রামুতে স্বর্গপুরী উৎসব ২০ এপ্রিল

প্রজ্ঞানন্দ ভিক্ষু:
বছর ঘুরে আবারো ফিরে এল রামুর বহুল পরিচিত এবং জনপ্রিয় ‘স্বর্গপুরী’ উৎসব । স্বর্গপুরী মানে স্বর্গরাজ্য। মর্তে আবার স্বর্গরাজ্য হয় নাকি! আসলে বিগত ৩২ বছর ধরে কক্সবাজারের রামু উপজেলার উত্তর মিঠাছড়ি গ্রামের প্রজ্ঞামিত্র বন বিহারে ঠিক এমন উৎসব পালিত হয়ে আসছে।

সর্বপ্রথম বন বিহারের অধ্যক্ষ ভদন্ত প্রজ্ঞামিত্র মহাথের রামুতে এই উৎসবের প্রচলন করেন। তিনি বেঁচে থাকাকালীন সময়ে প্রতিবছর স্বর্গপুরী উৎসবের আয়োজন করতেন। পরে ২০০৭ সালে ভদন্ত প্রজ্ঞামিত্র মহাথের’র মৃত্যুর পর থেকে তাঁর প্রধান শিষ্য বন বিহারের বর্তমান বিহারাধ্যক্ষ ভদন্ত সারমিত্র মহাথের এই উৎসবের ধারা ধরে রাখেন এবং বন বিহারের নাম পরিবর্তন করে প্রজ্ঞামিত্র বন বিহার নামকরণ করেন।

বিহারাধ্যক্ষ ভদন্ত সারমিত্র মহাথের জানান, প্রতিবছরের ন্যায় চলতি বছরের ২০ এপ্রিল শুক্রবার, মহাসমারোহে স্বর্গপুরী উৎসবের আয়োজন করা হচ্ছে। যেহেতু কারুকার্জ খচিত শৈল্পিক স্বর্গপুরী নির্মাণ করতে সময় লাগে তাই এখন থেকে কাজ শুরু হয়েছে। আগামী কয়েক দিনের মধ্যে স্বর্গপুরী নির্মাণ কাজ পুরোপুরি সমাপ্ত হবে বলে তিনি জানান।

স্বর্গপুরী উৎসব এটি কালে সংস্কৃতির একটি সমৃদ্ধ অংশে পরিণত হয়েছে। এই উৎসবের মাধ্যমে মানুষকে মূলত জীবদ্দশায় মানুষ যে কর্ম করে সেই কর্ম অনুযায়ী বিভিন্ন কুলে তার জন্মান্তর ঘটতে পারে এমন ধারণা দেওয়া হয়। সংসারে মানুষ জন্ম-মৃত্যুর গোলকধাধাঁয় পড়ে ভবচক্রে ঘুরতে ঘুরতে কখনো স্বর্গও লাভ করতে পারে। কিন্তু সেখান থেকেও নির্দিষ্ট একটা সময়ের পরে তাকে চ্যুত হতে হয়। নিজ নিজ কর্মগুণে বা কর্মদোষে মানুষ বিভিন্ন কুলে জন্ম গ্রহণ করছে এমন বৌদ্ধিক ধারণা থেকে উক্ত স্বর্গপুরী অনুষ্ঠিত হয়ে আসছে।

উল্লেখ্য, অনুষ্ঠানে দেখা যায় বিভিন্ন বৌদ্ধপল্লী থেকে বিভিন্ন সাজে সজ্জিত হয়ে নেচে গেয়ে কীর্তন সহকারে বিভিন্ন দল স্বর্গপুরী এবং সংসারচক্র মেলায় আসেন। এজন্য স্থানীয় ভাষায় তাদেরকে বলা হয় ‘কান্ডবাজি’। সকাল ১০টা থেকে সংঘদানের মধ্য দিয়ে শুরু হওয়া উৎসবের মূল এই অনুষ্ঠান শুরু হয় দুপুর ২টার দিকে। জাতি, ধর্ম নির্বিশেষে অসংখ্য মানুষ এই উৎসব উপভোগ করতে আসেন। সম্প্রীতির এই উৎসবের ছোঁয়া পেতে সবাই যেন মুখিয়ে আছে।

সর্বশেষ সংবাদ

কেন শেখ হাসিনাকেই আবার ক্ষমতায় দেখতে চায় ভারত

দাঁতের ইনফেকশন থেকে হতে পারে হার্ট অ্যাটাক

দৈনিক স্বদেশ প্রতিদিন পত্রিকার স্টাফ রিপোর্টার নিযুক্ত হলেন আনছার হোসেন

তারেকের বিষয়ে ইসির কিছুই করার নেই

গণফোরামে যোগ দিলেন সাবেক ১০ সেনা কর্মকর্তা

৬০ আসনে জামায়াতের ‘দর-কষাকষি’

চকরিয়ায় মধ্যরাতে স্কুল মাঠে ঘর তৈরির চেষ্টা

চকরিয়া-পেকুয়ায় মনোনয়ন পেতে মরিয়া জাফর আলম

তারেকের ভিডিও কনফারেন্স ঠেকাতে স্কাইপি বন্ধ করল বিটিআরসি

খুটাখালী বালিকা মাদরাসায় শিক্ষক নিয়োগ

চকরিয়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যানের পদ শূন্য ঘোষনা

ইসির নির্দেশনা বাস্তবায়ন হচ্ছে কিনা জানেন না জেলা নির্বাচন অফিসার

প্রশাসন ও পুলিশে রদবদল করতে যাচ্ছে ইসি

আ’লীগের প্রার্থী মনোনয়ন চূড়ান্ত হয়নি: ওবায়দুল কাদের

মাদকের কারণে কক্সবাজারের বদনাম বেশি -অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আদিবুল ইসলাম

বঙ্গবন্ধুর দেখানো পথে কক্সবাজারকে এগিয়ে নিতে চান আনিসুল হক চৌধুরী সোহাগ

আগাম নির্বাচনি প্রচার সামগ্রী না সরানোয় জরিমানার নির্দেশ ইসি’র

টেকনাফ রোহিঙ্গা ক্যাম্পে বিশ্ব টয়লেট দিবস পালিত

রাঙামাটিতে যৌথ অভিযানে তিন বোট কাঠসহ আটক ৭

বিএনপি’র প্রতীক ‘ধানের ছড়া’ না ‘শীষ’?