সিবিএন:
কক্সবাজার সমুদ্র থেকে রেনুপোনা আহরণ ঠেকাতে এবার অভিযানে নেমেছে প্রশাসন।

এ সময় চিংড়ি পোনা বা রেনু ভর্তি একটি ট্রাক জব্ধ করা হয়।

ট্রাকে রক্ষিত প্রায় ৬ লক্ষ (৪০ টি ড্রাম, প্রতিটিতে ১৫ হাজার) চিংড়ি পোনা বা রেনু উদ্ধার করা হয়। যা পরে রেজুখালে অবমুক্ত করা হয়।

পাচারের সাথে জড়িত একজনকে ১ বছর কারাদন্ড দেয়া হয়। দন্ডিত ব্যক্তির নাম সৈয়দ কাসেম ওরফে পাখি (৪২)। সে উখিয়া সোনারপাড়া নিদানিয়া এলাকার বাসিন্দা।

৫ মে সন্ধ্যা ৭ টার দিকে র‌্যাব-৭ এর কোম্পানি কমান্ডার মেজর মোঃ রুহুল অামিন এর নেতৃত্বে অভিযান চালানো হয়।

এ সময় কক্সবাজার সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. নোমান হোসেন প্রিন্স ও উপজেলা মৎস্য অফিসারসহ সংশ্লিষ্টরা উপস্থিত ছিলেন।

মো. নোমান হোসেন প্রিন্স জানান, একটি সংঘবদ্ধ চক্র অনেকদিন ধরেই কক্সবাজার হতে প্রাকৃতিক ভাবে চিংড়ি পোনা বা রেনু অাহরণ পূর্বক বিভিন্ন জেলায় পাচার করে অাসছে। এই চিংড়ি পোনা বা রেনু অাহরনের ফলে শুধু ছিংড়ি পোনাই বিলুপ্ত হচ্ছে না। পাশাপাশি হাজার হাজার প্রজাতির মাছের পোনা/রেনু ও নষ্ট/ধ্বংস হচ্ছে, যা প্রাকৃতিক তথা জলজ পরিবেশ বিনষ্ট করছে।

মানবিক দিক বিবেচনায় দু্ইজনকে ক্ষমা করে দেওয়া হয়। দোষী প্রমানিত হওয়ায় ১জনকে মৎস রক্ষা ও সংরক্ষণ অাইন- ১৯৫০ এর ৩(২), ৫(২) ধারায় ১ বছরের কারাদন্ড প্রদান করা হয়।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •