মহাসড়কে ঝুঁকিপূর্ণ টেক-বাঁক মরণ ফাঁদ

এম আবুহেনা সাগর,ঈদগাঁও :

চট্টগ্রাম -কক্সবাজার মহাসড়কে ঝুঁকিপূর্ণ স্থানে টেকবাঁক এখন উভয়মুখী যাত্রীদের মরণ ফাঁদে পরিণত হয়েছে। কোথাও ডানে মোড়, আঁকা বাঁকা রাস্তা বা সতর্কীকরণ চিহ্ন না থাকায় প্রায়শ এসব এলাকায় দ্রুতগামী যানবাহন ও মালবাহী গাড়ী কোন না কোন ভাবেই দূর্ঘটনার শিকার হচ্ছে।

প্রাপ্ত তথ্য মতে, কক্সবাজার থেকে চট্টগ্রাম যাওয়ার সময় মহাসড়কে ছোট বড় প্রায় অসংখ্য টেক-বাঁক রয়েছে। তৎমধ্যে খরুলিয়া,বাংলাবাজার,রামু,পানিরছড়া, জোয়ারিয়ানালা,ঈদগাঁও বাসষ্টেশন,ফকিরা বাজার,নাপিতখালী, মেধাকচ্ছপিয়া, ডুলাহাজারা, মালুমঘাটসহ বেশ কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ স্থানে। দূর থেকে এসব স্থানে টেক-বাঁক গুলি দেখা না যাওয়ার কারণে এই সকল টেক-বাঁকে যানবাহনের ভয়াবহ দূর্ঘটনার আশংকা প্রকাশ করছেন যানবাহনের চালকরা। তাছাড়া মহাসড়কে অধিক বাঁকের পাশাপাশি প্রায় ডজনাধিকের মত হাটবাজার থাকায় এটি উভয়মুখী গাড়ি চলাচলের ক্ষেত্রে মারাত্মক ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে উঠেছে। বিশেষ করে, লিংকরোড, খরুলিয়া, পানিরছড়া,কালিরছড়া,ঈদগাঁও, ফকিরা বাজার,নাপিতখালী বটতল,নতুন অফিস,খুটাখালী,ডুলাহাজারা,মালুমঘাটসহ আরো অনেক। এসব ষ্টেশন ও বাজারে নানা যানবাহন দাঁড় করানোর কারণে যানজটের কবলে পড়তে হয় দীর্ঘক্ষণ । এতে করে দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে আসা বিশ্বের দীর্ঘতম সমুদ্রকন্যা ককসবাজারে পর্যটকদেরকে অযথা সময় মহাসড়কের উপর নানা ক্ষেত্রে অপেক্ষা করতে হচ্ছে নিদিষ্ট স্থানে পৌঁছতে। দেখা যায়, উল্লেখিত টেক-বাঁকে প্রতিবছর প্রাণহানির মত ঘটনা ঘটে। তৎমধ্যে বেশির ভাগ দূর্ঘটনা টেক বা বাঁকে অতিক্রম করার সময়।

এদিকে চট্টগ্রাম ককসবাজার মহাসড়কের গুরুত্ব দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে। পর্যটন শহর কক্সবাজারে নানা স্থরের মানুষের যাতায়াত বেড়েছে দ্বিগুণ পরিসরে। ব্যস্ত মহাসড়ক হিসাবে পরিচিতি পেলে টেক-বাঁক ও ষ্টেশন ভিত্তিক বাজার এবং ঝুঁকিপূর্ণ অংশের কোনভাবেই কাজ করা হচ্ছেনা এখনো। কয়েক যানবাহন চালকরা জানান, ককসবাজার সদরের ইসলামপুরের নাপিতখালী মোড়ের বাঁকটি অত্যান্ত ঝুঁকিপূর্ণ। দ্রুতগতিতে যানবাহন চালিয়ে আসলে সহজে গতি নিয়ন্ত্রণ করা সম্ভব হয়না। ঢাকা ও চট্রগ্রাম থেকে আসা বেশ কজন পর্যটক জানান, চট্রগ্রাম – ককসবাজার মহাসড়কের কোথাও বাঁক-টেকে সতর্কীকরণ চিহৃ বসানোর তাব সাইনবোর্ড না থাকায় দূর্ঘটনা বেশিভাগই ঘটে চলছে। খুটাখালীর প্রাক্তন ব্রাক শিক্ষা কর্মকতা মীর মোহাম্মদ নোমান কক্সবাজার নিউজকে জানান, মহাসড়ক কিংবা গ্রামীন সড়কে টেকঁবাকের কারনে সাধারন মানুষজনের রাস্তা পারাপারে দারুন ভাবে ব্যাঘাত করছে। ছোট বড় দূর্ঘটনা প্রতিনিয়ত ঘটে চলছে। এমনকি সড়কের পাশে গড়ে উঠা বাজারগুলোতে নিদিষ্ট পরিমান জায়গা খালী না রেখে ভ্রাম্যমান দোকানের পসরা বসার কারনে যানবাহন ও সর্বশ্রেনী পেশার লোকজনের ভোগান্তি দ্বিগুন আকারে বৃদ্ধি পেয়ে থাকে। তবে এলাকার লোকজনের দাবী,সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ যদি টেক বাঁকে সতর্কীকরণ চিহ্ন বসায় এবং পার্শ্ববর্তী স্থাপনা বা পাহাড় কেটে প্রতিবন্ধকতা দূর করে তাহলে দূর্ঘটনা থেকে উভয়দিকের লোকজন রক্ষা পাবে।

সর্বশেষ সংবাদ

“শিক্ষাবন্ধু” উপাধিতে ভুষিত প্রফেসর ক্য থিং অং

ঝালকাঠিতে মাদক মামলায় এক ব্যক্তির পাঁচ বছর কারাদন্ড

চট্টগ্রামে জুতার তলায় করে ইয়াবা পাচারের সময় আটক ২

৫১ হাজার কেজি কুরবানির মাংস বিতরণ করলো তুর্কি দিয়ানত ফাউন্ডেশন

যেভাবে ইমরানের পিঠে ছুরি বসালেন মোদি

ডেঙ্গুতে আজও ৩ জনের মৃত্যু

লামায় পুকুরের পানিতে ডুবে শিশুর মৃত্যু

বিএনপি নেতা সিরাজ অসুস্থ : দেখতে গেলেন কাজল

জয়শঙ্করের সফরে গুরুত্ব পাবে তিস্তা চুক্তি

চট্টগ্রামে সাড়ে ৭ মাসে ৮০০ ছাড়ালো ডেঙ্গু রোগী

এতিম-মিসকিনের টাকা নিয়ে নৈরাজ্য

শোকের মাসে বর্ষপূর্তি অনুষ্ঠান করছে না আলীরাজ পরিবহণ

বৈদ্যুতিক খুটি সরাতে ২৬ আগষ্ট বন্ধ থাকবে মেরিন ড্রাইভ সংযোগ সড়ক

কক্সবাজার কলাতলী ফ্লাট থেকে ইয়াবাসহ আটক ৩

কিশোরী ধর্ষণের দায়ে ভুয়া পীর ‘নেজাম মামা’ গ্রেফতার

শাহীনুল হক মার্শালকে ফুলেল শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন

ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মামলায় স্থায়ী জামিন পেলেন চকরিয়া প্রেসক্লাব সভাপতি আবদুল মজিদ

ইন্ডিপেনডেন্ট কমিশন অব ইনকোয়ারি প্রতিনিধিদল সোমবার ক্যাম্প পরিদর্শনে আসছেন

চকরিয়া শপিং সেন্টারে আবর্জনার স্তুপ

পৌরসভার ২ নং ওয়ার্ডে মশক নিধন অভিযান