cbn  

হেলাল উদ্দিন, টেকনাফ : 

কক্সবাজার জেলা প্রশাসক মোঃ কামাল হোসেন বলেছেন, একমাত্র শিক্ষাই পারে সীমান্ত উপজেলা টেকনাফকে মাদকের ভয়ংকর আগ্রাসন থেকে বাঁচাতে ও দরিদ্রতা দূর করতে।

ইয়াবা সামাজিক ব্যাধি হিসেবে দেশের চারদিকে ছড়িয়ে পড়েছে। ধ্বংস করছে মেধা, সমাজ তথা মানুষকে। ধীরে ধীরে গিলে খাচ্ছে যুব সমাজসহ ক্ষেত্র বিশেষে ছাত্র থেকে বৃদ্ধকেও। এছাড়া কক্সবাজারে রোহিঙ্গা সমস্যাও প্রকট আকার ধারন করেছে। বতর্মান সরকার এই রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধানে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে সাথে নিয়ে জোর প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। তিনি বর্তমান শিক্ষর্থীদের আগামীর ‘প্রধানমন্ত্রী’ আখ্যায়িত করে বলেন, সু-শিক্ষায় শিক্ষিত হয়ে দেশের নেতৃত্বে আসতে হবে। এজন্য সীমান্তে মাদক ও সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে শিক্ষার্থীদের এগিয়ে এসে তা দূর করতে হবে।

মঈন উদ্দিন মেমোরিয়াল কলেজে এইচ.এস.সি পরীক্ষার্থীদের বিদায় অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপরোক্ত কথাগুলো বলেন।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন কক্সবাজার জেলা পুলিশ সুপার ড. কেএম ইকবাল হোসেন বলেন, ভাল লেখাপড়া করে আলোকিত মানুষ হিসেবে গড়ে উঠে জ্ঞানের পরিধি চারদিকে ছড়িয়ে দিতে হবে। মাদক ইয়াবার বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধভাবে সামাজিক আন্দোলন চালিয়ে সমাজ তথা দেশকে মাদক মুক্ত রাখতে সকলের অগ্রনী ভুমিকা প্রয়োজন। ২৪ মার্চ শনিবার দুপুরে কলেজ হল রুমে মঈন উদ্দিন মেমোরিয়াল ট্রাস্টের চেয়ারম্যান প্রফেসর ড. ফরিদ উদ্দিন আহামেদের সভাপতিত্বে ও কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ আ.ন.ম তৌহিদুল মাশেক তৌহিদের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত কক্সবাজার জেলা প্রশাসক মোঃ কামাল হোসেন, বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন,জেলা পুলিশ সুপার ড. কেএম ইকবাল হোসেন, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ রবিউল হাসান, হ্নীলা ইউপি চেয়ারম্যান এইচকে আনোয়ার,সাবেক ভাইচ চেয়ারম্যান এইচ এম ইউনুচ বাঙ্গালী, মঈন উদ্দিন মেমোরিয়াল ট্রাস্টের সেক্রেটারী হেলাল উদ্দিন, সদস্য অধ্যাপক মমতাজ উদ্দীন কাদেরী। এসময় উপস্থিত ছিলেন, টেকনাফ মডেল থানার অপরেশন অফিসার মোঃ শফিউল আজম, আ’লীগ নেতা সেলিম সিকদার, মঈন উদ্দিন মেমোরিয়াল ট্রাস্টের সদস্য, কায়সার উদ্দিন আহমেদ, মৌলভী শাকের আহমদ, অধ্যাপক জহির উদ্দিন আহমেদ, ইব্রাহীম খলিল প্রমূখ।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •