এম.জিয়াবুল হক, চকরিয়া :

চকরিয়া উপজেলার বদরখালী ইউনিয়নে চর্তুথ শ্রেণীতে পড়–য়া ছাত্রীকে ধর্ষণের চেষ্টার অভিযোগে স্থানীয় জনতা আলী আহমদ প্রকাশ কালু (৪০) নামের এক টমটম চালককে আটক করে পুলিশে দিয়েছে। গতকাল শুক্রবার গতকাল দুপুর ১২ টার দিকে আক্রান্ত ছাত্রীর পরিবারের সদস্য ও স্থানীয় জনতা অভিযুক্ত টমটম চালককে আটক করে। পরে বদরখালী পুলিশ ফাঁড়ীর আইসি অরুন কুমার চাকমাকে খবর দিলে তিনি ঘটনাস্থলে পৌঁছে তাকে (টমটম চালক) আটক করে চকরিয়া থানায় প্রেরণ করেছে।

আক্রান্ত শিক্ষার্থীর পরিবার সদস্যরা জানান, উপজেলার ঢেমুশিয়া ইউনিয়নের বাজার পাড়া এলাকার আব্দুল মন্নান দীর্ঘদিন ধরে বদরখালী ইউনিয়নের ৪নম্বর ওয়ার্ডের খালকাঁচা পাড়াস্থ শাশুর বাড়ীতে পরিবার নিয়ে বসবাস করে আসছে। তার শিশু কন্যা বদরখালী আজম নগর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে চতুর্থ শ্রেনীতে লেখাপড়া করছে।

পরিবার সদস্যদের অভিযোগ, গত ১৩ এপ্রিল সন্ধ্যা ছয়টার দিকে শিশু শিক্ষার্থী টমটম গাড়ি যোগে বাড়ির অদুরে অপর একটি গ্রামে প্রাইভেট পড়তে যাচ্ছিলেন। ওইসময় গাড়িটি লম্বাখালী পাড়া নামকস্থানে গেলে টমটমে ওই ছাত্রী ছাড়া অন্য কোন যাত্রী ছিলনা। সেই সুযোগে অভিযুক্ত টমটম চালক কৌশলে গাড়িতে থাকা শিশু ছাত্রীকে পাশের বিলে নিয়ে গিয়ে ধর্ষণের চেষ্টা করে। ওই সময় ছাত্রীর শোর চিৎকারে সড়ক দিয়ে অপরদিক থেকে আসা অপর একটি টমটম গাড়ির যাত্রীরা এগিয়ে যেতে দেখে অভিযুক্ত টমটম চালক বিলে ছাত্রীকে পেলে গাড়ি নিয়ে পালিয়ে যায়।

ছাত্রীর পরিবার সদস্যরা জানান, ঘটনার পর ওইসময় আইনী প্রতিকারের চেষ্ঠা করলেও ইজ্জতের ভয় দেখিয়ে বদরখালী ইউনিয়নের স্থানীয় মেম্বার নুরুনন্নবী প্রকাশ মনুসহ এলাকার গণ্যমান্য লোকজন বিষয়টি থানা পুলিশকে অবহিত না করে তাঁরা বিচার করবে বলে পরিবারকে আশ^াস দেন।

কিন্তু ঘটনার পর বারবার যোগাযোগ করা হলেও স্থানীয় সমাজপতিরা ঘটনার বিষয়ে কোন ধরণের বিচার করেনি। ফলে অনেকটা বাধ্য হয়ে গতকাল ২৭ এপ্রিল দুপুরে ওই ছাত্রীর পরিবারের সদস্য ও স্থানীয় লোকজন অভিযুক্ত টমটম চালককে আটক করে পুলিশের হাতে তুলে দিয়েছে।

চকরিয়া থানার ওসি (তদন্ত) ইয়াছির আরফাত বলেন, ধর্ষণের ঘটনা দেখিয়ে ফরিদা ইয়াছমিন নামে এক মহিলা আটক টমটম চালকের বিরুদ্ধে একটি এজাহার দায়ের করেছেন। বিষয়টি তদন্ত করে এব্যাপারে আইনগত নেওয়া হচ্ছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •