সাইফুল ইসলাম:

কক্সবাজার সদর উপজেলার ভারুয়াখালীতে লবণ উৎপাদন উপযোগী ও চিংড়ী সমৃদ্ধ  জমি বাদ দিয়ে অনাবাদী সাড়ে ৫ হাজার একর জমিতে প্রস্তাবিত গুচ্ছগ্রাম প্রকল্প বাস্তবায়নের দাবীতে মানব বন্ধন ও প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

২৬ এপ্রিল (বৃহস্পতিবার) বেলা সাড়ে ১১ টার দিকে কক্সবাজার জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের সামনে লবণ চাষী মো. ইসলামের এর সভাপতিত্বে ভারুয়াখালী ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাবেক আহবায়ক আমানুল্লাহ আমানের সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন, বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ কক্সবাজার জেলা শাখার সাংগঠনিক সম্পাদক নাজনীন সরওয়ার কাবেরী। তিনি বলেন, যেকোন মূল্যে আমরা এই প্রকল্প আবাদী জমি থেকে অপসারন চাই। কক্সবাজার জেলার একমাত্র কর্মসংস্থান লবন ও চিংড়ি প্রকল্প নস্ট করে গুচ্ছ গ্রাম অযৌক্তিক। লবণ চাষিদের ও দেশের স্বার্থে আমরা দেশ রক্ষায় সদা জাগ্রত আছি। অতি:সত্বর ভূমি মন্ত্রনালয়, তদন্তধীন উক্ত গুচ্ছগ্রাম প্রকল্প অনাবাদী অকৃষি ভূমিতে স্থানান্তরের আহবান জানাচ্ছি। গৃহহারা মানুষকে গৃহ দিতে গিয়ে সিংহভাগ মানুষ নিঃস্ব হবে, তা হতে দেবো না। লবণ উৎপাদনের স্থান বাদ দিয়ে অনাবাদী খাস জমিতে কার্যকর না হওয়া পর্যন্ত আন্দোলন অব্যাহত থাকবে। পাশে থাকুন দুঃখি মানুষের পাশে। ওই লবণের মাঠে ৬২ টি পরিবারের অন্ন সংস্থান হয়। ভারুয়াখালীতে অসংখ্যা অনাবদী জমি পড়ে রয়েছে ওই স্থানে প্রস্তাবিত গুচ্ছগ্রাম করা হউক। এসময় বক্তব্য রাখেন, সাবেক ছাত্রলীগের সভাপতি ও আওয়ামীলীগ নেতা কামাল উদ্দীন রহমান পেয়ারু, লবণ মাঠের মালিক মাষ্টার আবুল হোসেন, লবণ চাষী দিল মোহাম্মদ প্রমুখ। এসময় ভারুয়াখালীর ২ শতাধিক নারি ও পুরুষ উপস্থিত ছিলেন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •