সাদ্দাম হোসেনের লাশ গায়েব

অনলাইন ডেস্ক : ইরাকের সাবেক প্রয়াত প্রেসিডেন্ট সাদ্দাম হোসেনের কবরের পরিণতি কী হয়েছে তা জানা যাচ্ছে না। ২০১৪ সালে আইএস দমনের নামে ইরাকী সেনাবাহিনী সাদ্দাম হোসেনের মাযারের উপর বোমা বর্ষণ করে গুড়িয়ে দেয়। ফলে লাশও পাওয়া যাচ্ছে না।

আশ-শারকুল আওসাত নামক পত্রিকা সাদ্দাম হোসেনের জন্মস্থান তিকরিতের সালাহুদ্দিন জেলার গোত্র পরিষদের সদস্য শেখ আহমদ আনজির বরাতে জানিয়েছে, সালাহুদিনে আইএস প্রবেশের পূর্বে সাদ্দাম হোসেনের পরিবার তার লাশ গোপনে সরিয়ে নেয়। পরবর্তীতে সাদ্দাম হোসেনের মাজার আইএস গুড়িয়ে দেয়। সে কবরে এখন আর তার দেহাবশেষ নেই।

সাদ্দাম হোসেনের গোত্রপ্রধান আবু নসরের প্রধান শায়খ মানাফ আলী আন্নাদা জানিয়েছেন, সাদ্দাম হোসেনের কবর খুড়ে উড়িয়ে দেয়া হয়। তবে কারা এ জড়িত শেখ মানাফ তার উল্লেখ করেননি। এখন সেখানে হাশদ শাবি নিয়ন্ত্রণ করছে। সেখানে বিশেষ অনুমতি ব্যতীত কাউকে যেতে দেয়া হয়না। এছাড়া সাদ্দাম হোসেনের গোত্রের সবাই নির্যাতনের ভয়ে কুর্দিস্তানে চলে গেছে।

অপরদিকে তিকরিতের একজন সরকারি কর্মকর্তা হামলার কথা স্বীকার করে গণমাধ্যমকে বলেছেন, সাদ্দাম হোসেনের লাশ তার কবরেই বিদ্যামান ছিল। তবে আমাদের ধারণা তার মেয়ে লাশ নিয়ে লন্ডনে চলে গিয়েছেন।

কিন্তু স্থানীয় এক প্রতক্ষদর্শী ওই কর্মকর্তার কথা অস্বীকার করে বলেছেন, সাদ্দামের মেয়ে তো ইরাকেই আসেন নি। তিনি কী করে লাশ নিয়ে যাবেন? আমরা দেখেছি সাদ্দামের কবর খুড়া হয়েছে। কে বা কারা তার লাশ নিয়ে গেছে তা আমরা দেখতে পারিনি। এসবের পেছনে কাদের হাত আছে তা সরকারি বাহিনীই ভালো বলতে পারবে।

ফ্রান্স প্রেসের একটি সংবাদ সংস্থার রিপোর্ট অনুযায়ী ইরাকের তিকরিত শহরের আল ওয়াজা এলাকায় অবস্থিত সাদ্দাম হোসেনের কবরের ওপর বোমা হামলা হওয়ায় তা সম্পূর্ণ ধ্বংস হয়ে গেছে।

উল্লেখ্য, ইরাকে রাসয়ানিক অস্ত্র তৈরি ও মজুদের কথিত অভিযোগ তুলে ২০০৬ সালে ৩০ ডিসেম্বর মার্কিন সেনাবাহিনী সাদ্দাম হোসেনকে ফাঁসিতে ঝুলিয়ে হত্যা করে। তিনি ইরাকে একাধারে সাড়ে ২৩ বছর রাষ্ট্র ক্ষমতায় ছিলেন। সূত্র : আল-আরাবিয়া, ইয়েনি সাফাক

কক্সবাজার নিউজ সিবিএন’এ প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ।

সর্বশেষ সংবাদ

চবি উপাচার্যের সাথে মিশর আল আযহার বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রতিনিধি দলের সাক্ষাৎ

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যকে সংবর্ধনা

বিমানবন্দর থেকে ইয়াবাসহ বরিশালের দুই তরুণী

ইয়াবা পাচারের দায়ে টেকনাফের যুবকের ১০ বছর জেল

মহেশখালী-কুতুবদিয়া আসনে আ. লীগের মনোনয়ন পাচ্ছেন সিরাজুল মোস্তফা!

উলঙ্গ থাকার বিধান কী?

গ্যারেজে চাকরি করা প্রবাসী, কাগজ ব্যবসায় কোটিপতি

হঠাৎ স্যামসাং স্মার্টফোন বিস্ফোরণ! তারপর…

হাটহাজারীতে পিকআপ-মোটরসাইকেল সংঘর্ষে নিহত ১

দেড় লাখ ইভিএম কেনার সিদ্ধান্ত

দেশে দারিদ্র্যের হার আরও কমেছে

২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলার রায় ১০ অক্টোবর

জাতীয়করণ হতে যাচ্ছে রাঙামাটির ৮০টি বিদ্যালয়!

চট্টগ্রাম কলেজ ছাত্রলীগের কমিটিতে পদ বঞ্চিতদের বিক্ষোভ

প্রধানমন্ত্রী সমীপে মহেশখালীর প্রবীণ রাজনীতিবিদ ডাঃ নুরুল আমিন জাহেদের খোলাচিঠি

টেকনাফে বিজিবি’র অভিযানে তিন কোটি টাকার ইয়াবা উদ্ধার

নুরজাহান আশরাফী কুতুবদিয়া উপজেলার শ্রেষ্ঠ শিক্ষিকা নির্বাচিত

প্রতিবন্ধী কোটা বহাল রাখার দাবী চবি শিক্ষার্থীদের

এবার স্কুলের দেয়াল পরিষ্কারে নেমেছেন কক্সবাজার জেলা ছাত্রলীগ

রোহিঙ্গা যুবতী প্রেমিকসহ আটক শীর্ষক সংবাদের সংশোধনী