৩০ ঘন্টা পেরিয়ে গেলেও ঈদগাঁওতে উদ্ধার হওয়া লাশের পরিচয় মেলেনি

শাহিদ মোস্তফা শাহিদ, কক্সবাজার সদর :

কক্সবাজার সদরের ঈদগাঁও ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ডে আরকান সড়কের পশ্চিমে ব্রীক ফিল্ডের দঃপাশে নাসিতে ভাসমান অবস্থায় বস্তাবন্দী এক ব্যক্তির লাশ উদ্ধার হওয়ার ৩০ ঘন্টা পেরিয়ে গেলেও পরিচয় পাওয়া যায়নি। ময়না তদন্ত শেষে বেওয়ারিশ লাশ হিসাবে আঞ্জুমন আল ইত্তেহাদের সহযোগিতায় কক্সবাজারস্থ বড় কবরস্থানে দাফন করা হয়েছে বলে লাশ উদ্ধারকারী কর্মকর্তা এসআই সাজ উদ্দীন জানিয়েছেন। উল্লেখ্য, ১৯ এপ্রিল সন্ধ্যা ৬ টার দিকে এ লাশটি উদ্ধার করা হয়। সরেজমিন প্রত্যক্ষদর্শীদের সাথে কথা বলে জানা যায়,বিকাল ৪ টার দিকে স্থানীয় কয়েক সবজি চাষী ক্ষেতে কাজ করে নাসিতে হাত পরিষ্কার করতে যায়।এ সময় একটি পাটের বস্তা দেখতে পেয়ে চিৎকার দেয়। তাৎক্ষনিক পার্শ্ববর্তী লোকজন এগিয়ে এসে বস্তাটি চিদ্র করে দেখতে পান অজ্ঞাত এক ব্যক্তির লাশ।পরে পুলিশকে খবর দিলে ঈদগাঁও পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ মিনহাজ মাহমুদ ভুঁইয়ার নির্দেশে এসআই শাহাজ উদ্দীন,এএসআই মহিউদ্দীন ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশের সুরহতাল রিপোর্ট তৈরী করে মর্গে পাঠিয়ে দেয়। এদিন ময়না তদন্ত ও প্রশাসনিক প্রক্রিয়া শেষে লাশটি বেওয়ারিশ হিসাবে আঞ্জুমন আল ইত্তেহাদকে দেওয়া হয়। এস আই শাহাজ আরো জানান, উদ্ধারের সময় লাশের পড়নে কোন কাপড় চোপড় ও আঘাতের চিহ্ন দেখা যায়নি। প্রাথমিক ভাবে তাকে শ^াসরুদ্ধ করে হত্যা পরবর্তী বস্তাবন্দী করে নাসিতে পেলে দিয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। তার বয়স আনুমানিক ২২/২৩ হতে পারে। মুখ মন্ডল বিকৃত হওয়ায় পরিচয় শনাক্ত করা যায়নি।