সংবাদদাতা:

টেকনাফ বাহারছড়া শামলাপুর বাজারে একদল সন্ত্রাসীদের পূর্ব পরিকল্পিত হামলায় বাহারছড়া ইউনিয়নের ২ ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য ও যুবলীগ নেতা আজিজুল ইসলাম (আয়াছ কোম্পানী) ও স্থানীয় সংবাদকর্মী আনোয়ার হোসেন আহত হয়েছে বলে খবর পাওয়া গেছে।

ইউপি সদস্য আয়াছ কোম্পানী বলেন, আমি ৭মে বিকাল ৪ ঘটিকার সময় টেকনাফ থেকে সি,এন,জি গাড়ী নিয়ে শামলাপুর বাজারে আসলে স্থানীয় শামীম, আনছার, রাশেদ উল্লাহ সহ তাদের নৌকার কয়েকজন রোহিঙ্গা সন্ত্রাসী নিয়ে আমার জানা মতে কোনো কারণ তারা লাঠি সোঠা নিয়ে আমার উপর হামলা করে।

সংবাদকর্মী আনোয়ার হোসেন বলেন, ইউপি সদস্য আয়াছ কোম্পানীর উপর যখন সন্ত্রাসীরা দেশীয় অস্ত্র নিয়ে শামলাপুর বাজারে হামলা করে তখন আমি আয়াছ কোম্পানীকে হামলা থেকে বাচাঁতে এগিয়ে আসি। তখন শামীম নামে এক সন্ত্রাসী আমাকে ইট দিয়ে আঘাত করে আহত করে। পরে আমরা দুইজন স্থানীয় ফার্মেসীতে প্রাথমকি চিকিৎসা শেষে বাড়ি চলে আসি।

এদিকে স্থানীয় জনপ্রিয় ইউপি সদস্য ও যুবলীগ নেতা আয়াছ কোম্পানীর উপর হামলা খবর ছড়িয়ে পড়লে স্থানীয় তার সমর্থক ও যুবলীগের নেতাকর্মীদের মধ্যে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। দফায় দফায়  সন্ত্রাসী ও তাদের মালিকানাধীন রোহিঙ্গা পল্লীতে পালিত রোহিঙ্গা সন্ত্রাসীদের সাথে সংঘর্ষ বাঁধে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে স্থানীয় আইন শৃঙ্গলার কাজে দায়িত্বে থাকা পুলিশ, বিজিবি, কোর্সগার্ড দায়িত্ব পালন করে।

শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত উল্লেখ্যিত সন্ত্রাসীরা তাদের পালিত রোহিঙ্গা সন্ত্রাসী নিয়ে যে কোনো সময় বড় ধরণের হত্যাকান্ডের ঘটনা ঘটাতে পারে বলে স্থানীয় দায়িত্বশীল অনেক ব্যক্তি আশংঙ্গা প্রকাশ করেন।

আর উক্ত ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত বাহারছড়া ইউনিয়ন আওয়ামিলীগের আহবায়ক নুরুল হক বলেন, কোনো কারণ ছাড়া ইউপি সদস্য আয়াছ কোম্পানীর উপর সন্ত্রাসীরা আমার সামনে হামলা করে। আমি তার তীব্র নিন্দা জানাই। আর এই রকম ন্যাক্কারজনক হামলার আমি বিচার চাই।

 

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •