কলকাতার বাসে প্রকাশ্যে হস্তমৈথুনের অভিযোগে গ্রেফতার

বিবিসি বাংলা : ভারতের কলকাতায় একটি বাসে একজন নারীকে লক্ষ্য করে প্রকাশ্যে হস্তমৈথুন করার অভিযোগে পুলিশ একজন মাঝবয়সী ব্যক্তিকে গ্রেফতার করেছে।

ওই নারী লোকটির ওই আচরণের দৃশ্য নিজের ফোনে রেকর্ড করেন – এবং পরে সোশ্যাল মিডিয়ায় তা পোস্ট করলে কিছুক্ষণের মধ্যেই সেটি ভাইরাল হয়ে যায়।

ফেসবুকে ভিডিওটি পোস্ট করার ঠিক আট ঘণ্টা পর, কলকাতা পুলিশের ভাষায় ‘শহর চষে ফেলে’ তারা শনিবার রাতেই অভিযুক্ত ব্যক্তিকে ধরে ফেলে।

পরে কলকাতা পুলিশের নিজস্ব ফেসবুক পোস্টে ওই ব্যক্তির ছবি দিয়ে লেখা হয়, ‘ইনিই তিনি। ধরা পড়েছেন। শাস্তি হবেই, ভরসা রাখুন।’

ওই নারী তার ফেসবুক অ্যাকাউন্টে লিখেছেন, শনিবার দুপুরে তিনি যখন বন্ধুর সাথে উত্তর কলকাতার হেদুয়া থেকে ৩০বি/১ রুটের একটি বাসে চেপে যাচ্ছিলেন, তখন ওই ব্যক্তি আচমকাই তাকে উদ্দেশ্য করে ওই জঘন্য কাজটি করতে শুরু করে।

চলন্ত বাসে নিজের সিটে বসে প্যান্টের জিপার খুলে পুরুষাঙ্গ বের করে তিনি ওই মহিলার দিকে তাকিয়ে হস্তমৈথুন করতে থাকেন।

তিনি বাস কন্ডাক্টরের দৃষ্টি আকর্ষণ করলে সে হাসতে হাসতে বলে “আমি কী করতে পারি, বলুন? কার মনে কী আছে সেটা আমি কী করে জানব?”

তখন “ওই লোকটি নোংরামো করছেন, ওকে আপনারা ধরুন,” বলে সেই নারী চিৎকার করে উঠলেও বাসের যাত্রীরা কেউ কোনও প্রতিবাদ করেনি, তারা সবাই চুপচাপ বসেছিল বলেই তিনি জানাচ্ছেন।

এমন কী, তার সঙ্গে এই ঘটনা প্রথম নয় বলেও তার দাবি। দিন-পনেরো আগেও এই একই ব্যক্তি আর একটি বাসে ওই মহিলাকে উদ্দেশ্য করে একই ধরনের নোংরামো করলেও তখনও বাসের কন্ডাক্টর বা যাত্রীরা কিছুই করেননি বলে তার অভিযোগ।

এবার আর তিনি অবশ্য বিষয়টা উপেক্ষা করেননি। নিজের মোবাইলেই ওই ব্যক্তির ছবি রেকর্ড করে নিয়ে তিনি পরে ফেসবুকে ঘটনার বিস্তারিত বিবরণ দিয়ে পোস্ট করেন, আর সঙ্গে সঙ্গে সোশ্যাল মিডিয়াতে হুলুস্থুল পড়ে যায়।

মাত্র কয়েক ঘণ্টার ভেতর তার পোস্টে ২৫০০০ কমেন্ট পড়ে যায়, প্রায় চল্লিশ হাজারের মতো লোক সেটি শেয়ার করেন।

রাত সাড়ে আটটা নাগাদ কলকাতা পুলিশ জানায়, তারা ওই ব্যক্তিকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়েছে। আরও বলা হয়, প্রিয়াঙ্কা দাস নামে ওই নারীর ফেসবুক পোস্টের ভিত্তিতেই মামলা রুজু করে ঘটনার তদন্ত শুরু হয়েছিল।

