‘আল্লাহর দোহাই ,ছাত্রলীগকে অপপ্রচার থেকে মুক্তি দিন’

এম ফিরোজ উদ্দিন খোকা

আমার ভালবাসার প্রিয় সংগঠন -শিক্ষা, শান্তি প্রগতির ধারক ও বাহক বাংলাদেশ ছাত্রলীগকে নিয়ে কিছুদিন যাবত সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইসবুক ও গণমাধ্যমে দেখা যাচ্ছে যে,আমরা নিজেরাই নিজেদের মধ্যে একে অন্যের দোষক্রটি নিয়ে ছাত্রলীগের বিভিন্ন নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধেএকে অপরের অপপ্রচার চালাচ্ছি,এতে সাধারন শিক্ষার্থী ও সাধারন জনগন বিভ্রান্ত হচ্ছে,এবং আমাদের প্রাণপ্রিয় সংগঠন বাংলাদেশ ছাত্রলীগের ভাবমূর্তি নষ্ট হচ্ছে। আমি এম ফিরোজ উদ্দিন খোকা, কক্সবাজার জেলা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও ছাত্রলীগের একজন গর্বিত কর্মী হিসেবে বলতে চাই,১৯৪৮ সালের ৪ টা জানুয়ারি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ফজলুল হক হল যা বর্তমান কার্জন হলে প্রতিষ্টত হওয়া সংগঠনটি অধ্যাবদী পর্যন্ত সুনামের সহিত বিভিন্ন আন্দোলন সংগ্রাম করে আসছে,আল্লার দোহাই দিয়ে বলতে চাই আর এই সংগঠনের সুনাম নষ্ট করবেন না কেউ ।সাফল্য ঐতিহ্য,গৌরব ও সংগ্রামের ৭০ বছর পার করে আসছি,এই সংগঠন থেকে যেমন বীর সোনালীদের জন্ম হয়েছে তেমনি বাংলাদেশ ছাত্রলীগ থেকে শেখ হাসিনার জন্ম হয়েছে,তাই আমাদের বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সকল নেতাকর্মীদের একটাই আাশা জননেত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনার বিশ্বস্ত ভ্যানগার্ড হয়ে নেত্রীকে আবারো ক্ষমতায় আনা আমাদের একমাত্র লক্ষ্য।

যতদিন রবে শেখ হাসিনার হাতে বাংলাদেশ –
ততদিন পথ হারাবেনা বাংলাদেশ,

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নিজ হাতে গড়া সংগঠন বাংলাদেশ ছাত্রলীগের বীর সেনারা ৫২ এর ভাষা আন্দোলন ৬২ এর শিক্ষা আন্দোলন, ৬৬ এর ছয়দফা,৬৯ এর গণ অভ্যুত্থান ৭০ এর নির্বাচন ,৭১ এর মহান মুক্তিযুদ্ধে ১৭ হাজার নেতাকর্মীরআত্মত্যাগের বিনিময় ও বিভিন্ন আন্দোলন সংগ্রামে ছাত্রলীগের ভূমিকা অনস্বীকার্য। যা বহিঃর্বিশ্বে সুনাম অর্জন করেছে যুগ যুগ ধরে।
এই সংগঠনে আমরা আজ একে অন্যের বিরুদ্ধতা পোষন করছি,তা কখনো কাম্য নয়,তবে আমাদের কিছু অনুপ্রবেশকারী থাকতে পারে,তাই এই দায়ভার বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সকল নেতাকর্মী নিতে পারিনা।আমরা আগামী ২০১৯সালের নির্বাচনে বাংলাদেশ ছাত্রলীগের একমাত্র অভিভাবক বিশ্বের শান্তির অগ্রদূত,মাদার অব হিউমিনিটি,গণতন্ত্রের মানসকন্যা, বিদ্যানন্দিনী জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সুযোগ্য কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনাকে তৃতীয়বারের মত সরকার গঠন করার লক্ষ্যে কাধে কাধ মিলিয়ে ছাত্রলীগের সকল নেতাকর্মীরা কাজ করি।
নিজেরা নিজেদের মধ্যে অপপ্রচার হিংসা,বিদ্বেষ, বিরুদ্ধবাদ না করে সবাই এক কাতারে এসে কাজ করি।বাংলাদেশের সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে সাধারণ ছাত্রদের নিয়ে আগামীতে আন্দোলন সংগ্রামে অংশগ্রহন করার জন্য সাধারণ ছাত্রদের পাশে থেকে তাদের সুখ দুঃখের সারথি হয়ে কাজ করি এবংসরকারের বিভিন্ন উন্নয়ন জনগনের কাছে তুলে ধরে জননেত্রী শেখ হাসিনার নৌকা প্রতিকে ভোট চাই।

এসো নবীন দলে দলে
ছাত্রলীগের পতাকাতলে,
শিক্ষা, শান্তি,প্রগতি ছাত্রলীগের মূলনীতি এই শ্লোগানকে ধারণ করে বাংলাদেশ ছাত্রলীগের গর্বিত কর্মী হই।


এম ফিরোজ উদ্দিন খোকা
সাংগঠনিক সম্পাদক ,বাংলাদেশ ছাত্রলীগ, কক্সবাজার জেলা শাখা।