সংবাদদাতা
কক্সবাজার সদরের খুরুশকুল বঙ্গবন্ধুবাজারে সন্ত্রাসী কায়দায় দীর্ঘদিনের মালিকানাধীন জমি ও দোকানপাট দখল করতে ব্যাপক ভাঙচুর চালিয়েছে চিহ্নিত দখলবাজরা। এ সময় ঘেরাবেড়া ও অন্তত ৭টি দোকানের মালামাল লুট করা হয়েছে। দুর্বৃত্তদের তান্ডবে পুরো এলাকায় ত্রাসের সৃষ্টি হয়। বৃহস্পতিবার (১৯ এপ্রিল) দুপুরে ঘটনাটি ঘটে।
ভুক্তভোগী দোকানদার হুমায়ুন কবির, নবী হোসেন আজম উদ্দিন, গিয়াস উদ্দিন জানায়, পিএমখালী এলাকার আব্বাস উদ্দিন ও জাফরের নেতৃত্বে ১০/১৫ জন দখলবাজ অতর্কিত তাদের দোকানপাট ভাঙচুর চালায়। বাঁধা দিতে গেলে তাদের অস্ত্র উচিয়ে ভীতি প্রদর্শন করে। অবলিলায় ব্যাপক নারকীয় তাণ্ডবলিলা চালায়। দখলবাজদের কারণে এলাকাবাসী নির্বিকার ভূমিকা পালন করে। তারা ক্ষমতাসীন দলের পরিচয়ে তান্ডলিলা চালালেও ভয়ে কেউ প্রতিবাদ করতে সাহস করেনি।
ক্ষতিগ্রস্তদের দাবী, তাদের দীর্ঘ অর্ধশত বছরের জমি আত্নসাৎ করতে দখলবাজরা ভুয়া কাগজপত্র তৈরী করে। এর পর বিভিন্ন সময় জায়গা ছেড়ে দিতে হুমকি প্রদান করে। তাতে কাজ না হওয়ায় পরিকল্পিত ভাঙচুর চালায়। অথচ এই জমিতে আদালতে নিষেধাজ্ঞা রয়েছে। ন্যাক্কারজনক ঘটনার খবরের পরও স্থানীয় কোন জনপ্রতিনিধি, রাজনৈতিক নেতা সহায়তার হাত বাড়ায়নি বলে অভিযোগ ক্ষতিগ্রস্তদের।
ক্ষতিগ্রস্ত আলহাজ্ব মাস্টার নুরুল কুদ্দুস বলেন, তাদের দীর্ঘদিনের দখলীয় জমি আত্নসাৎ করতে পাঁয়তারা করে আসছে মুহাম্মদ জমির, আনোয়ার ইসলাম গং। গোপনে তারা জালিয়াতির মাধ্যমে কিছু কাগজপত্রও সৃজন করে। তিনি বলেন, আগামী ৭ দিনের মধ্যে দখল ছেড়ে দিতে হুমকি প্রদান করে। অবশেষে দখল উচ্ছেদ করতে সন্ত্রাসী কায়দায় ভাঙচুর ও লুট চালায়। জমিতে মুহাম্মদ জমির, আনোয়ার ইসলাম গং এর কোন মালিকানা নেই বলেও দাবী করেন ক্ষতিগ্রস্ত আলহাজ্ব মাস্টার নুরুল কুদ্দুস। এ বিষয়ে তিনি প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •