শাহিদ মোস্তফা শাহিদ,কক্সবাজার সদর :

কক্সবাজার সদর উপজেলার ঈদগাঁও থেকে বস্তাবন্দী অবস্থায় উদ্ধার অজ্ঞাত যুবকের লাশের পরিচয় মিলেছে। তাঁর নাম আব্দুল খালেক (২৮)। তিনি সদরের ঝিলংজা ইউনিয়নের খরুলিয়া ঘাটপাড়া এলাকার মৃত আবু ছৈয়দের ছেলে।শনিবার বেলা ১১ টায় ‘আসাদ বিন ইসলাম’ নামে একটি ফেসবুক আইডি থেকে ওই যুবকের পরিচয় সনাক্ত করে স্ট্যাটাস দেওয়া হয়। ওই স্ট্যাটাসের সূত্র ধরে সিবিএন পুলিশ ও নিহত যুবকের ঘনিষ্টজনদের সাথে কথা বলে তাঁর পরিচয় সম্পর্কে নিশ্চিত হয়।
আসাদ বিন ইসলাম নামের ওই ফেসবুক স্ট্যাটাসে লেখা হয়, ‘ঝিলংজা ইউনিয়নের খরুলিয়া ঘাটপাড়া থেকে এক সপ্তাহ আগে নিখোঁজ হন আব্দুল খালেক। পরে ১৯ এপ্রিল বিকেলে ঈদগাঁও বাস স্টেশনের পাশের একটি ডোবা থেকে বস্তাবন্দী অবস্থায় তাঁর লাশ উদ্ধার করা হয়। তিনি মর্মান্তিক এই ঘটনার তীব্র নিন্দা এবং জড়িতদের গ্রেপ্তার দাবী জানান’।
আরেক ফেসবকু আইডি থেকে লেখা হয়, পেশায় রাজমিস্ত্রি আব্দুল খালেত গত ৬ মাস আগে বিয়ে করেন। তিনি আশঙ্কা করছেন, বিয়েটাই কি তাঁর জন্য কাল হলো?কক্সবাজার সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ফরিদ উদ্দীন খন্দকার সিবিএনকে জানান ১৯ এপ্রিল বিকেলে বস্তা মোড়ানো অবস্থায় অজ্ঞাত এক যুবকের লাশ উদ্ধার করা হয়। পরে সদর হাসপাতালে ময়না তদন্ত করা হয়। লাশটি এখনো হাসপাতালের মর্গে রয়েছে।তিনি আরও বলেন, আজ বেলা ১১ টার দিকে এক ব্যক্তি ফোন করে ওই অজ্ঞাত যুবকের লাশের পরিচয় সনাক্ত করে তথ্য দেন। তাঁর নাম আব্দুল খালেক। তাঁর বাড়ি খরুরিয়া ঘাটপাড়া এলাকায়। আরও বিস্তারিত খবর নেয়ার জন্য পুলিশ নিহতের বাড়িতে যাচ্ছে।ওসি বলেন, ওই ঘটনায় গত শুক্রবার পুলিশ বাদী হয়ে অজ্ঞাত আসামী দেখিয়ে অপমৃত্য মামলা দায়ের করে। এখন যেহেতু লাশের পরিচয় মিলেছে, তাই এটি স্বাভাবিক মামলা হিসেবে রুজু হবে।এদিকে আব্দুল খালেক খুনের প্রকৃত ঘটনা উৎঘাটনে সিবিএনও অনুসন্ধান করছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •