লামায় এনজিও কর্মী নিয়োগে স্থানীয়দের অগ্রাধিকারের দাবীতে স্মারকলিপি

মো. নুরুল করিম আরমান, লামা প্রতিনিধি :

বান্দরবানে লামা উপজেলায় বেসরকারী উন্নয়ন সংস্থা তৈমু ও তাজিংডং এর নিয়োগে স্থানীয়দের অগ্রাধিকার দেওয়ার দাবীতে বান্দরবান জেলা প্রশাসকের নিকট স্মারকলিপি দিয়েছে শিক্ষিত বেকার ও সর্বস্তরের জনসাধারণ। সোমবার দুপুরে উপজেলা নির্বাহী অফিসারের মাধ্যমে স্মারকলিপি প্রদান করেন ছাত্রলীগ সভাপতি মংক্যহ্লা মার্মা প্রমুখ। এ সময় শতাধিক বেকারসহ স্থানীয় গন্যমান্য ব্যক্তি উপস্থিত ছিলেন। স্মাারকলিপিতে স্থানীয় ৭২জন বেকার স্বাক্ষর করেছেন।

স্মারকলিপিতে অভিযোগ করে বলা হয়, এনজিও তৈমু ‘স্যাপলিং’ প্রকল্পের অধিনে লামা উপজেলার গজালিয়া, সরই, রুপসীপাড়া ও লামা সদরে ৪০ জন ফিল্ড ফ্যাসিলিটেটর, ৭২ জন স্বাস্থ্য কর্মী ও ৭ জন সিল্টক এজেন্ট নিয়োগের জন্য গত ৩০ এপ্রিল বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে। পাশাপাশি এনজিও তাজিংডংও লামা পৌরসভা, ফাঁসিয়াখালী, আজিজনগর ও ফাইতং ইউনিয়নে ৪০ জন ফিল্ড ফ্যাসিলিটেটর, ৬৮ জন স্বাস্থ্য কর্মী, ৫ জন সিল্টক এজেন্ট নিয়োগের জন্য গত ২৫ এপ্রিল বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে। বিগত দিনে উপজেলায় বিভিন্ন এনজিওগুলোতে ৯০ ভাগের বেশী রাঙ্গামাটি-খাগড়াছড়িসহ অন্য জেলার নাগরিকরা নিয়োগ পেয়েছে। এতে করে স্থানীয় শতশত শিক্ষিত ছেলে-মেয়েরা বঞ্চিত হয়েছে। চাকুরী না হওয়ায় হতাশায় ভুগছেন বেকার ছেলে মেয়েরা। তাই বেসরকারি প্রতিষ্ঠান গুলোতে নিয়োগ প্রদান ও ইতোপূর্বে অন্য জেলা থেকে লামার কোটায় নিয়োগ প্রাপ্তদের উপজেলা থেকে সরিয়ে নেয়ার দাবী করা হয়।

অভিযোগ উঠেছে, এইসব এনজিওতে দায়িত্বরত অধিকাংশ কর্তা ব্যক্তিরা রাঙ্গামাটি ও খাগড়াছড়ি জেলার হওয়ায় তারা স্থানীয় ছেলে-মেয়েদের যোগ্যতা থাকা সত্ত্বেও স্বজনপ্রীতি, দুর্নীতি, ক্ষমতার অপব্যবহার, কারচুপি ও নিয়োগ প্রক্রিয়া থেকে কৌশলে বাদ দিয়ে তাদের পছন্দমত লোকবল নিয়োগ দিচ্ছে। এতে করে জেলার সব চেয়ে জনবহুল ও বৃহত্তর লামা উপজেলায় ক্রমেই শিক্ষিত বেকার যুবক যুবতীদের সংখ্যা বেড়েই চলছে।

স্থানীয় শিক্ষিত প্রজন্মের মতে, বৃহত্তর এ উপজেলায় শিক্ষার দিক থেকে এখন ক্ষুদ্র-নৃগোষ্ঠি ও বাঙ্গালী ছেলে-মেয়েরা অনেক এগিয়ে আছে। দেশের বিভিন্ন নাম করা কলেজ-ইউনির্ভাসিটি, ভোকেশনাল ইনিষ্টিটিউট থেকে বিভিন্ন পেশায় ডিপ্লোমাধারীর সংখ্যাও রয়েছে। নানান কারণে সরকারি চাকরি পাওয়ারও নিশ্চিয়তা হয়তো অনেকের নেই। বাস্তবতার নিরিখে লামা উপজেলায় বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে চাকরির কোটায় নিয়োগের ক্ষেত্রে শতভাগ স্থানীয়দের প্রাধান্য দেয়া উচিৎ বলে দাবী তোলা হয় স্মারকলিপিতে।

স্মারকলিপি প্রদানের সত্যতা নিশ্চিত করে লামা উপজেলা নির্বাহী অফিসার নূর-এ-জান্নাত রুমি বলেন, স্মারকলিপিটি দ্রুত জেলা প্রশাসকের নিকট পাঠানো হবে।

এ বিষয়ে বান্দরবান জেলা প্রশাসক মো. আসলাম হোসেন সাংবাদিকদের বলেন, নিয়োগ পক্রিয়ার বিষয়টি নিয়ে সংশ্লিষ্ট এনজিও প্রতিনিধিদের সাথে বৈঠক করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

সর্বশেষ সংবাদ

ঢাকাস্থ রামু সমিতির কার্যকরী কমিটির সভা অনুষ্ঠিত

হ্নীলা উচ্চ বিদ্যালয়ে যথাযোগ্য মর্যাদায় স্বাধীনতা দিবস পালিত

পেকুয়ায় নির্বাচন পরবর্তী সহিংসতা : ৩টি গাড়ী ভাংচুর, আহত-৭

শহীদ মিনারে ফুল দিয়ে একাত্তরের বীর শহীদদের শ্রদ্ধা জানালো ইইডি

আমিরাবাদে ৩ বসতবাড়ি পুড়ে ছাই

স্বাধীনতা দিবসে লাল সবুজের পতাকায় সৈকতকে রঙ্গীন করলো জেলা প্রশাসন

র‌্যাবে পুরস্কৃত হলেন ৫৯ জন, শীর্ষে ব্যাটালিয়ন ৭

ইসলামিক ফাউন্ডেশনে স্বাধীনতা দিবস পালন

মহান স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে জেলা ছাত্রদলের আলোচনা সভা

নাইক্ষ্যংছড়িতে যথাযোগ্য মর্যাদায় মহান স্বাধীনতা দিবস পালন

চকরিয়ায় বিদ্যুতের তারে জড়িয়ে নির্মাণ শ্রমিকের মৃত্যু

টেকনাফে স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস পালিত

ছাত্রলীগ নিয়ে উপাচার্য বললেন ‘এরা ছাত্র নয়, ছাত্র নামধারী জঙ্গি’

হঠাৎ থামল গাড়িবহর, তরমুজ বিক্রেতাকে ডাকলেন অর্থমন্ত্রী

বঙ্গবন্ধুর কথা মনে করে কাঁদলেন মাহবুব তালুকদার

আলীকদম উপজেলা চেয়ারম্যানের ভাইরাল ছবি নিয়ে বিব্রত ম্রো নেতারা

লামায় জমি নিয়ে শ্বশুর জামাইয়ের সংঘর্ষ : নারীসহ আহত ১৩

নাইক্ষ্যংছড়িতে যথাযোগ্য রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় মহান ২৬শে মার্চ পালন

মুক্তিযোদ্ধা ও পরিবারের সদস্যদের সম্বর্ধনা দিলো কক্সবাজার জেলা প্রশাসন

স্বাধীনতা দিবসে নাইক্ষ্যংছড়িতে পুলিশের কাবাডি প্রতিযোগিতা