হলদিয়া রাস্তার বেহাল অবস্থা : সড়কতো নয় যেন পুকুর!

কনক বড়ুয়া, উখিয়া :
কক্সবাজার জেলার উখিয়া উপজেলার ব্যস্ততম এবং যানজট পূর্ণ স্টেশন মরিচ্যার মধ্য বাজার হইতে হলদিয়া-পাতাবাড়ি সড়কের বেহাল অবস্থা। মেরামতের অভাবে মরিচ্যা মধ্য বাজার থেকে পাতাবাড়ি পর্যন্ত রাস্তার বিভিন্ন স্থানে খানা খন্দকের কারণে সাধারণ মানুষের চলাচলে চরম দুর্ভোগের সৃষ্টি হয়েছে।

শুধু তাই নয়, দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে মরিচ্যা পালং উচ্চ বিদ্যালয়ের  ছাত্র-ছাত্রীদের। ঠিক মত ছাত্র-ছাত্রীরা স্কুলে যেতে পারছেনা বর্ষার শুরুতে। সকাল বেলায় বাড়ি থেকে সাদা  স্কুল ইউনিফর্ম পরিধান করে আসলেও হলদিয়া রাস্তা পার হওয়ার পর নালা-নর্দমার পানি ও কাঁদায় অস্বস্থিকর অবস্থা। পাশাপাশি করুন পরিস্থিতি হলদিয়া রাস্তার দুপাশের ছোট-বড় ব্যবসায়ীদের।

বর্ষার শুরুতে সামান্য বৃষ্টি হলেই প্রচন্ড জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হয় সড়কটিতে। এরই মধ্যে ভেঙে ছোটখাট কুয়ায় পরিণত হয়েছে সড়কটির বেশ কয়েকটি অংশ। ফলে এর বেশ কিছু অংশই এখন চলাচলের উপযোগী নয়। সড়কটি এখন যেন মরণফাঁদ। রাস্তার অনেক জায়গায় কার্পেটিং উঠে গিয়ে ছোট-খাটো গর্ত সৃষ্টি হওয়ায় যানবাহনগুলোকে চলতে হচ্ছে হেলে দুলে। এ রাস্তা দিয়ে প্রতিদিন প্রায় হাজার এর উপরে রিকশা, বাস, ট্রাক, সিএনজি, টেম্পু, মোটরসাইকেল, নসিমন, অটোরিকশা, ভ্যান, সাইকেল, বিভিন্ন কোম্পানীর মালবাহী গাড়িসহ বিভিন্ন যানবাহন চলাচল করে। রাস্তা ভাঙ্গার কারণে প্রায় প্রতিদিনই লোকজন বিভিন্ন দুর্ঘটনার শিকার হচ্ছেন। বিকল্প সড়ক না থাকায় জীবনের ঝুঁকি নিয়ে প্রতিদিন মরিচ্যা বাজারেরসহ পার্শবর্তী উপজেলা থেকে আগত যাত্রীরা চলাচল করছেন।

উখিয়া উপজেলার সহ পাশ্ববর্তী এলাকা থেকে মরিচ্যা বাজারে প্রবেশের ব্যস্ততম সড়ক হচ্ছে এই সড়ক। রাস্তার পাশে যানবাহন দাঁড়িয়ে থাকা, অননুমোদিত ও অতিরিক্ত রিক্সা চলাচলের কারণে বাজারের বেশিরভাগ সময় যানজট লেগে থাকে।

সরেজমিন দেখা গেছে, মরিচ্যা বাজার থেকে পাতাবাড়ি পর্যন্ত রাস্তায় বেশ কয়েকটি বড় বড় গর্ত হয়ে পুকুরে রূপ নিয়েছে। বৃষ্টি হলেই গর্তসহ পুরো সড়কটির তলিয়ে যায়। পানি জমে থাকলে অনেকেই গর্তের গভীরতা বুঝে উঠতে পারেন না। ফলে হরহামেশাই এসব গর্তে পড়ে নাস্তানাবুদ হতে হচ্ছে গাড়ি চালকদের। যানবাহন চলাচলও ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে উঠেছে।রাস্তার খানাখন্দ কারণে যানবাহন চলছে ঝিমিয়ে। ফলে যানজট তীব্র আকার ধারণ করছে। বর্ষার বৃষ্টির কারণে শতাধিক বড় বড় গর্ত পানিতে ভরে গেছে। রাস্তা এবং গর্তও পানি সমান হওয়ায় কোনটা গর্ত আর কোনটা রাস্তা বুঝার উপায় নেই।

রাস্তাটি সংস্কারের জন্য উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা, ইউনিয়ন চেয়ারম্যান-মেম্বার সহ উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের বরাবর হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন মরিচ্যা পালং উচ্চ বিদ্যালয়ের ছাত্রছাত্রী, ব্যবসায়ীসহ এলাকাবাসী।

সর্বশেষ সংবাদ

তৌহিদ নামের ছেলেটি এখন অভিভাবকের হাতে

চকরিয়ার বদরখালীতে ১০ মাসেও মিটার না পাওয়ায় গ্রাহকদের বিক্ষোভ

স্বাস্থ্য মন্ত্রী জাহিদ মালেক দু’দিনের সফরে কক্সবাজারে

লোহাগাড়ায় গরু চোর সন্দেহে যুবককে গণপিটুনি

রাঙ্গামাটিতে বৃক্ষরোপন অভিযান ও বৃক্ষমেলা উদ্বোধন

লম্বরীপাড়ার মুরুব্বীদের সাথে আলোর দিশারী যুব পরিষদের মতবিনিময়

গুজব গণপিটুনি বন্ধে সারাদেশের পুলিশকে বার্তা

ব্যারিস্টার সুমনের বিরুদ্ধে মামলা

কক্সবাজারে পাওয়া গেছে একটি ছেলে

ফেনির দুর্ধর্ষ সন্ত্রাসী আজাদ গ্রেফতার

চট্টগ্রামে গৃহশিক্ষক ধর্ষণ করল ৬ষ্ট শ্রেণির ছাত্রী, শিক্ষক গ্রেফতার

আনন্দবাজারের প্রতিবেদন – ‘তসলিমারা প্রিয়ার পাশে, নরম হাসিনা’

ডেঙ্গুতে হবিগঞ্জের সিভিল সার্জনের মৃত্যু

মিথ্যা ধর্ষণ মামলায় বাদী নিজেই শ্রীঘরে

মাতলামি

নাইক্ষ্যংছড়িতে মাছের পোনা অবমুক্ত করলো বিজিবি

ডেপুটি এটর্নি জেনারেল হলেন কক্সবাজারের ব্যারিস্টার নওরোজ চৌধুরী

চকরিয়ায় বৃদ্ধ মুক্তিযোদ্ধার উপর সন্ত্রাসী হামলা

জলদাশ পাড়ায় শ্মশান নিয়ে সৃষ্ট জটিলতা সমাধানে এগিয়ে গেলেন এমপি কমল

বন্যায় দূর্গত মানুষের পাশে নেই বিএনপি নেতা কর্মীরা- রেজাউল করিম