সিবিএন ডেস্কঃ

সড়কপথে ঢাকা থেকে ভারতের শিলিগুড়ি হয়ে নেপালের কাঠমান্ডুর উদ্দেশে রওনা হয়েছে বাংলাদেশের দুটি বাস। সোমবার সকালে পরীক্ষামূলকভাবে ঢাকার কমলাপুরে বিআরটিসির টার্মিনাল থেকে শ্যামলী পরিবহনের দুটি বাস রওনা হয়।

সড়কপথে ঢাকা থেকে ভারতের শিলিগুড়ি হয়ে নেপালের কাঠমান্ডুর উদ্দেশে রওনা হয়েছে বাংলাদেশের দুটি বাস। পরীক্ষামূলকভাবে এই যাত্রার মধ্য দিয়ে এই সড়কপথে নেপালে যোগাযোগের সম্ভাব্যতা যাচাই হবে।

আজ সোমবার সকাল সোয়া নয়টার দিকে ঢাকার কমলাপুরে বিআরটিসির টার্মিনাল থেকে শ্যামলী পরিবহনের দুটি বাস রওনা হয়েছে। অবশ্য এই বাসের তত্ত্বাবধানে থাকছে বিআরটিসি।

পরীক্ষামূলক এই যাত্রায় নেতৃত্বে আছেন বিআরটিসির চেয়ারম্যান ফরিদ আহমেদ ভুঁইয়া। দুটি বাসে বাংলাদেশ, ভারত, নেপাল ও এশীয় উন্নয়ন ব্যাংকের (এডিবি) ৪৪ জন প্রতিনিধি রয়েছেন।বাসটি ২৬ এপ্রিল কাঠমান্ডুতে পৌঁছাবে।

পরীক্ষামূলক এ যাত্রায় নেতৃত্বে আছেন বিআরটিসির চেয়ারম্যান ফরিদ আহমেদ ভুঁইয়া। দুটি বাসে বাংলাদেশ, ভারত, নেপাল ও এশীয় উন্নয়ন ব্যাংকের (এডিবি) ৪৪ জন প্রতিনিধি ছিলেন।

পরীক্ষামূলক এ যাত্রায় নেতৃত্বে আছেন বিআরটিসির চেয়ারম্যান ফরিদ আহমেদ ভুঁইয়া। দুটি বাসে বাংলাদেশ, ভারত, নেপাল ও এশীয় উন্নয়ন ব্যাংকের (এডিবি) ৪৪ জন প্রতিনিধি ছিলেন।

ঢাকা থেকে কাঠমান্ডুর দূরত্ব ১ হাজার ১০০ কিলোমিটার। এই দূরত্ব অতিক্রম করতে ৩০ ঘণ্টার মতো সময় লাগবে। তবে পরীক্ষামূলকভাবে যাত্রা করা বাসটি সড়কের অবস্থা ও অন্যান্য বিষয় বিবেচনা করবে। ঢাকা থেকে রওনা দেওয়ার পর আজ যাত্রীরা রংপুরে যাত্রাবিরতি করবেন। এরপর শিলিগুড়ি হয়ে নেপালের কাঁকরভিটা সীমান্তে মঙ্গলবার অবস্থান করে পরদিন রওনা দিয়ে ২৬ এপ্রিল সকালে কাঠমান্ডু পৌঁছাবে।

বাংলাদেশ, ভুটান, ভারত ও নেপালের (বিবিআইএন) মধ্যে সড়কপথে যাত্রী পরিবহনে ২০১৫ সালে এই চার দেশ একটি চুক্তি করে। পরে ভুটান চুক্তি থেকে সরে দাঁড়ায়। এরপর ভুটানকে বাদ দিয়ে বাংলাদেশ, ভারত ও নেপালের মধ্যে বাস চলাচলের উদ্যোগ নেওয়া হয়।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •