ডেস্ক নিউজ:
টেকনাফে নয়াপাড়া শরণার্থী ক্যাম্পে পৃথক দূঘর্টনায় এক শিশুর মর্মান্তিক মৃত্যু ও অপর দুই শিশু আহত হয়েছে।

জানা যায়, ৩০ এপ্রিল বিকাল ৫টারদিকে কালবৈশাখীর ঝড়ো হাওয়া চলাকালে নয়াপাড়া শরণার্থী ক্যাম্পের সি-ব্লকের এমআরসি নং-৬১৪০৪, শেড নং-১০৩৫/১০ এর বাসিন্দা শামসুল আলমের পুত্র মোঃ রাকিব (১২) প্রতিদিনের ন্যায় ই-ব্লকের দোলন চাম্পা নামে একটি স্কুলের টিনের ছাউনির উপর খেলা করতে যায়।

এ সময় ঝড়ো বাতাসে ছাউনির উপর দিয়ে প্রবাহিত হওয়া বিদ্যুতের তার ছিঁড়ে পুরো ছাউনি বিদ্যুতায়িত হয়। ঐ শিশু টিনের ছাউনিতে পা দেওয়ার সাথে সাথে বিদ্যুৎ স্পৃষ্ট হয়। তাকে দ্রুত উদ্ধার করে স্থানীয় হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য নেওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। নয়াপাড়া শরণার্থী ক্যাম্প পুলিশের আইসি মোঃ কবির হোসেন বিদ্যুৎ স্পৃষ্ট হয়ে শিশু নিহতের বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

এদিকে উক্ত ঘটনার পর পরই দূর্যোগপূর্ণ আবহাওয়ায় শবে-বরাতের ফাতেহায় জবাই করার জন্য আনা একটি পাগলা স্বভাবের মহিষ পাহাড় থেকে ঘাস খেয়ে ফিরছে। এসময় ডি-ব্লকের মাঠে খেলারত একদল শিশু মহিষটিকে ধাওয়া করলে দ্রুত দৌড়ে যাওয়ার সময় কাউকে শিং আবার কাউকে লাথি মেয়ে চলে আসে।

এসময় ডি-ব্লকের মোঃ ছালেহ এর পুত্র মোঃ আব্দুল্লাহ ও রফিক নামে অপর এক শিশু রক্তাক্ত ও গুরুতর আহত হয়। তাদের উদ্ধার করে স্থানীয় হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য নেওয়া হয়। এদের মধ্যে মূমুর্ষ আব্দুল্লাহকে উন্নত চিকিৎসার জন্য আশংকাজনক অবস্থায় কক্সবাজার সদর হাসপাতালে নেওয়া হয়।

নয়াপাড়া শরণার্থী ক্যাম্প চেয়ারম্যান আব্দুন নবী বলেন, ছেলেদের ধাওয়ায় ছুটে চলা পাগলা মহিষের হামলায় দুই শিশু গুরুতর আহত হয়।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •