কক্সবাজারে হত্যা মামলার আসামী ধরতে আইও’র অনীহা

 বিশেষ প্রতিবেদক:
হত্যা মামলার আসামীকে আটক করে মামলার আইওকে খবর দিলো বাদি পক্ষ। কিন্তু আসামী ধরে আনতে অনিহা দেখালো মামলার আইও। ২ বিভিন্ন নাটক ও ঘন্টা অপেক্ষার পরে খোদ মামলার বাদি ও নিহতের স্বজনেরা ঐ আসামীকে ধরে থানায় নিয়ে এসে পুলিশের হাতে তুলে দিলো। ঘটনাটি ঘটেছে কক্সবাজার সদর মডেল থানায়।
জানা গেছে, কক্সবাজারের কলাতলি মোহাম্মদিয় গেস্ট হাউসে নির্যাতন করে গাড়ি জামাল ড্রাইভার হত্যা করা হয়। বাদি পক্ষ ও নিহতের স্বজনেরা মঙ্গরবার দুপুরে মামলার অন্যতম আসামী ইউনুসকে পুলিশ লাইন এলাকায় ধরেফেলে। মামলার বাদির বড় ভাই বদি আলম ফোনে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা কক্সবাজার সদর থানার এসআই মনিরকে খবর দেয়। এসআই মনির আসামী ধরে আনতে অপারগতা প্রকাশ করে ফোনের লাইন কেটে দেয়। এর পরে নিহতের স্বজনেরা একাধিকবার সদর থানায় যোগাযোগ করলেও ডিউটি অফিসার তাদের এস আই মনিরের সাথে কথা বলতে বলে। ২ ঘন্টা পুলিশের নানান টালবাহানার পরে নিহতের স্বজনেরা ঐ আসামীকে থানায় নিয়ে আসে।
তবে মামলার আইও এস আই মনির ঐ আসামী প্রকৃত আসামী নয় বলে ছেড়ে দিতে বাদি পক্ষেকে হুমকি দিচ্ছে। কামাল উদ্দিন প্রকাশ জামাল ড্রাইভার হত্যারর পর থেকেই আসামীদের গ্রেফতারে এসআই মনিরের রহস্যজনক আচরন করে আসছে। তদন্তের শুরু থেকেই এমন অভিযোগ করে আসছে মামলার বাদি ও নিহত জামালের স্বজনেরা। আসামী পক্ষ থেকে মোটা অংকের টাকা নিয়ে এস আই মনির আসামীদের পক্ষে নিয়েছে বলে অভিযোগ বাদি পক্ষের। এনিয়ে এ হত্যাকান্ডের সঠিক তদন্ত নিয়েও প্রশ্ন উঠেছে।
আসামী ছেড়ে দিতে বাদিকে হুমকি ও অসামী ধরতে অনিহার অভিযোগ অস্বীকার করে মামলা তদন্তকারী কর্মকর্তা কক্সবাজার সদর থানার এসআই মনির হোসেন জানান, আমরা আসলে খুব ব্যস্ত থাকি। ব্যস্তাতার কারনেই আসামী ধরতে যেতে পারিনি। মামলার তদন্ত কাজ সঠিকভাবে চলছে। গ্রেফতার হওয়া আসামীদের রিমান্ড চাওয়া হলে আদালত জেলগেটে জিজ্ঞাসাবাদের আদেশ দেন। তদন্তের আসামীর দেয়া তথ্য প্রকাশ করা যাচ্ছে। দ্রুত এই মামলার তদন্ত শেষ হবে বলেও জানান এই কর্মকর্তা।
এই বিষয়ে জানতে চাইলে কক্সবাজার সদর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) ফরিদ উদ্দিন খন্দকারের মুঠোফোনে একাধিকবার চেষ্টা করলেও তিনি ফোন রিসিভ করেননি।
উল্লেখ্য যে, গত ১৫ ফেব্রুয়ারী নিজ বাসা থেকে ডেকে নিয়ে জামালকে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করা হয়েছে। এরপর হত্যাকান্ডের শিকার জামালের স্ত্রী নুর নাহার বেগম বাদী হয়ে ১৭ ফেব্রুয়ারী কক্সবাজার সদর মডেল থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। ওই মামলায় চারজনকে আসামী করা হয়। মামলার প্রধান আসামী রফিকুল ইসলাম বাবুলকে পুলিশ গ্রেফতার করে পুলিশ। পরবর্তী মঙ্গলবার মামলার বাদীর ভাই নিজেই আসামীকে ধরে থানায় নিয়ে যান।
কক্সবাজার নিউজ সিবিএন’এ প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ।

সর্বশেষ সংবাদ

কক্সবাজার সদর মডেল থানা পুলিশের অভিযানে ৮জন আসামী গ্রেফতার

নির্বাচন কমিশনের সচিব হেলালুদ্দীন আহমদের পিতার মৃত্যু : বিভিন্ন মহলের শোক

পেকুয়ায় মা-মেয়ের উপর হামলার ঘটনার মূলহোতা আব্বাস গ্রেপ্তার

সরকারের হুমকিতে দেশ ছাড়েন এস কে সিনহা : বিবিসির খবর (ভিডিও)

রামুতে শহীদ লিয়াকত স্মৃতি বৃত্তি পরীক্ষা-২১ সেপ্টেম্বর

সাংবাদিক কল্যাণ ট্রাস্টের টাকা পেলেন কক্সবাজারের ৬ সাংবাদিক

মানবতার মূর্ত প্রতীক শ্রীশ্রীঠাকুর অনুকূলচন্দ্র : মেয়র মুজিবুর রহমান

উদীচী, কক্সবাজার জেলা সংসদের দ্বিতীয় সম্মেলন বৃহস্পতিবার

বঙ্গবন্ধু জাতীয় গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্ণামেন্টে চকরিয়া-মহেশখালী ফাইনালে

মাদকে জড়িতদের বিরুদ্ধে আরো কঠোর হতে হবে -পুলিশ সুপার

সড়ক দুর্ঘটনা প্রতিরোধে উখিয়ায় প্রশাসনের ব্যাতিক্রমধর্মী উদ্যোগ

২৩ সেপ্টেম্বর জনসভা সফল করতে নাজনীন সরওয়ার কাবেরীর গণসংযোগ

কবি আমিরুদ্দীনের পিতার মৃত্যুতে কক্সবাজার সাহিত্য একাডেমীর শোক

কক্সবাজারে নবাগত পুলিশ সুপারের সাথে জেলা শ্রমিকলীগ নেতৃবৃন্দের সাক্ষাত

হোপ ফিল্ড হসপিটাল ফর উইমেন এর আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন বৃহস্পতিবার

মাদাম তুসোর মিউজিয়ামে স্থান পেল সানি লিওন!

এবার বয়ফ্রেন্ডও ভাড়া পাওয়া যাবে!

হোপ ফাউন্ডেশন একদিন বাংলাদেশের ‘রোল মডেল’ হবে- ইফতিখার মাহমুদ

সুপ্ত ভূষন ও দিপংকর পিন্টু’র জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও ডিসি’র সাথে সৌজন্য সাক্ষাত

লামায় পাহাড় কাটার দায়ে শ্রমিককে ১ লাখ টাকা জরিমানা