পেকুয়ায় সরকারী অফিসে প্রকাশ্যে ঘুষ নিচ্ছেন মহিলা বিষয়ক অফিসের কর্মচারী!

মুহাম্মদ গিয়াস উদ্দিন, পেকুয়া :

কক্সবাজারের পেকুয়া উপজেলায় সরকারী অফিসে বসে সাপ্তাহিক বন্ধের দিন দরিদ্র নারী মাতৃত্বকালীন ভাতাভোগীদের কাছ থেকে প্রকাশ্যে ঘুষ নিচ্ছে মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তার কার্যালয়ের অফিস সহকারী!

ভুক্তভোগীদের অভিযোগের প্রেক্ষিতে আজ শনিবার সকাল ১০টা ১৫ মিনিটের দিকে পেকুয়া উপজেলা পরিষদ ভবনের নিচ তলায় সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, পেকুয়া মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তার অফিস সহকারী বেলায়েত হোসেন ও আরেক অফিস সহায়ক মিলে বারবাকিয়া ইউনিয়নের দরিদ্র নারীদের কাছ থেকে মাতৃত্বকালীন ভাতার ব্যাংক হিসাব খোলার ফরম পুরণের নামে প্রকাশ্যে ঘুষ নিচ্ছেন। এসময় কয়েকজন দরিদ্র নারী ভুক্তভোগীরা বলেন, ব্যাংক হিসাব খোলার ফরম পুরনের জন্য ১৫০ টাকা করে আমাদের কাছ থেকে নেয়া হচ্ছে। অফিস সহকারী বেলায়েতস সকাল ১০টা থেকে দুপুর ২টা পর্যন্ত প্রায় ৫০ জন দরিদ্র নারীদের কাছ থেকে ১৫০ টাকা করে ঘুষ আদায় করেছেন। এদিকে পেকুয়া মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তার কার্যালয়ের সহকারী বেলায়েতের ঘুষ গ্রহণের বিষয়টি তাৎক্ষণিক এ প্রতিবেদক মুঠোফোনে কক্সবাজার জেলা প্রশাসক কামাল হোসেনকে অবহিত করেন। এরপরে ডিসির নির্দেশে ইউএনও মাহবুব উল আলম দ্রুত মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তার কার্যালয়ে এসে অফিস সহকারী বেলায়েত হোসেনকে দরিদ্র নারীদের কাছ থেকে ঘুষের টাকা না নেওয়ার জন্য বলেন। তবে দেখা গেছে, ইউএনও মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তার কার্যালয় ত্যাগ করার সাথে সাথেই বেলায়েত ফের ঘুষ নেওয়া শুরু করেন।

ঘুষ গ্রহনের বিষয়টি জানতে চাইলে পেকুয়া মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তার কার্যালয়ের অফিস সহকারী বেলায়েত হোসেন বলেন, ‘আমরা একাউন্ট করার জন্য টাকা নিচ্ছি। এত টাকা কেন নিচ্ছেন জানতে চাইলে তিনি কোন সদুত্তর দিতে পারেনি।

পেকুয়া উপজেলা মহিলা বিষয়ক কার্যালয়ের অতিরিক্ত দায়িত্বে থাকা মোছাম্মৎ হাবিবা জাহান এ প্রসঙ্গে বলেন ‘ ইউএনও স্যার আমাকে বিষয়টি অবহিত করেছেন। তিনি শনিবার সাপ্তাহিক বন্ধের দিন কার্যালয়ে আসেননি। তার কার্যালয়ের অফিস সহকারী বেলায়েত কর্তৃক দরিদ্র নারীদের কাছ থেকে ঘুষ গ্রহণের বিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন।

কক্সবাজার জেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা সুব্রত বিশ্বাসকে এ এ বিষয়ে দৃষ্টি আকর্ষন করা হলে তিনি বলেন ‘সরকারী অফিসে বসে ঘুষ গ্রহণের বিষয়ে পেকুয়া উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তার কার্যালয়ের অফিস সহকারীর বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। ঘুষ গ্রহণের সাথে জড়িত কর্মচারীকে কোনভাবেই ছাড় দেওয়া হবেনা বলে তিনি জানান।’

পেকুয়ায় সরকারী অফিসে প্রকাশ্যে ঘুষ নিচ্ছেন মহিলা বিষয়ক অফিসের কর্মচারী!মুহাম্মদ গিয়াস উদ্দিন, পেকুয়া :কক্সবাজারের পেকুয়া উপজেলায় সরকারী অফিসে বসে সাপ্তাহিক বন্ধের দিন দরিদ্র নারী মাতৃত্বকালীন ভাতাভোগীদের কাছ থেকে প্রকাশ্যে ঘুষ নিচ্ছে মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তার কার্যালয়ের অফিস সহকারী!ভুক্তভোগীদের অভিযোগের প্রেক্ষিতে আজ শনিবার সকাল ১০টা ১৫ মিনিটের দিকে পেকুয়া উপজেলা পরিষদ ভবনের নিচ তলায় সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, পেকুয়া মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তার অফিস সহকারী বেলায়েত হোসেন ও আরেক অফিস সহায়ক মিলে বারবাকিয়া ইউনিয়নের দরিদ্র নারীদের কাছ থেকে মাতৃত্বকালীন ভাতার ব্যাংক হিসাব খোলার ফরম পুরণের নামে প্রকাশ্যে ঘুষ নিচ্ছেন। এসময় কয়েকজন দরিদ্র নারী ভুক্তভোগীরা বলেন, ব্যাংক হিসাব খোলার ফরম পুরনের জন্য ১৫০ টাকা করে আমাদের কাছ থেকে নেয়া হচ্ছে। অফিস সহকারী বেলায়েতস সকাল ১০টা থেকে দুপুর ২টা পর্যন্ত প্রায় ৫০ জন দরিদ্র নারীদের কাছ থেকে ১৫০ টাকা করে ঘুষ আদায় করেছেন। এদিকে পেকুয়া মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তার কার্যালয়ের সহকারী বেলায়েতের ঘুষ গ্রহণের বিষয়টি তাৎক্ষণিক এ প্রতিবেদক মুঠোফোনে কক্সবাজার জেলা প্রশাসক কামাল হোসেনকে অবহিত করেন। এরপরে ডিসির নির্দেশে ইউএনও মাহবুব উল আলম দ্রুত মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তার কার্যালয়ে এসে অফিস সহকারী বেলায়েত হোসেনকে দরিদ্র নারীদের কাছ থেকে ঘুষের টাকা না নেওয়ার জন্য বলেন। তবে দেখা গেছে, ইউএনও মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তার কার্যালয় ত্যাগ করার সাথে সাথেই বেলায়েত ফের ঘুষ নেওয়া শুরু করেন।ঘুষ গ্রহনের বিষয়টি জানতে চাইলে পেকুয়া মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তার কার্যালয়ের অফিস সহকারী বেলায়েত হোসেন বলেন, ‘আমরা একাউন্ট করার জন্য টাকা নিচ্ছি। এত টাকা কেন নিচ্ছেন জানতে চাইলে তিনি কোন সদুত্তর দিতে পারেনি।পেকুয়া উপজেলা মহিলা বিষয়ক কার্যালয়ের অতিরিক্ত দায়িত্বে থাকা মোছাম্মৎ হাবিবা জাহান এ প্রসঙ্গে বলেন ‘ ইউএনও স্যার আমাকে বিষয়টি অবহিত করেছেন। তিনি শনিবার সাপ্তাহিক বন্ধের দিন কার্যালয়ে আসেননি। তার কার্যালয়ের অফিস সহকারী বেলায়েত কর্তৃক দরিদ্র নারীদের কাছ থেকে ঘুষ গ্রহণের বিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন।কক্সবাজার জেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা সুব্রত বিশ্বাসকে এ এ বিষয়ে দৃষ্টি আকর্ষন করা হলে তিনি বলেন ‘সরকারী অফিসে বসে ঘুষ গ্রহণের বিষয়ে পেকুয়া উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তার কার্যালয়ের অফিস সহকারীর বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। ঘুষ গ্রহণের সাথে জড়িত কর্মচারীকে কোনভাবেই ছাড় দেওয়া হবেনা বলে তিনি জানান।’

Posted by Mohammed Gias Uddin on Saturday, April 28, 2018

কক্সবাজার নিউজ সিবিএন’এ প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ।

সর্বশেষ সংবাদ

একান্ত সাক্ষাৎকারে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ইকবাল হোসাইন অপরাধীর সাথে আপোষ নয়

প্রসঙ্গ : প্রাথমিক বিদ্যালয়ে চলতি দায়িত্ব

বৃহত্তর ঈদগাঁওয়ের প্রায় ১শ কি.মি সড়ক চলাচলের অনুপযোগী, সেতুমন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ

টেকপাড়ায় মাঠে গড়াল বৃহত্তর গোল্ডকাপ ফুটবল টূর্ণামেন্টের ৫ম আসর

মাতারবাড়ী কয়লাবিদ্যুৎ প্রকল্প পরিদর্শনে গেলেন বিভাগীয় কমিশনার

নতুন বাহারছড়ার সেলিমের অকাল মৃত্যু: মেয়র মুজিবসহ পৌর পরিষদের শোক

জেলা আ’ লীগের জরুরী সভা

মাদক কারবারীদের বাসাবাড়ীতে সাঁড়াশি অভিযান, ইয়াবাসহ আটক ৩

সৈকতে অনুষ্ঠিত হলো জাতীয় উন্নয়ন মেলা কনসার্ট

পেকুয়ায় অটোরিকশা চালককে তুলে নিয়ে মারধর

পুলিশ সুপারের সাথে সৌজন্য সাক্ষাৎ

ফেডারেশন অব কক্সবাজার ট্যুরিজম সার্ভিসেস এর সভাপতি সংবর্ধিত

কাউন্সিলর হেলাল কবিরকে বিশাল সংবর্ধনা

কলাতলীতে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ, দুইজনকে জরিমানা

আ. লীগের কেন্দ্রীয় টিমের জনসভায় সফল করতে জেলা শ্রমিকলীগ প্রস্তুত

মানবপাচারকারী রুস্তম আলী গ্রেফতার

দেশে গণতান্ত্রিক অধিকার নেই, পুলিশী রাষ্ট্রে পরিণত হয়েছে : শাহজাহান চৌধুরী

১২দিনেও খোঁজ মেলেনি মহেশখালীর ১৭ মাঝিমাল্লার

শেখ হাসিনার উন্নয়নের লিফলেট বিতরণ করলেন ড. আনসারুল করিম

কক্সবাজার সদর মডেল থানা পুলিশের অভিযানে গ্রেফতার-১০