তাজুল ইসলাম পলাশ, চট্টগ্রাম:

চট্টগ্রামে শামীমা আকতার (২২) নামের এক গৃহবধূর মরদেহ উদ্ধার করেছে থানা পুলিশ। বুধবার (১৮ এপ্রিল ) বিকেল তিনটার দিকে বোয়ালখালী উপজেলার আহলা কড়লডেঙ্গা ইউনিয়নের ২ নম্বর ওয়ার্ডে লুধুরিপাড়ার গিয়াস উদ্দিনের ঘর থেকে মরদেহটি উদ্ধার করা হয়।

নিহত শামীমা গিয়াস উদ্দিনের স্ত্রী। তাদের সংসারে জান্নাত আকতার নামের দেড় বছরের একটি মেয়ে আছে। তিন বছর আগে পটিয়া উপজেলার কোলাগাঁও বাণীগ্রামের আবুল কাশেমের মেয়ে শামীমার সঙ্গে গিয়াস উদ্দিনের সামাজিকভাবে বিয়ে হয়। গিয়াস এলাকায় লেবুর ব্যবসার পাশাপাশি গাড়ি চালান।

শামীমার বড় ভাই শফিউল আলম বলেন, গিয়াস যৌতুকের জন্য প্রায় সময় তার বোন শামীমাকে মারধর করতেন। ঘটনার আগেও মারধর করলে শামীমা বাপের বাড়িতে চলে আসে। এ নিয়ে বেশ কয়েকবার সালিস বৈঠকও হয়েছে।

মঙ্গলবার (১৭ এপ্রিল) চাচাত ভাই শামীমাকে এক মাসের বাজারসহ গিয়াসের বাড়িতে এনে দেয়। এ সময় শামীমাকে ঘরে ঢুকতে দেননি গিয়াস। সন্ধ্যায় গিয়াসকে অনেক মিনতি করলে ঘরে ঢুকতে দেন। বোনের সুখ শান্তির কথা ভেবে গিয়াসের দাবি অনুযায়ী সম্প্রতি নগদ ৩০ হাজার টাকা দিতে হয়েছে বলে জানান তিনি।

শামীমার শাশুড়ি ফরিদা বেগম জানান, মঙ্গলবার রাত একটার দিকে গিয়াসের শোরগোল শুনে ঘর থেকে বেরিয়ে জানতে পারেন গিয়াস প্রকৃতির ডাকে সাড়া দিতে ঘর থেকে বের হলে তার স্ত্রী ঘরের দরজা লাগিয়ে দেন। পরে দা দিয়ে চাল কেটে গিয়াস ঘরে ঢুকে দেখে শামীমা গলায় শাড়ি পেচিঁয়ে ঘরের ছাঁদ বিমের সঙ্গে ঝুলে আছে।

স্থানীয় ইউপি সদস্য মো. করিম জানান, রাত একটার দিকে গিয়াস ফোনে বিষয়টি জানালে সঙ্গে সঙ্গে থানায় খবর দিই।

থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) আরিফুল ইসলাম বলেন, ঘরের ছাঁদ বিমের সঙ্গে শাড়ি দিয়ে ঝুলন্ত অবস্থায় শামীমার মরদেহ পাওয়া যায়। প্রাথমিক ভাবে আত্মহত্যা বলে ধারণা করছি। ময়নাতদন্তের পর বিস্তারিত জানা যাবে বলে তিনি জানান।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •