পোকখালীতে পানি সেচ বাবদ কানি প্রতি দেড় হাজার টাকা নির্ধারণ

মো. রেজাউল করিম, ঈদগাঁও, কক্সবাজার :

পোকখালী ইউনিয়নের নাইক্ষ্যংদিয়া রাবার সেচ প্রকল্পে অবশেষে কানি প্রতি দেড় হাজার টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে। জেলা প্রশাসকের নির্দেশে কক্সবাজার সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যানকে এ নির্দেশনা দিলে তিনি তা বাস্তবায়নের উদ্যোগ নেন। পানি হাউজের দাম নির্ধারণ করায় এ এলাকার হাজার হাজার বর্গা কৃষক স্কীম ম্যানেজারদের অত্যাচার থেকে রেহাই পাবেন বলে ধারণা করা হচ্ছে। প্রাপ্ত তথ্যে প্রকাশ, পোকখালী ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ড তথা পূর্ব পোকখালীর বর্গা চাষীদের পক্ষে জনৈক কুতুব উদ্দীন চৌধুরী জেলা প্রশাসক বরাবরে পানি হাউজের টাকা নির্ধারণ কল্পে সম্প্রতি লিখিত আবেদন জানান। জেলা প্রশাসক মোঃ কামাল হোসেন সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ নোমান হোসেনকে পানি হাউজের টাকা কানি প্রতি এক হাজার টাকা নির্ধারণ করা যায় কিনা তা দেখার নির্দেশ দেন। এর প্রেক্ষিতে উক্ত নির্বাহী কর্মকর্তা কানি প্রতি দেড় হাজার টাকা নির্ধারণ করতে ইউপি চেয়ারম্যানকে নির্দেশনা দেন। জানতে চাইলে চেয়ারম্যান রফিক আহমদ জানান, জেলা প্রশাসক মহোদয়ের নির্দেশক্রমে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার পরামর্শমতে তিনি কানি প্রতি দেড় হাজার টাকা ধার্য্য করে এলাকায় মাইকিং করেছেন। তার মতে, আগে প্রতি কানিতে পানি সেচ দেয়ার জন্য স্কীম ম্যানেজাররা ২ হাজার টাকা করে নিতেন। যাতে কৃষকরা পোষাতে পারছিলেন না। উক্ত রাবারড্যামের আওতায় ২৭জন স্কীম ম্যানেজার ও প্রায় ৬৮ দোন জমি রয়েছে। সে হিসেবে প্রতি স্কীম ম্যানেজার ২ থেকে আড়াই দোনের বেশি জমিতে পানি সেচ দিয়ে থাকেন। এ ব্যাপারে তিনি ২৮শে এপ্রিল সকালে রাবারড্যাম অফিসে স্কীম ম্যানেজারদের নিয়ে এক বৈঠকে মিলিত হন। সেখানে তিনি তাদেরকে আওতাধীন জমির চূড়ান্ত তালিকা দিতে নির্দেশ দেন। তিনি বলেন, রাবারড্যাম রক্ষণাবেক্ষণ খরচ বাবদ প্রত্যেক স্কীম ম্যানেজারের কাছ থেকে প্রতি কানির জন্য ১২০ টাকা হারে নেয়া হয়। যা গত বছর থেকে কার্যকর হয়েছে। অন্যান্য রাবারড্যামে ও এভাবে নেয়া হয়। রাবারড্যাম হওয়ার আগে বাঁধ বা গোদার আমলে কানি প্রতি আরো বেশি টাকা খরচ হিসাবে নেয়া হত।

কক্সবাজার নিউজ সিবিএন’এ প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ।

সর্বশেষ সংবাদ

অনূর্ধ ১৭ ফুটবলে সহোদরের ২ গোলে মহেশখালী চ্যাম্পিয়ন

টাস্কফোর্সের অভিযানঃ ৪৫০০ ইয়াবাসহ ব্যবসায়ী আটক

টেকনাফে ৭৫৫০টি ইয়াবাসহ দুইজন আটক

এলোমেলো রাজনীতির খোলামেলা আলোচনা

কক্সবাজারে হারিয়ে যাওয়া ব্যাগ ফিরে পেলেন পর্যটক

সুষ্ঠু নির্বাচনে জাতীয় ঐক্য

সঠিক কথা বলায় বিচারপতি সিনহাকে দেশত্যাগে বাধ্য করেছে সরকার : সুপ্রিম কোর্ট বার

সিনেমায় নাম লেখালেন কোহলি

যুক্তরাষ্ট্রের কথা শুনছে না মিয়ানমার

তানজানিয়ায় ফেরিডুবিতে নিহতের সংখ্যা শতাধিক

যশোরের বেনাপোল ঘিবা সীমান্তে পিস্তল,গুলি, ম্যাগাজিন ও গাঁজাসহ আটক-১

তরুণদের এগিয়ে নিয়ে যাওয়াটা অনেক বেশি জরুরি- কক্সবাজারে মোস্তফা জব্বার

চলন্ত অটোরিকশায় বিদ্যুতের তার, দগ্ধ হয়ে নিহত ৪

খরুলিয়ায় বখাটেকে পুলিশে দিলো জনতা, রাম দা উদ্ধার

টস হেরে ব্যাটিংয়ে বাংলাদেশ

সতীদাহ প্রথা: উপমহাদেশের ইতিহাসে কলঙ্কজনক অধ্যায়

খুরুশকুলে সন্ত্রাসী হামলায় কলেজ ছাত্র আহত

নুরুল আলম বহদ্দারের কবর জিয়ারত করলেন লুৎফুর রহমান কাজল

জীবনের প্রথম প্রচেষ্টাতে ঈর্ষনীয় সাফল্য মৌসুমীর

এলআইসিটি বেস্ট অ্যাওয়ার্ড পেলো চবি শিক্ষার্থী নিপুন