চোখ বেঁধে তুলে নেয়ায় নিরাপত্তা ঝুঁকিতে আন্দোলনকারীরা

ডেস্ক নিউজ:
চোখ বেঁধে ডিবি কার্যালয়ে তুলে নেয়ার ঘটনার পর নিরাপত্তা ঝুঁকিতে রয়েছে বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের নেতারা। সোমবার ডিবি কার্যালয় থেকে ফিরে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় লাইব্রেরির সামনে সংবাদ সম্মেলনে একথা জানান তারা।

সংবাদ সম্মেলনে ডিবি কার্যালয় থেকে ফিরে আসা পরিষদের যুগ্ম আহ্বায়ক নুরুল হক নুর, রাশেদ খান ও ফারুক ৩ জনই বক্তব্য রাখেন। এ সময় সরকারের কাছে নিরাপত্তা দেয়ার দাবি জানান তারা।

সংবাদ সম্মেলনে রাশেদ খান বলেন, আমার বাবার কোনো দোষ নাই। তাকে ছেড়ে দেয়া হোক। কষ্ট করে লেখাপড়ার জন্য বিশ্ববিদ্যালয়ে পাঠিয়েছেন। তাকে আটক করাটা যথেষ্ট কষ্টকর। এখন আমার বাবার কাছ থেকে জোরপূর্বক স্বীকারোক্তি আদায়ের চেষ্টা চলছে।

নুরুল হক নুর বলেন, গুলিস্তানে নেয়ার পর গামছা কিনে চোখ বাঁধা হয়। মাথায় হেলমেট পড়ানো হয় আমাদের। এরপর ডিবি অফিসে নেয়া হয়।

ডিবি পুলিশ বলেছে, তোমাদের ওপর হামলার আশঙ্কা ছিল। সেজন্য নিয়ে আসা হয়েছে। একটা ভিডিও দেখানোর কথা বলেন তারা যদিও কোনো ভিডিও দেখানো হয়নি। ছেড়ে দেয়ার সময় বলা হয় ডাকলে আবার যেতে হবে ডিবি অফিসে।

নুর দাবি করে বলেন, ‘এটি একটি অপহরণ। মিডিয়া না জানলে হয়তো ফিরে আসতাম কি-না সন্দেহ।’

সংবাদ সম্মেলনে বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের অপর নেতা ফারুক হাসান বলেন, আমাদের ওপর হামলা হবে বলে নিয়ে আসা হয়। ডিবি কার্যালয়ে পানি খেতে চাইলে দেয়া হয়নি। নিজেদের নিরাপত্তার পাশাপাশি পরিবারের সদস্যদেরও নিরাপত্তা দাবি করছি।

তিনি বলেন, নিরাপত্তা ইস্যু থাকতেই পারে। সরকার ডাকলেই কিন্তু যেতাম। বলে কয়ে নিয়ে গেলে তো আমরা পালাতাম না। অবশ্যই যেতাম। এভাবে না নিয়ে গেলেই পারতো।

কোটা সংস্কারের আন্দোলনে অংশগ্রহণকারী শিক্ষার্থীসহ বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের নেতাদের নিরাপত্তার দাবিতে সংবাদ সম্মেলন শেষে প্রতিবাদ মিছিল বের হয়। মিছিলটি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে শাহবাগ মোড় পর্যন্ত পদক্ষিণ করে। মিছিলে তারা স্লোগান দেয় ‘গুম করে আন্দোলন থামানো যাবে না।’

এর আগে রাজধানীর চাঁনখারপুল এলাকা থেকে বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের এই ৩ নেতাকে একটি মাইক্রোবাসে তুলে নেয় সাদা পোশাকের পুলিশ। এর কিছুক্ষণ পর তাদের ছেড়ে দেয়া হয়।

এ বিষয়ে জাগো নিউজের কাছে প্রথমে জিজ্ঞাসাবাদের কথা অস্বীকার করলেও পরবর্তীতে ডিবির যুগ্ম কমিশনার আব্দুল বাতেন বলেন, ‘তাদের আটক বা গ্রেফতার করা হয়নি। কিছু তথ্য জানতে তাদের সহযোগিতা চাওয়া হয়েছিল। তারা চলে গেছে।’

সর্বশেষ সংবাদ

মৃত্যুর ৩২ বছর পর কবর থেকে বেরিয়ে এলো অক্ষত লাশ

লাইট হাউজে কাউন্সিলর প্রার্থী দানু’র কর্মীর উপর হামলা, প্রতিবাদ সভা

চকরিয়ায় স্ত্রীকে নির্যাতনের মামলায় স্বামী গ্রেফতার

চকরিয়ায় বিএমচর চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর জামিনে মুক্ত

১২নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থী বাবুর বিরুদ্ধে অপপ্রচারে প্রতিবাদ সভা

পিতার নির্বাচনী প্রতিপক্ষদের ইন্দনে ইয়াবা মামলায় জড়ানো হয়েছে

চকরিয়ার প্রধান শিক্ষক ৩০ হাজার ইয়াবাসহ চট্টগ্রামে গ্রেপ্তার

পেকুয়ায় শীর্ষ ইয়াবা ব্যবসায়ী খোকা আটক

শহরজুড়ে নারিকেল গাছ মার্কার সমর্থনে শ্রমিক-জনতার গণসংযোগ

বরেণ্য রাজনীতিবিদ শাহজাহান চৌধুরীর জন্মদিন পালন

মা-বাবার স্বপ্নের মৃত্যু, চলছে শোকের মাতম

৬৬ বছর পর নখ কাটলেন শ্রীধর!

জাসদ (আম্বিয়া-বাদল) কক্সবাজার জেলা শাখার শোক

ঈদগাঁওতে অন্ধ স্কুলে নৈশপ্রহরীর ইটের আঘাতে শিক্ষার্থী আহত

সম্প্রীতির শহর গড়তে নৌকায় ভোট দিন- এনামুল হক শামীম

পেকুয়ায় আনন্দ স্কুলের দেড় হাজার শিক্ষার্থীর শিক্ষা উপকরণের টাকা লুটপাট!

সমৃদ্ধ শহর গড়তে ধানের শীষকে বিজয়ী করুন- রফিকুল ইসলাম

‘ফ্রান্সকে বিশ্বকাপ জিতিয়েছে আফ্রিকান আর মুসলিমরা’

বিশ্বজয়ীদের বরণ করে নিচ্ছে ফ্রান্স

স্বামী-স্ত্রীর মনোমালিন্য দূর করার সহজ আমল