শাহিদ মোস্তফা শাহিদ, ঈদগাঁও:
ঈদগাঁওসহ জেলার ৪টি ভেন্যুতে ২৩শে মার্চ স্বর্ণ পদক গীতাপাঠ প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়েছে। বাংলাদেশ গীতা শিক্ষা কমিটি (বাগীশিক) এর সহযোগিতায় মৈত্রী গীতা শিক্ষা নিকেতন ও সঙ্গীত একাডেমীর বর্ষপূতি উপলক্ষে ১ম পর্বের এ প্রতিযোগিতা বিপুল প্রতিযোগীর উপস্থিতিতে সম্পন্ন হয়েছে। প্রতিযোগিতার ভেন্যুগুলো হচ্ছে ঈদগাহ জাহানারা ইসলাম বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, কক্সবাজার সরকারী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, মহেশখালী আইডিয়াল উচ্চ বিদ্যালয় ও উখিয়া মডেল সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়। পরীক্ষা পরিচালনা পর্ষদের আহবায়ক মাষ্টার রাজন আচার্য্য জানান, প্রিলিমিনারী পর্বের এ প্রতিযোগিতায় সর্বমোট ৬২০ জন প্রতিযোগী ছিল। এর মধ্যে অংশ নিয়েছে ৬১৬ জন। পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক মাষ্টার সমীর রুদ্র। উপ- পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক প্রভাষক বিশ্বজিত আচার্য্য ও পরিচালনা পর্ষদের যুগ্ম আহবায়ক সুপন পাল। ঈদগাহ জাহানারা ইসলাম বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে মোট ৪৪৬ জন প্রতিযোগীর মধ্যে ৪৩৮ জন অংশ নেয়। কেন্দ্র সচিব সুমন কান্তি দে জানান, এ ভেন্যুতে সজিব কান্তি দে, রুপনা পাল, সুপ্রীতি পাল, সিদল শর্মা, দয়াল কান্তি দে, লিঙ্কন দাশ ও প্রণব আচার্য্য কক্ষ পরিদর্শক ছিলেন। হল সুপারের দায়িত্ব পালন করে মৃদুল মল্লিক। তিনি পরীক্ষা পরিচালনা পর্ষদের যুগ্ম আহবায়ক চন্ডিপদ আচার্য্য ও বাগীশিক চকরিয়া উপজেলার মহিলা সম্পাদিকা রত্না রানী দাশ পরীক্ষা কার্যক্রম পরিদর্শন করেন বলে জানান। সরকারী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে কেন্দ্র সচিব ছিলেন নারায়ন দাশ। হল সুপার ছিলেন দেবাশীষ ভট্টাচার্য্য অনিক। মহেশখালী আইডিয়াল উচ্চ বিদ্যালয়ে ডাক্তার পরিমল সুশীল কেন্দ্র সচিব এবং সুব্রত দত্ত হল সুপার ছিলেন। অন্যদিকে উখিয়া মডেল সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে মাষ্টার বেবি প্রভা দে কেন্দ্র সচিব এবং ডাঃ অমল ভট্টাচার্য্য হল সুপার ছিলেন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •