জাতিসংঘের জেনেভায় রোহিঙ্গা রিলিফ বিষয়ক জয়েন্ট রেসপন্স প্ল্যান উদ্বোধন পর্যবেক্ষণ

প্রেস বিজ্ঞপ্তি:

জেনেভাস্থ জাতিসংঘ ভবনে জয়েন্ট রেসপন্স প্ল্যান (জেআরপি) এ ২০১৮ সালের মার্চ থেকে ডিসেম্বর সময়কালে রোহিঙ্গা রিলিফ কার্যক্রমের জন্য ৯৫০ মিলিয়ন ডলারের চাহিদা দেয়া হয়েছে। জয়েন্ট রেসপন্স প্ল্যান উব্দোধনে পর্যবেক্ষক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, কক্সবাজার সিএসও এনজিও ফোরাম (সিসিএনএফ) এর কো-চেয়ার এবং কোস্ট ট্রাস্টের নির্বাহী পরিচালক রেজাউল করিম চৌধুরী।

ইউএনএইচসিআর এর প্রধান ফিলিপ গ্র্যান্ডির সঞ্চালনায় উদ্বোধনী সেশনে বক্তব্য রাখেন, বাংলাদেশের পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম, ঢাকার জাতিসংঘ রেসিডেন্ট কোঅর্ডিনেটর (আরসি) মিয়া সেপ্পো, বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির সাধারণ সম্পাদক ফিরোজ সালাহ উদ্দিন।

পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম রোহিঙ্গা সমস্যার রাজনৈতিক সমাধান অর্থাৎ প্রত্যাবাসনের জন্য আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের প্রতি বারবার দাবি জানান। তিনি হতাশা ব্যক্ত করে বলেন, বাংলাদেশ সরকারের প্রস্তুত করা ৮ হাজার জনের তালিকার বিপরীতে মায়ানমার সরকার ৩০০ জনকে প্রত্যাবাসন করার ব্যাপারে উদ্যোগ নিয়েছে। তিনি আরো বলেন, বাংলাদেশ সরকার তার জনবলের একটা বড় অংশ শরণার্থী ব্যবস্থাপনার কাজে নিযুক্ত করেছে, বিশেষ করে অন্তত এক লক্ষ শরনার্থীকে ভাষানচরে প্রতিস্থাপন করার জন্য। তিনি বলেন, বাংলাদেশের মতো সীমিত অর্থনীতির জন্য এই সম্পদ বিনিয়োগ করা ইতিমধ্যে বিরাট চাপ।

জাতিসংঘের রেসিডেন্ট কোঅর্ডিনেটর বলেছেন, জেআরপি প্রস্তুত করার সময় তাতে সুশীল সমাজের প্রতিনিধিত্ব নিশ্চিত করা হয়েছে এবং বাস্তবায়নের ক্ষেত্রেও স্থানীয়করনকেই গুরুত্ব দেয়া হবে।

আইওএম-এর এমবাসাডর সুইং বলেন, রান্নার লাকড়ি সংগ্রহের জন্য যে হারে বন উজার হচ্ছে তা যদি চলতে থাকে তাহলে ২০১৯ সালের মধ্যে কক্সবাজারের সকল বন সম্পদ উজার হয়ে যাবে।

ইউএনএইচসিআর-এর প্রধান ফিলিপ গ্র্যান্ডি বলেন, জেআরপির দুইটি স্তম্ভ রয়েছে- সেগুলো হলো, রোহিঙ্গা শরনার্থী ও কক্সবাজারের স্থানীয় অধিবাসী। তিনি আরো বলেন, উন্নয়নে নিচের সারিতে অবস্থানরত কক্সবাজারের জন্য এটি ইতিমধ্যে একটি বড় চাপ। উপস্থিত প্রায় সকল প্রতিনিধি রোহিঙ্গা শরণার্থী সংকট মোকাবেলায় উদারতা প্রদর্শন ও প্রায় ১০ লক্ষ শরণার্থীকে আশ্রয় দেয়ার জন্য বাংলাদেশ সরকারের প্রশংসা করেন।

সভায় উপস্থিত পর্যবেক্ষকদের মধ্য থেকে নানা বিশ্লেষণাত্মক প্রশ্ন উত্থাপিত হয়। যার মধ্যে রয়েছে, এত বড় মাপের তহবিল সংগ্রহের বিষয়টি কি অনেক উচ্চাভিলাসী নয়? আরেকজন প্রতিনিধি, এই বিশাল কর্মযজ্ঞের যথাযথ বাস্তবায়নের ব্যাপারে সন্দেহ পোষণ করেন। প্রশ্ন ওঠে, কে এর নেতৃত্ব দেবে এবং কিভাবে কাজের সমন্বয়ের ক্ষেত্রে সর্বোচ্চ মান বজায় রাখবে?

জেআরপি উদ্বোধনের আগে জেনেভায় ইন্টারন্যাশনাল কাউন্সিল ফর ভলান্টারি এসোসিয়েশন (ইকভা) এর কনফারেন্স রুমে আয়োজিত একটি সভায় সভাপতিত্ব করেন কোস্ট ট্রাস্টের নির্বাহী পরিচালক রেজাউল করিম চৌধুরী। যেখানে রোহিঙ্গা রিলিফ কার্যক্রম সম্পর্কিত দুইটি স্টাডি থেকে প্রাপ্ত বিষয়গুলো আলোচনা করা হয়। তিনি উদ্বেগের সাথে উল্লেখ করেন, ত্রাণ কার্যক্রমে নিজেদের উপস্থিতি প্রকাশের একটা প্রতিযোগিতা রয়েছে আন্তর্জাতিক এনজিও এবং জাতিসংঘের বিভিন্ন এজেন্সির মধ্যে। ফলে, সেসব কার্যক্রম ত্রাণ বিষয়ক কাজে তাদের নিজেদের স্বীকৃত গ্রান্ড বারগেন নীতিমালাকেই সংকুচিত করছে। এই নীতিমালা ত্রান কার্যক্রমের স্থানীয় এনজিওদের সম্পৃক্তকরনের মাধ্যমে স্থানীয় কর্তৃপক্ষের কাছে ত্রান কাজের জবাবদিহিতা বৃদ্ধি করে।

রেজাউল করিম চৌধুরী তার বক্তব্যে বলেন, ত্রান কাজের সমন্বয়ে নিয়োজিত আইএসসিজি এর নিজেদের সমন্বয়ের মধ্যেই নানা সীমাবদ্ধতা রয়েছে যা অচিরেই সমাধান করতে হবে। তিনি পরিষ্কারভাবে উল্লেখ করেন, যদি লেনদেন ব্যয় হ্রাস এবং স্থানীয় কর্তৃপক্ষের কাছে জবাবদিহিতার বিষয়টি ত্রান কার্যক্রমের মধ্যে সমন্বয় করা সম্ভব না হয়, তাহলে শরনার্থী সংক্রান্ত ত্রান কার্যক্রম অচিরেই স্থানীয় জনগোষ্ঠী ও বাংলাদেশ সরকারের জন্য অদূর ভবিষ্যতে একটি বোঝায় পরিণত হবে।

কক্সবাজার নিউজ সিবিএন’এ প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ।

সর্বশেষ সংবাদ

এই জনপদটি ইয়াবা নামক বিষ বৃক্ষের আবক্ষে নিম্মজ্জিত : সকলের সহযোগিতা প্রয়োজন

যুগ্মসচিব হলেন কক্সবাজারের সন্তান শফিউল আজিম : অভিনন্দন

ধর্মীয় শিক্ষা মানুষের মাঝে মূলবোধের সৃষ্টি করে-এমপি কমল

কক্সবাজার সদর মডেল থানা পুলিশের অভিযানে ১৪জন আসামী গ্রেফতার

কক্সবাজার জেলা পুলিশকে আইসিআরসির ২৫০ বডি ব্যাগ হস্তান্তর

চকরিয়ায় পল্লীবিদ্যুতের ভুতুড়ে জরিমানা নিয়ে আতঙ্ক!

ঈদগাঁওয়ে পাহাড় কাটার দায়ে এক নারীকে ১ বছর কারাদন্ড

শুধু চালককে অভিযুক্ত করে লাভ নেই আমাদেরও সচেতন হতে হবে-ইলিয়াছ কাঞ্চন

মাওলানা সিরাজুল্লাহর মৃত্যুতে জেলা জামায়াতের শোক

কক্সবাজারের ৩দিন ব্যাপী ‘প্রাথমিক চক্ষু পরিচর্যা’ কর্মশালার উদ্বোধন

‘ঘরের ছেলে’র বিদায়ে ব্যথিত পেকুয়াবাসী

শিল্পী ফাহমিদা গ্রেফতার : জামিনে মুক্ত

‘মাশরুম একটি অসীম সম্ভাবনাময় ফসল’

তথ্য প্রযুক্তি’র সেবা সাধারণের দোরগোড়ায় পৌঁছাতে সরকার বদ্ধ পরিকর : শফিউল আলম

চট্টগ্রামে জলসা মার্কেটের ছাদে ২ কিশোরী ধর্ষণ, গ্রেপ্তার ৬

কোটালীপাড়ায় নিজ জমিতে অবরুদ্ধ ৬১ পরিবার : মই বেয়ে যাদের যাতায়াত

জামায়াত নেতা শামসুল ইসলামকে গ্রেফতারের প্রতিবাদ ও মুক্তি দাবী

দুর্ঘটনারোধে সচেতনতার বিকল্প নেই : ইলিয়াস কাঞ্চন

Google looking to future after 20 years of search

ইবাদত-বন্দেগিতে মানুষ যে ভুল করে