‘একজন মোহাম্মদ নেছার ইতিহাসের জীবন্ত স্বাক্ষী’

বিশেষ প্রতিবেদক:

পর্যটন রাজধানী খ্যাত কক্সবাজারের মানুষের কাছে অতিপরিচিত একটি মুখ মোহাম্মদ নেছার। পত্রিকা কারীগর তিনি। তার হাতের সর্বশেষ ছোয়ায় দেশ বিদেশের খবর স্বাচ্ছন্দ্যে পড়ার ব্যবস্থা করে দেয়ার দায়িত্ব তার। কক্সবাজারের দৈনিক আজেকের দেশ বিদেশ পত্রিকায় কম্পিউটার বিভাগের ইনচার্জের পাশাপাশি তিনি একজন কম্পিউটার প্রশিক্ষক, সফওয়্যার ডেভেলফারও।

একটানা অনেক বছর ধরে তিনি চালিয়ে আসছেন এ পেশা। আজকের ইতিহাসের সাক্ষীতে তারই কাহিনী।

মোহাম্মদ নেছার। কক্সবাজারের মহেশখালী উপজেলার কালামারছড়া ইউনিয়নের সোনারপাড়া গ্রামে তার জন্ম। বাবা ছৈয়দ আহম্মদ ও মাতা নুরুন্নাহার বেগম।

বর্তমানে দৈনিক আজকের দেশ বিদেশ পত্রিকায় কম্পিউটার বিভাগের ইনচার্জ।

বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১ উঃক্ষেপন নিয়ে সারা দেশ যখন মেতে উঠেছিল, সেই রাতে ইতিহাসের স্বাক্ষী হতে অন্যান্যদের মতো এই মোহাম্মদ নেছারও রাত জেগে ছিলেন।

মহাকাশে বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট ঐতিহাসিক সংবাদটি জাতীয় দৈনিক ও কক্সবাজারের স্থানীয় এগুলো দৈনিকের মধ্যে শুধুমাত্র কক্সবাজারের স্থানীয় একটি মাত্র প্রিন্ট মিডিয়া দৈনিক আজকের দেশ বিদেশ পত্রিকায় সঠিক তথ্য নিয়ে যথাসময়ে প্রকাশিত হয়। এনিয়ে পুরো কক্সবাজার জেলা ও দেশব্যাপী আলোচিত হয়। এই আলোচনার প্রধান কেন্দ্র বিন্দুর মানুষটিই হচ্ছেন মোহাম্মদ নেছার। রাত জেগে তিনি সঠিক সময়ে সঠিত ও আলোচিত খবরটি প্রকাশ করেছেন।

তার এ অকৃত্রিম সাফল্যের জন্য দৈনিক আজকের দেশ বিদেশ পত্রিকা কর্তৃপক্ষ তাকে সংবর্ধিতও করেছে। পাশপাশি তাকে মহেশখালী উপজেলা প্রশাসনও সম্মাননা দিচ্ছেন।

স্বয়ং ইতিহাসের স্বাক্ষী এই আলোর মানুষটিকে কক্সবাজার জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে এবং জেলাবাসির পক্ষ থেকেও সংবধিত করার দাবী রাখে।

কারণ কক্সবাজার জেলা ও বাংলাদেশে এগুলো পত্রিকা থাকলেও তারা সেভাবে কষ্ট করেনি বা কষ্ট করতে চাইনি। তিনি কষ্ট করেছেন, হয়ে গেছেন একজন ইতিহাসের স্বাক্ষী। আরাম আয়েশ বির্সজন দিয়ে তিনি এ কাজকে আকঁড়ে ধরে রেখেছিলেন সেইদিন রাত ও মাহিন্দ্রক্ষণকে।

কক্সবাজারে ছেলে থেকে বুড়ো, আবালবৃদ্ধবনিতা সবার কাছেই একনামে পরিচিত এই মোহাম্মদ নেছার। এই কাজের জন্য তিনি আরো ব্যাপক পরিচিতি লাভ করেছে। ১১ মে দিনগত রাতে ইতিহাসের স্বাক্ষী হতে হাজির ছিলেন দৈনিক আজকের দেশ বিদেশ কার্যালয়ে। বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১ উৎক্ষেপনের প্রথমদিনও তিনি যথাযতভাবে পত্রিকা অফিসে দায়িত্ব পালন করেছেন। দ্বিতীয় দিন যখন বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১ উৎক্ষেপন করা হয়, তখন রাতজেগে তিনিই ছিলেন, সংবাদটি গুরুত্ব সহকারে ছাপান দৈনিক আজকের দেশ বিদেশ পত্রিকায় । কক্সবাজার জেলায় এতোগুলো দৈনিক পত্রিকায় কেউ দায়িত্ববোধ থেকে রাত জেগে সঠিত তথ্য সম্বলিত সংবাদটি ছাপাতে পারেনি। ইতিহাস পড়ে, ইতিহাস গড়ে এটাই শেষ কথা নয়, তার হাতেই রচিত হলো কক্সবাজার জেলায় নয় শুধু, সারা দেশের জন্য আগামীর ইতিহাস।

ইতিহাসের স্বাক্ষী থাকা এই আলোর মানুষটিকে এখনই স্বীকৃতি দেয়া আমাদের নৈতিক দায়িত্ব। মোহাম্মদ নেছার এর প্রতি জেলা প্রশাসন সহ সবাই সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দেবেন এটাই আমাদের প্রত্যাশা।

সর্বশেষ সংবাদ

উখিয়া কেন্দ্রীয় জামে মসজিদের খতিব হাফেজ আনোয়ার আর নেই

আরব আমিরাতে উখিয়া প্রবাসীদের মিলনমেলা উপলক্ষে আলোচনা সভা

আ’লীগ জনগনের সংগঠন, নির্বাচনের বিধি মেনে কাজ করুন : মেয়র নাছির

গায়েবি মামলা প্রত্যাহার চেয়ে প্রধানমন্ত্রীর কাছে তালিকা দিল বিএনপি

রোহিঙ্গা সংকট নিয়ে সু চিকে ভর্ৎসনা মাহাথিরের

হালদা নদীকে দুষণমুক্ত করতে সবার সহযোগিতা চাইলেন ইউএনও রুহুল আমিন

সুব্রত চৌধুরীকে দিয়ে অলির রাজত্ব খতম করতে চায় গণফোরাম

দলীয় পরিচয় বহাল রেখে অন্যের প্রতীকে ভোট নয় অনিবন্ধিতদের

জাতীয় হিফযুল কুরআন প্রতিযোগিতায় বিচারক মনোনীত হলেন মাওলানা মুহাম্মদ ইউনুস ফরাজী

১০ বিশিষ্ট ব্যক্তিকে নির্বাচনে সম্পৃক্ত করতে চান ড. কামাল

আবারও স্পেনের সেরা লিওনেল মেসি

ট্রাম্পের বিরুদ্ধে সিএনএনের মামলা

জিএম রহিমুল্লাহ, ভিপি বাহাদুরসহ ৬ জনের আগাম জামিন

লক্ষ্যারচরে দরিদ্রদের মাঝে স্বল্প মূল্যে খাদ্যশস্য বিতরণ

কক্সবাজার ১ ও ২ থেকে সালাহউদ্দিন ও হাসিনা আহমদ’র মনোয়নপত্র গ্রহণ

চট্টগ্রাম মেডিকেল হাসপাতালে ক্যানসারের রেডিওথেরাপি চালু 

পেশকার পাড়ায় সরকারের উন্নয়ন কর্মকান্ডের প্রামান্য চিত্র প্রদর্শন

পেকুয়ায় শ্রমিকলীগ নেতা শাহাদাতকে হত্যাচেষ্টার ঘটনায় অবশেষে মামলা

নুরুল বশর চৌধুরী কক্সবাজার-২ আসনের মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করেছেন

পর্দা উঠলো ওয়ালটন বীচ ফুটবল টূর্ণামেন্ট’র উদ্বোধন