পুড়েছে নাকি পুড়ালেন?

মোঃ নাজিম উদ্দিন, দক্ষিণ চট্টগ্রাম প্রতিনিধি:

দক্ষিণ চট্টগ্রামের সাতকানিয়ায় দু’ভাইয়ের জায়গার বিরুধে আগুনে পুড়ে ৭ দোকান ছাই হয়েছে। এতে ব্যবসায়ীদের প্রায় অর্ধকোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। গত রবিবার রাত ১টায় উপজেলার বাজালিয়া বাস স্টেশনে এ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। এ ঘটনার জন্য জায়গার মালিকরা একে অপরকে দায়ি করছে। তবে এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত কেউ থানায় অভিযোগ দেয়নি।

স্থানীয় ও ব্যবসায়ীদের সূত্রে জানা যায়, রাতে বাজালিয়া বাস ষ্টেশন সংলগ্ন সকল মার্কেট ও দোকানদাররা নিজ নিজ দোকান বন্ধ কারে চলে যাওয়ার পর রাত ১টার সময় হঠ্যাৎ আগুন দেখতে পায়। মুহুর্তে মধ্যে আগুনের লেলিহান শিখায় প্রথমে বেড়ার দোকানগুলো পুড়ে যায় । পারবর্তীতে আগুন পাশের পাকা মার্কেটের দোকানগুলোতে ছড়িয়ে পড়ে। স্থানীয় লোকজন এগিয়ে এসে আগুন নেভাতে চেষ্টা চালায়। পরে খবর পেয়ে সাতকানিয়া ফায়ার সার্ভিস এসে আগুন নিয়ন্ত্রনে আনলে পাশের দোকানগুলি রক্ষা পায়।

অগ্নিকান্ডে ক্ষতিগ্রস্ত দোকান মালিকরা হলেন, নুরুল আমিন, খলিলুর রহমান, আবদুল জলিল, মো. ফারুক হোসেন ও মাহবুবুল আলম চৌধুরী। নুরুল আমিনের ১টি মুরগীর দোকান ও ১টি সুপারির আড়ত, মো. হারুন চৌধুরীর সিগারেটের ১টি গোডাউন, মো. ফারুক হোসেনের ১টি মুরগীর দোকান ও ১টি ফলের দোকান, আবদুল জলিলের ১টি মুদির দোকান, খলিলুর রহমানের ১টি ক্রোকারিজের দোকন এবং মাহবুবুল আলম চৌধুরীর ১টি ঔষধের দোকান পুড়ে ছাই হয়ে যায়। তাৎক্ষনিকভাবে ৭ দোকানের মালামালসহ ক্ষয়ক্ষতির পরিমান নির্ধারন করা হয় ৫০ লক্ষ টাকা।

সাতকানিয়া ফায়ার সার্ভিসের ষ্টেশন অফিসার মো. ইদ্রিস বলেন, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রনে আনার চেষ্টা চালায়। যাতে আশ পাশের অন্য মার্কেটগুলোতে আগুন ছড়িয়ে পড়তে না পারে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, পুড়ে যাওয়া দোকানসমূহের জায়গা নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে স্থানীয় বাসিন্দা মো. হারুন চৌধুরী ও মাহবুবুল আলম চৌধুরী বুলু নামের দু’ভাইয়ের মধ্যে বিরুধ চলে আসছে। এই অগ্নিকাণ্ডের বিষয়ে তারা একে অপরকে দায়ি করছে। জায়গার মালিক হারুন চৌধুরী বলেন, বুলু তার জায়গার দাবি করলেও বিচার-সালিশে কোথাও কোন বৈধ কাগজ দেখাতে পারেনি। তাই সেই আমাকে ফাঁসাতে রাতে দোকানে আগুন ধরিয়ে দিয়েছে। আমি বিষয়টি প্রশাসনসহ সবাইকে জানিয়েছি। এব্যাপারে ব্যবসায়ীদের সাথে আলাপ করে আইনগত ব্যবস্থা নেব। এব্যাপারে মাহবুবুল আলম চৌধুরী বুলু বলেন, আমাকে উচ্ছদ করতে হারুন পরিকল্পিতভাবে এ ঘটনাটি ঘটিয়েছে। এতে আমারসহ ব্যবসায়ীদের দোকান পুড়ে যাওয়ায় বিপুল পরিমাণ ক্ষতি হয়েছে। সাতকানিয়া থানার দায়িত্বরত ডিউটি অফিসার এসআই হারুনুর রশিদ বলেন, স্থানীয় ও ফায়ার সার্ভিসের ভাষ্য মতে বৈদ্যুতিক শর্ট সার্কিট থেকে আগুনের সূত্রপাত হয়েছে। এতে দোকানগুলি পুড়ে গেছে। এব্যাপারে কেউ অভিযোগ দিলে তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

ছবির ক্যাপশান: সাতকানিয়া বাজালিয়া বাস স্টেশনে আগুনে পুড়ছে দোকানগুলি।

কক্সবাজার নিউজ সিবিএন’এ প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ।

সর্বশেষ সংবাদ

মুখ ধোওয়ার সময় যে ভুল করবেন না

তুরস্কে মেঘ আর মসজিদের মিতালি!

মালয়েশিয়ায় ব্যাপক ধর-পাকড়, ৫৫ বাংলাদেশি আটক

কক্সবাজার থেকে ফটোশুট ফেরত মডেলের গাড়িতে পৌনে দুই লাখ ইয়াবা!

ওবায়দুল কাদের আসছেন আজ

ডুলাহাজারার আশরাফ উদ্দিন কাউখালী থানার ওসি

একান্ত সাক্ষাৎকারে অতি. পুলিশ সুপার ইকবাল হোসাইন : অপরাধীর সাথে আপোষ নয়

প্রসঙ্গ : প্রাথমিক বিদ্যালয়ে চলতি দায়িত্ব

বৃহত্তর ঈদগাঁওয়ের প্রায় ১শ কি.মি সড়ক চলাচলের অনুপযোগী, সেতুমন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ

টেকপাড়ায় মাঠে গড়াল বৃহত্তর গোল্ডকাপ ফুটবল টূর্ণামেন্টের ৫ম আসর

মাতারবাড়ী কয়লাবিদ্যুৎ প্রকল্প পরিদর্শনে গেলেন বিভাগীয় কমিশনার

নতুন বাহারছড়ার সেলিমের অকাল মৃত্যু: মেয়র মুজিবসহ পৌর পরিষদের শোক

জেলা আ’ লীগের জরুরী সভা

মাদক কারবারীদের বাসাবাড়ীতে সাঁড়াশি অভিযান, ইয়াবাসহ আটক ৩

সৈকতে অনুষ্ঠিত হলো জাতীয় উন্নয়ন মেলা কনসার্ট

পেকুয়ায় অটোরিকশা চালককে তুলে নিয়ে মারধর

পুলিশ সুপারের সাথে সৌজন্য সাক্ষাৎ

ফেডারেশন অব কক্সবাজার ট্যুরিজম সার্ভিসেস এর সভাপতি সংবর্ধিত

কাউন্সিলর হেলাল কবিরকে বিশাল সংবর্ধনা

কলাতলীতে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ, দুইজনকে জরিমানা