মিয়ানমারে রয়টার্স সাংবাদিকদের পক্ষে সাক্ষ্য দেওয়া পুলিশ কর্মকর্তার কারাদণ্ড

বিদেশ ডেস্ক:
রোহিঙ্গা গণহত্যার সংবাদ সংগ্রহ করতে গিয়ে কারাগারে আটক রয়টার্স সাংবাদিকদের পক্ষে সাক্ষ্য দেওয়া এক পুলিশ কর্মকর্তাকে কারাদণ্ড দিয়েছে মিয়ানমার। মোয়ে আন নাইন নামের ওই কর্মকর্তাকে পুলিশের শৃঙ্খলাবিধি সংক্রান্ত আইন ভঙ্গের দায়ে সাজা দেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন দেশটির পুলিশের এক মুখপাত্র। তবে তাকে কতদিনের কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে সে বিষয়ে বিস্তারিত কোনও তথ্য জানানো হয়নি। ব্রিটিশ বার্তা সংস্থা রয়টার্স এই খবর জানিয়েছে।
২০ এপ্রিল আদালতে হাজির করা হয় পুলিশ কর্মকর্তা মোয়ে ইন নাইনকেগত বছরের ১২ ডিসেম্বর সন্ধ্যায় পুলিশ সদস্যদের আমন্ত্রণে এক রেস্টুরেন্টে যাওয়ার পর নিখোঁজ হন মিয়ানমারে কর্মরত রয়টার্সের দুই সাংবাদিক ওয়া লোন ও কিয়াও সোয়ে ও। পরে মিয়ানমার কর্তৃপক্ষ জানায় দাফতরিক গোপনীয়তা ভঙ্গের আইনে তাদের আটক করা হয়েছে। জাতিসংঘ, যুক্তরাষ্ট্রসহ আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় তাদের মুক্তি দেওয়ার আহ্বান জানালেও তাতে কর্ণপাত করেনি মিয়ানমার। উল্টো আদালতে তাদের বিরুদ্ধে মামলা চালাচ্ছে মিয়ানমার। মামলায় দোষী প্রমাণ হলে ১৪ বছর পর্যন্ত কারাদণ্ড হতে পারে এই সাংবাদিকদের।

সাংবাদিকদের মামলায় সাক্ষ্য দিতে গত ২০ এপ্রিল ইয়াঙ্গুনের আদালতে হাজির করা হয় পুলিশ কর্মকর্তা ক্যাপ্টেন মোয়ে আন নাইনকে। আদালতে দেওয়া সাক্ষ্যে তিনি বলেন, এক ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা পুলিশকে গত ডিসেম্বরে এক রয়টার্স সাংবাদিককে ‘ফাঁদে ফেলা’র নির্দেশ দেন। ওই ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা তাকে সাংবাদিক ওয়া লোনের সঙ্গে এক রেস্টুরেন্টে দেখা করে তাকে ‘গোপন নথি’ দেওয়ার জন্য বলেন। আদালতকে তিনি জানান তাকেও ডিসেম্বরের ১২ তারিখ থেকে আটক করে রাখা হয়েছে। পরিবারের সঙ্গেও সাক্ষাৎ করতে দেওয়া হয়নি।

গ্রেফতার হওয়ার সময় রয়টার্স সাংবাদিকেরা গত বছর রাখাইনের ইন দীন গ্রামে দশ রোহিঙ্গাকে গণহত্যার বিষয়ে তদন্ত করছিলেন। সাংবাদিকেরা আটক হলেও ওই খবর সামনে নিয়ে আসে রয়টার্স। প্রথমে অস্বীকার করলেও পরে নিজস্ব অনুসন্ধানের কথা জানায় মিয়ানমার সেনাবাহিনী। এপ্রিলে ওই ঘটনায় দায়ী সাত সেনা সদস্যকে দশ বছর করে কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে বলে জানায় মিয়ানমার।

রবিবার মিয়ানমার পুলিশের মুখপাত্র কর্নেল মিয়ো থু সোয়ে রয়টার্সকে বলেন, একটি পুলিশি আদালতে মামলা চলার পর মোয়ে আন নাইনকে কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে। সাজা ঘোষণার পর তাকে কারাগারে পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে।

তবে কখন কোথায় এই আদালতের কার্যক্রম চলেছে সে বিষয়ে বিস্তারিত কিছু জানাননি পুলিশের ওই মুখপাত্র। এসব বিষয়ে জানতে চাওয়া হলে তিনি বলেন, শাস্তি হিসেবে তাকে কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে আর বাকি তথ্য দয়া করে নিজেরা খুঁজে নিন। তাৎক্ষনিকভাবে এই বিষয়ে মন্তব্যের জন্য মিয়ানমার সরকারের মুখপাত্র জাও তাইয়ের কাছেও পৌঁছাতে পারেনি মিয়ানমার।

কক্সবাজার নিউজ সিবিএন’এ প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ।

সর্বশেষ সংবাদ

`রাঙামাটির রূপ দিনদিন হারিয়ে যেতে চলেছে’

বান্দরবানে শ্রেষ্ঠ উপজেলা সহকারী শিক্ষা কর্মকর্তা কালাম হোসেন

বর্তমান সরকারই পাহাড়ের মানুষের ভাগ্যোন্নয়নে কাজ করে যাচ্ছে : বীর বাহাদুর এমপি

কুতুবদিয়ায় শহীদ উদ্দিন ছোটনসহ ৬ জনের বিরুদ্ধে ফের গ্রেপ্তারি পরোয়ানা

লামায় ক্যাম্প প্রত্যাহার ষড়যন্ত্রের প্রতিবাদ ও রাজার সনদ বাতিল দাবীতে মানববন্ধন

লবণ আমদানি হবেনা, মজুদদারের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা -শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু

১ লাখ ৬০ হাজার মেট্রিকটন লবণ উদ্বৃত্ত, তবু আমদানির চক্রান্ত

ঈদগাঁও থেকে দোকানদার অপহরণঃ ৫ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবী!

‘হিংসাবিহীন মানুষ পাওয়া কঠিন’

যখন দশম শ্রেণির ছাত্রী এই সময়ের পিয়া

উখিয়ায় অসহায় মানুষের কল্যাণে কাজ করে যাচ্ছেন এসিল্যান্ড একরামুল ছিদ্দিক

কক্সবাজার শহরে বেড়েই চলছে চুরি ছিনতাই

হোটেল সী-গালের সংবর্ধনায় সিক্ত মেয়র মুজিবুর রহমান

বর্জ্য অপসারণে আরো একটি গাড়ি সংযোজন করলেন মেয়র মুজিব

মদ পানের অভিযোগে প্রধানমন্ত্রীর ফ্লাইটের ক্রু বহিষ্কার

এই জনপদটি ইয়াবা নামক বিষ বৃক্ষের আবক্ষে নিম্মজ্জিত : সকলের সহযোগিতা প্রয়োজন

যুগ্মসচিব হলেন কক্সবাজারের সন্তান শফিউল আজিম : অভিনন্দন

ধর্মীয় শিক্ষা মানুষের মাঝে মূলবোধের সৃষ্টি করে-এমপি কমল

কক্সবাজার সদর মডেল থানা পুলিশের অভিযানে ১৪জন আসামী গ্রেফতার

কক্সবাজার জেলা পুলিশকে আইসিআরসির ২৫০ বডি ব্যাগ হস্তান্তর