পুলিশ তার নাম পরিচয় প্রকাশ করে বলেছে, তিনি একজন হকার।

এই ঘটনায় অভিযুক্ত ব্যক্তিকে খুব কম সময়ের মধ্যে ধরতে পারায় সোশ্যাল মিডিয়াতে অনেকেই যেমন কলকাতা পুলিশের তারিফ করছেন, তেমনি বাসের সহযাত্রীরা এই ঘটনায় হাত গুটিয়ে থাকায় নিন্দারও ঝড় উঠেছে।

মাত্র কয়েকদিন আগে কলকাতার মেট্রো রেলে এক তরুণ-তরুণী নিজেদের মধ্যে আলিঙ্গনাবদ্ধ অবস্থায় ছিলেন, তার প্রতিবাদে ট্রেনের সহযাত্রীরা স্টেশনে নেমে তাদের ব্যাপক মারধর করেছিলেন।

সেই ঘটনার পর কলকাতার ‘মরাল পুলিশিং’ বা নৈতিকতার মুরুব্বিগিরি নিয়ে ব্যাপক সমালোচনা হয়েছিল।

অনেকেই বলছেন, সেই ঘটনার মাত্র কয়েকদিনের মধ্যে গণপরিবহনে এরকম অসভ্যতা দেখেও কলকাতা কীভাবে চুপ থাকতে পারল, এটাই তাদের মাথায় ঢুকছে না!

সর্বশেষ সংবাদ

কক্সবাজার কলেজে যথাযোগ্য মর্যাদায় মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস পালন

পেকুয়ায় পাহাড় কেটে রাস্তা নির্মাণ

‘গণ্ডি’ ছবির জন্য কক্সবাজারে সব্যসাচী

সাইবার অপরাধীদের নজর এখন ব্যাংকিং সেক্টরে

রোহিঙ্গা ক্যাম্পে স্বামীর হাতে স্ত্রী খুন

ওবায়দুল কাদেরকে কেবিনে স্থানান্তর

চকরিয়ার মানিকপুরে পুড়ে গেছে ৩ দোকান , ৫লক্ষাধিক টাকার ক্ষতি

কক্সবাজারে গভীর শ্রদ্ধায় পালিত হচ্ছে মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস

৪৭ বছরে একটি জাতির ম্যাচিউরিটি আসেনা

চট্রগ্রামে গ্যারেজে আগুন লেগে পুড়ে গেল বাস

চকরিয়ায় বর্ণাঢ্য আয়োজনে মহানস্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উদযাপন

স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবসে রাঙামাটির রাবিপ্রবিতেবৃত্তি ক্রীড়া প্রতিযোগিতা

আজকের শিশুরাই উন্নত সোনার বাংলা গড়বে : প্রধানমন্ত্রী

স্বাধীনতা দিবসে শহীদদের প্রতি কক্সবাজার পৌরসভার শ্রদ্ধান্ঞ্জলি

ওলামা দলের সভাপতি আব্দুল মালেক মারা গেছেন

একাদশের ভর্তিতে বন্ধ হচ্ছে গলাকাটা ফি

রামু লম্বরীপাড়া দারুল কুরআন নূরানী একাডেমীতে মহান স্বাধীনতা দিবস পালন

আবারও সেরাদের তালিকায় ইসলামী ব্যাংক রেসিডেন্সিয়াল মাদরাসা

মহান স্বাধীনতা দিবসের ভাবনা; অশান্ত পার্বত্য চট্টগ্রাম ও শহীদ লে. মুশফিকের অনুপম বীরত্বগাঁথা

নিদানিয়া জামে মসজিদ ও মাদরাসাতুল কোরআন আল ইসলামিয়ার বার্ষিক সভা ১ এপ্রিল