সাগর পাড়ে মিলনমেলায় মাতলো এসএসসি ২০০২ ও এইচএসসি ২০০৪ ব্যাচ

নিজস্ব প্রতিবেদক :

বন্ধুত্বের বন্ধন ছিন্ন হওয়ার নয়। বন্ধুত্বের সম্মিলিত অংশগ্রহনে যে কোন কাজ সহজে সম্পন্ন করা যায়। আর, বন্ধুত্ব হচ্ছে এমন একটি বন্ধন যা চিরকালেই টিকে থাকে। এসএসসি ২০০২ এবং এইচএসসি ২০০৪ ব্যাচের মিলনমেলায় স্মৃতিচারন করতে গিয়ে এসব মন্তব্য করেন অনেকেই।

শনিবার কক্সবাজার সমুদ্র সৈকতের কলাতলী বীচে বসেছিল ২০০২ এবং ২০০৪ ব্যাচের বন্ধুদের মিলন মেলা। সাত বছর আগে একটি ফেইসবুক গ্রুপের মধ্য দিয়ে যাত্রা করে ০২ এবং ০৪ বন্ধুদের সদস্য সংগ্রহের প্রাথমিক কার্যক্রম। দীর্ঘ সাত বছরে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইসবুক গ্রুপে সদস্য সংখ্যা দাড়ায় ৩০ হাজারে। সারা দেশের ন্যায় কক্সবাজারেও শনিবার উদযাপন করা হয় উক্ত গ্রুপের সাত বছর পূর্তি। বিকেলে সমুদ্র সৈকতে কেক কেটে প্রতিষ্টা বার্ষিকী উদযাপন করা হয়। এরপর সকল বন্ধুদের সমন্বয়ে আনন্দ শোভাযাত্রা বের করা হয়। এটি সমুদ্র সৈকতের কয়েকটি পয়েন্ট প্রদক্ষিন করে কলাতলী পয়েন্টে এসে শেষ হয়। পড়ন্ত বিকেলে কলাতলী স্যান্ডি বীচ রেস্তোরায় শুরু হয় স্মৃতিচারন অনুষ্ঠান। মিনহাজ চৌধুরীর সঞ্চালনায় শুরুতেই স্বাগত বক্তব্য রাখেন দলনেতা হাসনা হুরাইন চৌধুরী। গ্রুপ এডমিন জাকারিয়া নাহিদ, কক্সবাজার জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট সাইফুল আশরাফ জয়, কক্সবাজারের সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার সাইফুল ইসলাম, কক্সবাজার সরকারী মহিলা কলেজের প্রভাষক আবু সাঈদ মোহাম্মদ মুজিব,রূপালী ব্যাংক ঈদগাও শাখার ব্যবস্থাপক আজিজুল হক। কক্সবাজার সদর হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা: শাহীন আব্দুর রহমান অনুষ্ঠানে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন।

সন্ধ্যায় শুরু হয় মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। কক্সবাজারকে নিয়ে রচিত আঞ্চলিক গানের মধ্য দিয়ে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান শুরু হয়।অনুষ্ঠানে এসএসসি ০২ এবং এইচএসসি ০৪ ব্যাচের শিল্পীরা সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে অংশ নেন। রুহী মেহনাজ এবং আসিফ সাইফুল আবিরের দ্বৈত নৃত্য অনুষ্ঠানকে আরো বেশী সমৃদ্ধ করেছে। এরপর শহিদুল ইসলাম, মোক্তার আহম্মদ, তাহিয়া পপি’র গান মাতিয়ে রাখে সকল বন্ধুদের। আব্দুল আজিজের বাঁশির সুর আর সাগরের গর্জনে বিমোহিত হয় সবাই। অধ্যাপক রোমানা আকতারের আবৃত্তি, মিনহাজ চৌধুরীর পুতি পাঠ এবং সাইফুল আশরাফ জয়ের আবৃত্তিতে প্রাণ ফিরে পায় পুরো অনুষ্ঠান। সর্বশেষে সকল বন্ধু এবং তাদের পরিবারের অংশগ্রহনে মো: আলমের পরিচালনায় বিশেষ কুইজ অনুষ্ঠান অনুষ্ঠানের ভিন্ন মাত্রা যোগ করে।

পুরো সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান সঞ্চালনায় ছিলেন তৌফিকুল ইসলাম লিপু। অনুষ্ঠানে আয়োজক হিসেবে দায়িত্বে ছিলেন, মোহাম্মদ নুরুল আলম, খোরশেদ আলম, মিজান উল্লাহ সিকদার, শাওন চক্রবর্তী, সাঈদ বিন জেবর, সেলিম উল্লাহ, আরিফুর রহমান রাজু, শাহেদুজ্জামান জনি প্রমুখ।

সর্বশেষ সংবাদ

শহীদদের শ্রদ্ধা জানালো কক্সবাজার পৌরসভা

একুশের প্রথম প্রহরে শহীদদের শ্রদ্ধা জানালো জেলা বিএনপি

সাবেক ছাত্রদল নেতা হাবিব উল্লাহ ১০ হাজার ইয়াবাসহ আটক

নাইক্ষ্যংছড়িতে বিনম্র শ্রদ্ধায় ভাষা শহীদদের স্মরণ

পুরান ঢাকার আগুন নিয়ন্ত্রণে, ৬৫ লাশ উদ্ধার

‘দিনাজপুরে সপ্তম শ্রেণির মেয়েরা ইয়াবায় আসক্ত’

২১ সালের মধ্যে মধ্যম আয়ের দেশ হবে বাংলাদেশ

কক্সবাজারে ফুলে ফুলে অমর একুশের শহীদদের স্মরণ

পুরান ঢাকার চকবাজারে আগুন, ৫৬ লাশ উদ্ধার

ভারুয়াখালীতে স্কুলছাত্রকে অপহরণের চেষ্টা  ‘ভাই গ্রুপের’

আজ আন্তর্জা‌তিক মাতৃভাষা দিবস

মুজিবুর রহমান ও এমপি জাফরের দোয়া নিলেন ফজলুল করিম সাঈদী

মাতৃভাষার প্রতি আগ্রহ হারাচ্ছে রাখাইনদের নতুন প্রজন্ম

শুদ্ধ সংস্কৃতির চর্চার মধ্য দিয়ে অপশক্তিকে রুখতে হবে- মেয়র মুজিব

একুশে ফেব্রুয়ারি : প্রাপ্তি ও প্রত্যাশা

টেকনাফে সাড়ে ১৫ লক্ষ টাকার স্বর্ণালংকার উদ্ধার

চকরিয়ায় শিশু ও নারী নির্যাতন মামলার ৫ বছরের সাজাপ্রাপ্ত আসামী গ্রেপ্তার

২০ হাজার ইয়াবাসহ দুইজন আটক

এডভোকেট রানা দাশগুপ্তের সাথে কক্সবাজার জেলা নেতৃবৃন্দের মতবিনিময়

ইসলামে মাতৃভাষার গুরুত্ব ও তাৎপর্য