ঈদগাঁওতে একটি ব্রীজের অভাবে দূর্ভোগে পড়েছে ভাদীতলা ও শিয়াপাড়াবাসী

দীর্ঘ ১৫ বছর ধরে আলোরমুখ দেখেনি……..

এম আবুহেনা সাগর,ঈদগাঁও ে:

কক্সবাজার সদর উপজেলার ঈদগাঁও ইউনিয়নের পালপাড়া হয়ে ভাদীতলা, শিয়াপাড়াসহ ভোমরিয়াঘোনায় যাতায়াতের মাধ্যম গরুর হালদা সড়কে দীর্ঘ পনের বছর ধরে একটি ব্রীজের অপেক্ষায় প্রহর গুনছে এলাকাবাসী। সে দাবী এখনো অপূূর্ণ থেকে গেছে। কাঠের সাঁকো দিয়ে চরম ঝুকিঁ নিয়ে পারাপার করছে বৃহত্তর এলাকার হাজার হাজার নারী পুরুষসহ বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্টানের শিক্ষার্থীরা। উপড়ে যাচ্ছে সড়কের মাটি। কাঠগুলো লঙ্কর ঝঙ্কর হয়ে যাচ্ছে। নিচের খুটি গুলো ভেঙ্গে যাওয়ার অবস্থা। এতে করে দেখার কেউ না থাকায় বিপাকে পড়েছে এলাকাবাসী। এটি দিয়ে অন্তত ৩/৪ হাজার মানুষের চলাচলের সড়কটি মরন ফাঁদে পরিনত হয়ে পড়েছে। ঝুঁকিপূর্ণ কাঠের সাঁকো হয়ে স্কুলে, মাদরাসাগামী শিক্ষার্থীসহ সাধারন লোকজনদের পথচলা প্রতিনিয়ত। স্থানীয় এলাকাবাসীর চলার একমাত্র ভরসা গরুর হালদা সড়কটির মাঝপথে বেহাল দশার সৃষ্টি হয়েছে। বিগত দুয়েক বছর আগে উজান থেকে নেমে আসা বন্যার পানিতে সড়কটি ভেঙ্গে গেছে। চলাফেরা করতে ব্যাপক কষ্ট পোহাতে হচ্ছে এলাকাবাসীকে। স্থানীয়দের ক্ষুদ্র প্রচেষ্টায় একটি কাঠের সেতু নির্মান করলেও তা দিন দিন ঝুঁকির দিকে ধাবিত হচ্ছে । অধিকংশ খুঁটি নষ্ট হয়েছে। যেকোন মুহুর্তে কাঠের সাঁকোটি ভেঙ্গে যেতে পারে। প্রতি বর্ষা মৌসুমে অসহায় লোকজন চরম আতংকে থাকে। বর্তমানেও স্বাভাবিক ভাবে পারাপার অনেকটা ঝুঁকি হয়ে পড়ছে স্থানীয়দের মতে। তবে রিকসা চালক আবু তাহের জানান, কাঠের সেতুটি ব্রীজ আকারে নির্মাণ না হওয়ার চলাচলে অনেকটি অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। এদিকে শিয়া পাড়ার দিনমজুর মনজুর আলম হতাশ কন্ঠে আজকের ককসবাজারকে জানান, আমরা দীর্ঘ ১৫ বছর ধরে এ ঝুকিঁপূর্ণ কাঠের সাঁকো দিয়ে যাতাযাত করে আসছি। বিগত দুই নির্বাচিত জনপ্রতিনিধি ও বর্তমান জনপ্রতিনিধির শাসনামলেও এই কাঠের সাঁকোটি ব্রীজে রুপান্তরিত হচ্ছে না। কবে হবে সে আশায় বুক বেধে বসে আছি। পালপাড়ার সুপন জানান, দৈনিক হাজার হাজার মানুষজন চলাচল এ ভাঙ্গা সাঁকো পার হয়ে। দ্রুত ব্রীজ নির্মান এখন সময়ের গনদাবীতে পরিনত হয়ে পড়েছে। শিক্ষার্থী এবং রোগীদের যাতায়াতে নিদারুন কষ্ট পাচ্ছে। এটির প্রতি সংশ্লিষ্ট কতৃপক্ষের সুনজর দেওয়া একান্ত জরুরী। তবে এলাকাবাসীর দাবী, অতি সত্ত্বর ভেঙে যাওয়া সড়কে একটি টেকসই ব্রীজ স্থাপন করে জন ও যান চলাচলে সূর্বন সুযোগ সৃষ্টি করা হোক। অন্যতায় আসন্ন বর্ষামৌসুমে এলাকাবাসীকে মরন দশায় ভোগতে হবে।

কক্সবাজার নিউজ সিবিএন’এ প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ।

সর্বশেষ সংবাদ

শহীদ জাফর মাল্টিডিসিপ্লিনারী একাডেমিক ভবনের উদ্বোধন

মালয়েশিয়ায় বাংলাদেশি কর্মীদের ন্যায় বিচার কোথায়?

আইনগত ভিত্তি পেলেই ইভিএম ব্যবহার : সিইসি

খাগড়াছড়িতে ব্রিজ ভেঙে ট্রাক নদীতে, নিখোঁজ ১

আজ ঈদগাঁওতে ওবায়দুল কাদের’র জনসভা

সাগরে বৈরি আবহাওয়ার কবলে পড়ে ফিশিং ট্রলার ডুবি

‘ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন মুক্তগণমাধ্যমের জন্য বড় বাধা হয়ে দাঁড়াবে’

ফাইভ-জি মোবাইল নেটওয়ার্কে বিকিরণের ঝুঁকি বেশি?

রাখাইনে এখনো থামেনি সেনা ও মগের বর্বরতা

জাতীয় ঐক্য নিয়ে অস্বস্তিতে আ’লীগ

প্রধানমন্ত্রীর জাতিসঙ্ঘ সফরে প্রাধান্য পাচ্ছে রোহিঙ্গা ইস্যু

সাকা চৌধুরীর কবরের ‘শহীদ’ লেখা নামফলক অপসারণ করলো ছাত্রলীগ

তিন মাসের জন্য প্রত্যাহার আনোয়ার চৌধুরী

মনোনয়ন দৌড়ে শতাধিক ব্যবসায়ী

ফখরুল-মোশাররফ-মওদুদ যাচ্ছেন ঐক্য প্রক্রিয়ার সমাবেশে

এবার ভারতের কাছেও শোচনীয় হার বাংলাদেশের

রোহিঙ্গা শিশুদের শিক্ষায় ২০০ কোটি টাকা অনুদান বিশ্বব্যাংকের

বিরোধীরা সব জায়গায় সমাবেশ করতে পারবে

চাকরি না পেয়ে সুইসাইড নোট লিখে খুবি ছাত্রের আত্মহত্যা

নবাগত এসপি মাসুদ হোসেনের চকরিয়া থানা পরিদর্শন