আবিষ্কার ক্ষুদে ড্রোন ব্যবহার করে।

ভিডিও :

আকাশ থেকে গ্যাস ছিটিয়ে বিক্ষোভকারীদের ছত্রভঙ্গ করতে তিন ধরনের ড্রোনের ব্যবহার দেখা যায়। এর মধ্যে প্রথম ড্রোনটি তৈরি করেছে ইসরায়েলি কোম্পানি আইএসপিআএ। এটার নাম দেয়া হয়েছে ‘সাইক্লোন কন্ট্রোল ড্রোন সিস্টেম।’ আকারে ক্ষুদে এক ড্রোন। এতে রয়েছে নয়টি ছোট অ্যালুমিনিয়ামের কার্তুজ বক্স। ড্রোন থেকে যখন এগুলো নিচের দিকে তীব্র বেগে ধেয়ে আসে তখন আগুনে ঝলসে উঠে।

এছাড়াও আরো দুই ধরনের ড্রোন ব্যবহার করেছে ইসরায়েলি সামরিক বাহিনী; যার ব্যবহার অতীতে কখনোই দেখা যায়নি বলে বিশেষজ্ঞরা মধ্যপ্রাচ্যভিত্তিক সংবাদমাধ্যম মিডল ইস্ট আইকে জানিয়েছেন।

ভিডিও :

এর মধ্যে একটি ড্রোন আছে, যেখান থেকে অ্যারোসেলের মতো সরাসরি গ্যাস ছোড়া হয় বিক্ষোভকারীদের ওপর; যা নিচের দিকে মেঘের মতো আবরণ হয়ে ধেয়ে আসে।

তবে ওপরের দুটির চেয়ে বিপজ্জনক ডিভাইস হচ্ছে তৃতীয়টি। এই ড্রোনটি দেখতে অনেকটা হেলিকপ্টারের মতোই। রাবারের গ্রেনেড রয়েছে এই ড্রোনে; যার সম্মুখভাগে রয়েছে শক্ত এক ধরনের ধাতু। ড্রোন থেকে এসব গ্রেনেড মাটিতে পৌঁছানোর পর গ্যাস ছড়িয়ে দেয়।

gaza

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, চলতি সপ্তাহে ‘গ্রেট মার্চ অব রিটার্ন’ বিক্ষোভ কর্মসূচি তীব্র আকার ধারণ করে। এসময় ইসরায়েলি বাহিনীকে বিপজ্জনক এই গ্রেনেড গ্যাস বহনকারী ড্রোনের ব্যবহার বেশি করতে দেখা যায়।

ইসরায়েলের মানবাধিকার কর্মী ও আইনজীবী ইত্যা ম্যাক; দেশটির সামরিক রফতানির ব্যাপারে খোঁজ-খবর রাখেন তিনি। ম্যাক বলেন, ‘বাণিজ্যিক ড্রোনের চেয়ে এই ড্রোন বেশি অত্যাধুনিক। এটা এমন বস্তু নয়; যা অ্যামাজন থেকে সস্তা মূল্যে কেনা যায়। তবে এটি যে অ্যামাজনে পাওয়া যাবে না; আমি তেমন মনে করছি না।’

gaza

এই ড্রোন থেকে একসঙ্গে প্রচুরসংখ্যক টিয়ারগ্যাস গ্রেনেড নিক্ষেপ করা যায়। কনফ্লিক্ট আর্মামেন্ট রিসার্চের নির্বাহী পরিচালক জেমস বেভান বলেন, ‘ড্রোনটি উড্ডয়নের সময় র্যাকে গ্রেনেড এমনভাবে বসানো হয়, যা নিক্ষেপের পর নিজ থেকেই পিন খুলে গ্যাস ছড়িয়ে দেয়।’ মধ্যপ্রাচ্যভিত্তিক জঙ্গিগোষ্ঠী ইসলামিক স্টেট (আইএস) এই ড্রোন সিরিয়া এবং ইরাকে ব্যবহার করেছে।

বেভানের মতে, আইএস একমাত্র গোষ্ঠী যাদের হাতে এই হেলিকপ্টার ধাঁচের ক্ষুদে ড্রোন আছে; যা যুদ্ধের সময় ব্যবহার করে তারা। ইরাকের মসুল এবং সিরিয়ার তাল আফার এলাকায় এর ব্যবহার বেশি দেখা গেছে।

কক্সবাজার নিউজ সিবিএন’এ প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ।

সর্বশেষ সংবাদ

তথ্য প্রযুক্তি ও কারিগরি শিক্ষার মাধ্যমে মানুষের ভাগ্য পরিবর্তন করতে হবে- রামুতে মন্ত্রীপরিষদ সচিব

কড়ি-পাইপ বাজারত্তুন ঈদগাঁও বাজার!

স্মৃতি তুমি বেদনা

মরহুম এড. খালেকুজ্জামান স্মরণে মসজিদে মসজিদে দোয়া

হোয়াইক্যং হাইওয়ে পুলিশের অভিযানে ৫হাজার ইয়াবা সহ আটক-২

এলাকার উন্নয়নই আমার স্বপ্ন -কাউন্সিলর সাহাব উদ্দিন সিকদার

শহীদ জাফর মাল্টিডিসিপ্লিনারী একাডেমিক ভবনের উদ্বোধন

মালয়েশিয়ায় বাংলাদেশি কর্মীদের ন্যায় বিচার কোথায়?

আইনগত ভিত্তি পেলেই ইভিএম ব্যবহার : সিইসি

খাগড়াছড়িতে ব্রিজ ভেঙে ট্রাক নদীতে, নিখোঁজ ১

সাগরে বৈরি আবহাওয়ার কবলে পড়ে ফিশিং ট্রলার ডুবি

‘ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন মুক্তগণমাধ্যমের জন্য বড় বাধা হয়ে দাঁড়াবে’

ফাইভ-জি মোবাইল নেটওয়ার্কে বিকিরণের ঝুঁকি বেশি?

রাখাইনে এখনো থামেনি সেনা ও মগের বর্বরতা

জাতীয় ঐক্য নিয়ে অস্বস্তিতে আ’লীগ

প্রধানমন্ত্রীর জাতিসঙ্ঘ সফরে প্রাধান্য পাচ্ছে রোহিঙ্গা ইস্যু

সাকা চৌধুরীর কবরের ‘শহীদ’ লেখা নামফলক অপসারণ করলো ছাত্রলীগ

তিন মাসের জন্য প্রত্যাহার আনোয়ার চৌধুরী

মনোনয়ন দৌড়ে শতাধিক ব্যবসায়ী

ফখরুল-মোশাররফ-মওদুদ যাচ্ছেন ঐক্য প্রক্রিয়ার সমাবেশে