রামুতে সংখ্যালঘুদের জায়গা দখল চেষ্টার অভিযোগ

শেফাইল উদ্দিন, কক্সবাজার সদর :

কক্সবাজারের রামু উপজেলার কাউয়ারখোপ ইউনিয়নে ভূমিগ্রাসী চক্রের নেতৃত্বে হিন্দু সম্প্রদায়ের বসতভিটা দখল চেষ্টার অভিযোগ উঠেছে। এতে ভূক্তভোগীরা চরম আতঙ্কে রয়েছে বলে জানা গেছে। এদিকে উক্ত চক্রের ষড়যন্ত্র ও অপ পায়তারা থেকে বাঁচতে রামু থানায় সাধারণ ডায়েরী ও আদালতে মামলা দায়ের করেছে সংখ্যালঘুরা।

প্রাপ্ত তথ্যে জানা যায়, রামু উপজেলার কাউয়ারখোপ ইউনিয়নের হিন্দু পাড়া এলাকায় প্রায় ১২/১৫টি পরিবারের ২ শতাধিক লোকজন দীর্ঘ ৮০/৯০ বছর ধরে বসবাস করে আসছে। এ গ্রামে তাদের একটি মন্দির ও আছে। এদের জায়গা-জমি নিয়ে কোন বিরোধ না থাকলেও সম্প্রতি একটি ভূমিগ্রাসী চক্রের লোলুপ দৃষ্টি পড়ে তাদের বসতভিটার উপর। উক্ত সংখ্যালঘুদের জায়গা দখলে নেওয়ার জন্য শুরু করে বিভিন্ন অপ পায়তারা। এরই ধারাবাহিকতায় পাশর্^বর্তী গর্জনিয়া এলাকার ধন রঞ্জন ধরকে বাদী করে কাউয়ারখোপ ইউনিয়ন পরিষদে একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করে। যার নং ১৭১/১৭। পরিষদে উক্ত অভিযোগের বিচার চলাকালে একটি রেজিষ্ট্রি দলিল সৃষ্টি করে এ চক্র। উক্ত দলিলের জমি বিক্রেতা ধন রঞ্জন ধর এবং ক্রেতা হচ্ছে বর্তমান চেয়ারম্যানের ভাই নুরুল আবছার, পরিষদের বর্তমান ৪নং ওয়ার্ডের মেম্বার আজিজুল হক, একই এলাকার ৫নং ওয়ার্ডের মৃত কবির আহমদের পুত্র ছলিম উল্লাহ, মধ্যম পাড়া মনিরঝিল এলাকার মৃত হাজী বেলাল আহমদের পুত্র মীর আহমদ। দলিল নং ২৬৬। এরপর উক্ত জায়গা থেকে সংখ্যালঘুদের উচ্ছেদ করতে আরো একটি নতুন ফন্দি সৃষ্টি করে ভূয়া ওয়ারিশ সনদ দেওয়া হয়েছে। যার স্মারক নং ৬৮(ক) ২০১৭ ক্রমিক নং ৭৪২। ভূক্তভোগীরা এ ওয়ারিশদের কোন অস্থিত্ব নেই বলে দাবী করে অত্র এলাকায়। সম্প্রতি সংখ্যালঘুরা উক্ত ভূমিগ্রাসী চক্রের হাত থেকে রেহাই পেতে রামু থানায় সাধারণ ডায়েরী ও আদালতে মামলা দায়ের করেছে। ডায়েরী নং ৩৮৯। মামলা নং অপর ১১১/১৮। সংখ্যালঘুরা প্রভাবশালী এ চক্রের হাত থেকে রক্ষা পেতে প্রশাসনের জরুরী হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

এ ব্যাপারে ননী গোপাল ধরের পুুত্র বিজন ধর, মৃত নরেন্দ্র লাল ধরের পুত্র স্বপন ধর জানান, উক্ত প্রভাবশালী চক্রটি আমাদের হিন্দু সম্প্রদায়ের বসতভিটা ও মন্দির জবরদখল করে আমাদেরকে উচ্ছেদ করতে বিভিন্নভাবে ষড়যন্ত্র করে আসছে। আমরা এদের হাত থেকে রেহাই পাওয়ার জন্য আইনের আশ্রয় নিয়েছি এবং প্রশাসনের সহযোগিতা কামনা করছি।

এ ব্যাপারে স্থানীয় চেয়ারম্যান মোস্তাক আহমদের সাথে মোবাইলে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, বিবাদীপক্ষ আমার পরিষদ থেকে সময় নিয়ে আদালতে মামলা দায়ের করে এবং জবর দখল চেষ্টার বিষয়টি মিথ্যা বলে জানান। অন্যদিকে অভিযোগ উঠা চেয়ারম্যানের ছোট ভাই নুরুল আবছারের সাথে কথা হলে তিনি জানান, আমি জমি ক্রয় করেছি। কাগজপত্রে আমার স্বত্ত্ব ঠিক থাকলে আমি জমি দাবী করব, অন্যথায় আমার কোন দাবী নেই।

cbn
কক্সবাজার নিউজ সিবিএন’এ প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ।

সর্বশেষ সংবাদ

ইসলামপুরে যাত্রীবাহী দুই বাস খাদেঃ ২০ যাত্রী আহত

মাতারবাড়িতে চতুর্থ শ্রেণীর মাদরাসা ছাত্র খুন, শিক্ষকসহ দুইজন আটক

কক্সবাজার আইডিয়াল স্কুলে নার্সারী থেকে ৮ম শ্রেণী পর্যন্ত ভর্তি চলছে

নৌকায় ভোট দিন, আমি উন্নয়ন দিব -মালুমঘাটে জাফর

সারাদেশে ১০১৬ প্লাটুন বিজিবি মোতায়েন

জামায়াতের ২৫ প্রার্থীর প্রার্থিতা বাতিলের আবেদন তিনদিনের মধ্যে নিষ্পত্তির নির্দেশ

রিট খারিজ, নির্বাচনে অংশ নিতে পারছেন না খালেদা জিয়া

বিজয়ের ছুটিতে পর্যটকদের উপচেপড়া ভিড় কক্সবাজারে

যা আছে বিএনপির ইশতেহারে

নিরাপত্তাহীনতায় তিনদিন ধরে নির্বাচনী প্রচারণায় যেতে পারছেন না হাসিনা আহমদ

পার্বত্য চট্টগ্রামের প্রতিটি ভোট কেন্দ্রে সেনা মোতায়েন করা হবে-সিইসি

সরল নির্বাচনের কঠিন সমীকরণ

ধানের শীষের পোস্টার টাঙ্গানোর সময় অতর্কিত হামলার অভিযোগ

আওয়ামীলীগের পূর্নাঙ্গ নির্বাচনী ইশতেহার

নির্বাচনী ইশতেহারে আ’লীগের ২১ অঙ্গীকার

নির্বাচনী ঘটনায় ভূট্টো ও মাবুদ চেয়ারম্যান সহ ৮০ জনকে আসামী করে দু’টি মামলা

ঈদগাঁও থেকে ২ ব্যক্তি অপহরণ

আলমগীর ফরিদের প্রার্থীতা ও ধানের শীষ পেতে আর কোন বাঁধা নেই

চকরিয়া-পেকুয়ার জনগণ মৌসুমী প্রার্থীকে গ্রহণ করেনি-জাফর আলম

সীতাকুণ্ড থেকে পালিয়ে আসা প্রেমিক যুগল ঈদগাঁওতে ধৃত