আন্তর্জাতিক ডেস্ক:
মিয়ানমারের উত্তরাঞ্চলে একটি খনির বর্জ্যের স্তুপ ধসের ঘটনায় কমপক্ষে ১৪ জনের মৃত্যু হয়েছে। কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, কাচিন প্রদেশের ওয়াই কা গ্রামে শুক্রবার ভোরে খনি ধসের ঘটনা ঘটে। খবর রয়টার্স।

মূল্যবান রত্নপাথর উৎপাদনকারী দেশগুলোর মধ্যে মিয়ানমার অন্যতম। ২০১৫ সালে কাচিন প্রদেশের ওই একই এলাকায় ভূমিধসের ঘটনায় শতাধিক মানুষ প্রাণ হারায়। তারপর থেকেই অং সান সুচির নেতৃত্বাধীন বেসামরিক সরকার ওই এলাকায় খনি শিল্পে নজরদারি জোরদারের প্রতিশ্রুতি দিয়েছে।

শুক্রবার সকালে শ্রমিকরা খনিতে কাজ করার সময়ই দুর্ঘটনা ঘটে। দুর্ঘটনা থেকে প্রাণে বেঁচে যাওয়া ৩০ বছর বয়সী খনি শ্রমিক মিন নাওং বলেন, আমি অল্পের জন্য বেঁচে গেছি। তিনি জানিয়েছেন, মাটির স্তুপ ধসে পড়ে সেখানকার লোকজন মারা গেছে।

এখানকার বেশিরভাগই খনির মালিকই আগের সামরিক সরকারের নেতৃস্থানীয় ব্যক্তি, সেনা সদস্য এবং বেশ কিছু চীনা ফার্ম। এখানে কাজ করে এমন অনেক শ্রমিকই মিয়ানমারের বাইরে থেকে এসেছে। তারা অনেক বিপজ্জনক পরিস্থিতিতে কাজ করছেন। কিন্তু তাদের খুব সামান্য অর্থই পারিশ্রমিক হিসেবে দেয়া হয়।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •