শাহিদ মোস্তফা শাহিদ, কক্সবাজার সদর:

কক্সবাজার সদরের উপকূলীয় ইউনিয়ন পোকখালী পশ্চিম গোমাতলী লবণ মাঠ থেকে ডাকাতি হওয়া সেচ মেশিনসহ অর্ধ লক্ষাধিক টাকার মালামাল উদ্ধার হয়েছে রামু থেকে। ২৩ এপ্রিল সকালে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ক্ষতিগ্রস্থ মালিকসহ এলাকার গণ্যমান্যদের উপস্থিতিতে এ মালামালগুলো উদ্ধার করা হয়েছে। তাদের উপস্থিতি টের পেয়ে পালিয়েছে সংঘবদ্ধ ডাকাত দলের ৩ সদস্য। বর্তমানে মালামালগুলো স্থানীয় মেম্বারের জিম্মায় রয়েছে।

জানা গেছে, গোমাতলী রাজঘাট এলাকায় অবস্থিত শহর আলীর চিংড়িঘোনার লবণ মাঠ থেকে বিগত ১৫ দিন পূূর্বে স্থানীয় ব্যবসায়ী জামাল উদ্দীনের ৩টি সেচ পাম্প তার নিয়োজিত শ্রমিকদের মুখে অস্ত্র ঠেকিয়ে নিয়ে যায়। দীর্ঘদিন খোঁজাখুজির পরও না পাওয়ায় বিষয়টি স্থানীয় এমইউপিকে অবগত করে রেখেছিলেন। ডাকাতির ১৫ দিন পর মালামালগুলো স্থানীয় এক সিএনজি চালকের গাড়ী নিয়ে রামু চৌমুহনী একটি ওয়ার্কশফে বিক্রি করে দেয়। খবর পেয়ে মালামালের মালিক জামাল উদ্দীন স্থানীয়দের সহযোগিতায় উদ্ধার করে এমইউপি আলা উদ্দীনের হেফাজতে রাখে।

ক্ষতিগ্রস্ত জামাল উদ্দীন জানান, পশ্চিম গোমাতলীর নাছির আহমদের পুত্র রায়হান একই এলাকার আবদু ছালামের পুত্র সোহেল, মোহাম্মদ হাসিমের পুত্র এহেছান এতে প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে জড়িত রয়েছে। এদিন তারা বিক্রির উদ্দেশ্যে মালামালগুলো রামু নিয়ে যায়। তাদের উপস্থিতি টের পেয়ে দ্রুত স্থান ত্যাগ করেন। তিনি এ ব্যাপারে মামলা দায়েরের প্রস্তুতি নিচ্ছেন। তিনি আরো জানান, সেচ পাম্পগুলো ডাকাতি করায় তার লবন উৎপাদন বন্ধ হয়ে গেছে। এতে তার বিপুল পরিমাণ টাকা ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে।

স্থানীয় এমইউপি আলা উদ্দীন জানান, মালামালগুলোর তার হেফাজতে রয়েছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •