মহেশখালীতে তুচ্ছ বিষয়কে কেন্দ্র করে মারধর, যুবক হাসপাতালে

নিজস্ব প্রতিবেদক:

মহেশখালী পৌরসভার ঘোনাপাড়ায় এক যুবককে সকাল নয় টায় (বৃহস্পতিবার) মারাত্মকভাবে আহত করে সর্বস্ব ছিনিয়ে নেয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। আহত যুবকের নাম তোফায়েল আহমদ। তিনি ঘোনাপাড়া জাফর আলম সওদাগরের পুত্র। পেশায় একজন গ্রামীণফোন কোম্পানীর সেলসম্যান। অপরদিকে অভিযুক্ত সদ্য মালেয়েশিয়া প্রবাসী আবছার ঘোনাপাড়ার মোঃ আবুল হাসেমের প্রথম পুত্র।

এলকাবাসী সূত্রে জানা যায়, তার উভয়েই নিকটাত্মীয় এবং একই গোত্রের। কিছু জমি সংক্রান্ত বিষয় নিয়ে মনোমালিন্যের অতীত আছে। অতীতের মনোমালিন্য মান-অভিমান থেকে সহিংস ঘটনায় রূপ নেয়। কয়েকদিন আগেও তাদের অভিভাবকের মাঝে হাতা-হাতির মত অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেছিল। পরে এটা মিমাংসার জন্য স্থানীয় মেয়র মকছুদ মিয়ার কাছে বিচারাধীন আছে বলে এক নিকটতাত্মীয় জানান।

আহত যুবকের ভাই আয়াছুর রহমান জানান, আহত তোফায়েল প্রতিদিনের মত সকালে গ্রামীণফোনের রিচার্জ বিক্রির উদ্দেশ্যে বের হয়ে ঘটিভাংগা থেকে ফিরে গোরকঘাটা বাজারে যাচ্ছিল। পথিমধ্যে ঘোনাপাড়া রাস্তার মোড়ে রাস্তার পাশে বাড়ি হওয়ায় তোফায়েলকে একা পেয়ে চলন্ত মোটর সাইকেলে লোহার রডের আঘাতে মাটিতে ফেলে দেয় আবুলহাসেমের পুত্র আবছার। পরে তার পরিবারের আরো লোকজন দা-ছোরা নিয়ে জড়ো হয়ে রাস্তায় সবার সামনে মারধর করে মারত্মক জখমি করে বেহুঁশ অবস্থায় রাস্তার পাশে ফেলে রাখে।

পরে স্থানীয় লোকজনের সহায়তায় উদ্ধার করে প্রথমে মহেশখালী হাসপাতাল নিয়ে গেলে কর্তব্যরত ডাক্তার তোফায়েলকে উন্নত চিকিৎসার জন্য কক্সবাজার সদর হাসপাতালে রেফার করে। বর্তমানে সদর হাসপাতালে সার্জারী ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন। মাটিতে ফেলে রাখা অবস্থায় তার ব্যবহৃত স্ক্রিন টাচ মোবাইল, কোম্পানীর একটি ট্যাব, রিচার্জের নগদ সত্তর হাজার টাকাও রিচার্জ মোবাইল নিয়ে নেয় বলে দাবী করেন আয়াছ।

তিনি আরো অভিযোগ করে বলেন, আবছারের পিতা আবুল হাসেম সবই জানে প্রতিশোধ পরায়ন হয়ে ছেলেকে দিয়ে নিরাপরাধ তোফায়েলকে পরিকল্পিতভাবে বিচারধীন থাকাবস্থায় ঘটনাটি ঘটায়। এবিষয়ে কথা হয় আবছারের পিতা আবুল হাসেমের সাথে তিনি মোবাইলে বলেন, ঘটনাটি সত্য, তবে অনেক কিছু সত্য নয়।

থানা সূত্রে জানা যায়, এবিষয়ে এখনো থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেনি।এবিষয়ে এলাকার বেশ কয়েকজন মুরব্বি ও নেতৃস্থানীয় লোকজনের বক্তব্য অভিমত-একই স্থানে থাকলে নিজেদের মধ্যে অনেক কিছু হয়। তার জন্য বিচারের জন্য দুয়ারে দুয়ারে না ঘুরে নিজেদের মধ্যে সমঝোতার মাধ্যমে সমাধান করতে পারলেই সম্মান ও আত্মীয়তা দুটিই রক্ষা হয়।

সর্বশেষ সংবাদ

যারা ফেসঅ্যাপে বুড়ো হয়েছেন তাদের জন্য দু:সংবাদ

সেতু নির্মাণের আড়াই বছরেও হয়নি পাকা সংযোগ সড়ক

লামায় বন্যা আক্রান্তদের সেবায় হোপ ফাউন্ডেশনের ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্প

কক্সবাজার থেকে বছরে ৫০০ কোটি টাকা কর আদায় সম্ভব

রোহিঙ্গা নির্যাতনের তদন্ত শুরু করবে আইসিসি

দুর্নীতির অভিযোগে পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী আব্বাসি গ্রেফতার

তুরস্কে বাস দুর্ঘটনায় বাংলাদেশিসহ নিহত ১৫

প্রধানমন্ত্রীর এটুআই প্রোগ্রামের জেলা এম্বাসেডর পেকুয়ার আছহাব উদ্দিন

শহরের সড়ক-উপসড়কের বেহালদশা

মাদকের সাথে জড়িত কেউ রেহাই পাবে না

কক্সবাজারে জাতীয় মৎস্য সপ্তাহের বর্ণাঢ্য উদ্বোধন

পশুর জন্য ভালবাসা

চকরিয়ায় দু’দফা বন্যায় ক্ষতিগ্রস্থ ৪০ হাজার বসতঘর , ভেসে গেছে ৫৬ কোটি টাকার মাছ

বিদেশ সফর শেষে রামুতে শ্রেষ্ঠ চেয়াারম্যান ফরিদুল আলম সংবর্ধিত

অক্টোবরের পর রোহিঙ্গা নির্যাতনের তদন্ত শুরু করতে চায় আইসিসি

ফাঁসিয়াখালী ইউপি’র উপ নির্বাচন শতভাগ সুষ্ঠু হবে : সাঈদী’কে ইসি কবিতা খানম

টেকনাফের যুবদল নেতা রাশেদের মৃত্যুতে সাবেক এমপি শাহজাহান চৌধুরীর শোক

চিকিৎসার জন্য রফিকুল ইসলাম মিয়াকে সিঙ্গাপুর নেওয়া হয়েছে

শিশুর মাথা ব্যাগে নিয়ে মদ খেতে গিয়েছিল সেই যুবক

সব রেকর্ড ভেঙেছে যমুনা-তিস্তার পানি