সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির বান্দরবান

শামসুল হক শারেক
গত ৩ মার্চ পারিবারিক ট্যুরে বান্দরবান যাওয়ার কথা থাকলেও তা হয়নি। তবে বান্দরবান ইসলামী শিক্ষা কেন্দ্রের পরিচালক হুসাইন মুহাম্মদ ইউনুছ ( মরহুম হাজী ইউনুছ সাহেব হুজুরের সন্তান) এর অনুরোধে কয়েক আপনজনসহ গিয়েছিলাম বান্দরবান ইসলামী শিক্ষা কেন্দ্রের মাহফিলে।
আমারা বান্দরবান গেছি খবর জেনে আমাদেরকে আমন্ত্রণ জানান, উপজাতীয় রাজপুত্র জননেতা সাচিং প্রু জেরি। অত্যন্ত সম্মান ও আদর যত্ম সহকারে তাঁর বাসায় আমাদেরকে মেহমাদারী করলেন তিনি। উপজাতীয় জনগণের কাছে এই রাজ পরিবারের এখনো অনেক সম্মান ও মর্যাদা।
তিনি জানালেন, বান্দরবানে বিভিন্ন সম্প্রদায়ের লোকজন শান্তিপূর্ণভাবে বসবাস করে আসছে দীর্ঘদিন ধরে। সেখানে চমৎকার সাম্প্রদায়ীক সম্প্রীতি বিদ্ধমান।
আলাপ চারিতায় দেশের উন্নয়ন অগ্রগতিতে শীর্ষ সংবাদ পত্র দৈনিক ইনকিলাবের ভূমিকার প্রসংশা করলেন জেরি বাবু।
তাঁর সাথে একান্ত আলাপ চারিতায় জানলাম, রাজ পরিবারের ইতিহাস । তাঁর বাবা অংশই প্রু চৌধূরী ছিলেন ১৫ তম রাজা। তাঁর নানা মং শই প্রু চৌধূরী ছিলেন ১৪ তম রাজা। ১৬ তম রাজা কে এস প্রু চৌধূরী তাঁর মামা। আর বর্তমান ১৭ তম রাজা ইউ চ প্রু চৌধূরী হলেন তাঁর চাচা।
আরো জানলাম, রাজ পরিবারে জেষ্টতার দিক থেকে ( রাজা হওয়ার ক্ষেত্রে) তিনি ৫ম।
তাঁর বাবা অংশই প্রু চৌধূরী ছিলেন এক সময় মন্ত্রী। তিনি ছিলেন সাবেক রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের মন্ত্রী সভার প্রভাবশালী সদস্য।
জেরি বাবু এক সময় স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের উপ মন্ত্রীর পদ মর্যাদায় বান্দরবান জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ছিলেন। একই এলাকার তিনি এমপি এবং উপজেলা চেয়ারম্যান ও ছিলেন। বর্তমানে তিনি দেশের বড় একটি রাজনৈতিক দল বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য।
জানলাম তিনি স্থানীভাবে বিভিন্ন সমাজ সেবা কাজের সাথে সম্পৃক্ত। সত্যিই সদালাপী সমাজ সেবী এক রাজ পুত্র জেরি বাবু।
৩ মার্চ আমার জীবনের একটি বিশেষ দিন। এখন থেকে আড়াই যুগ আগে বিশেষ একটি কারণে দিনটি আমার কাছে স্মরণীয়। বান্দরবানের এই সফরটি পারিবারিক না হলেও ছিল সত্যিই আনন্দময়।
সেখানে আরো দেখা হয় কেন্দ্রীয় জামে মসজিদের খতীব আমার পরম শ্রদ্ধেয় মাওলানা আলা উদ্দীন ইমামীর সাথে। তাঁর সাথে আমার পরিচয় প্রায় ৩৮ বছর আগের। তিনি অত্যন্ত উচুঁমানের একজন আলেমে দ্বীন।
আমার সাথে ছিলেন কক্সবাজার শহীদ তিতুমীর ইনষ্টিটিউটের পরিচালক মাষ্টার শফিকুল হক, সাংবাদিক আলহাজ্ব নূরুল ইসলাম হেলালী ও সাংবাদিক ছৈয়দ আলম।
সন্ধ্যায় তমরা স্থানীয় সাংবাদিক জয়নাল আবেদীন ও মু: ইসহাকসহ বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমে কর্মরত সংবাদ কর্মীদের নিয়ে শিক্ষা কেন্দ্রের মাহফিলে যোগদিয়ে তাদের আন্তরিকতাপূর্ণ আতিথেয়তা গ্রহণ করি।

কক্সবাজার নিউজ সিবিএন’এ প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ।

সর্বশেষ সংবাদ

পেকুয়া শিলখালি টাইগার স্টার ক্লাবের ফুটবল ফাইনাল খেলা সম্পন্ন

চকরিয়া সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ে ‘সততা স্টোর’ উদ্বোধন

চকরিয়া আ’লীগ এসএম মনজুর চৌধুরী আর নেই, আজ সকাল ১১টায় জানাজা

রামুতে ওবায়দুল কাদেরের আগমনে প্রস্তুতি সভা ও স্বাগত মিছিল অনুষ্ঠিত

‘সড়ক পথে নির্বাচনী প্রতিটি পথসভা জন সমুদ্রে পরিণত হবে’

শ্রীশ্রীঠাকুর অনুকূলচন্দ্রের আদর্শে মানব সেবায় ব্রতী হতে হবে : বিনায়ক চক্রবর্তী

মহেশখালী শাপলাপুর উচ্চ বিদ্যালয়ে অভিভাবক সমাবেশ অনুষ্টিত

উখিয়ায় বজ্রপাতে নিহত ১ আহত ২

বিএনপি নেতা হাবিব-উন-নবী খান সোহেল গ্রেফতার

রামুর গর্জনিয়ায় বজ্রপাতে একই পরিবারের নারীসহ আহত ৫

কক্সবাজারে প্রথম নির্মিত হচ্ছে সি,আই কোম্পানি ইন্ডাস্ট্রি

মহেশখালী পৌর ছাত্রদলের আংশিক কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণা

এসপি মাসুদ হোসাইনের কক্সবাজারে যোগদান, ডিসি’র সাথে সৌজন্য সাক্ষাত

জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে দূর্যোগ ব্যবস্থাপনার জন্য ইওসি স্থাপন

পেকুয়ায় প্রবাহমান খালে মাটি ভরাট করলেন প্রভাবশালী

কোনাখালীতে দোকান পুড়ে ছাই

বুবলীর সঙ্গে শাকিবের বিয়ে, গুঞ্জন নাকি সত্যি?

সাবেক ডিসি ও ইউএনওসহ তিনজনের কারাদণ্ড

ইয়াবাসহ আইন মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তা আটক

চকরিয়া উগ্রবাদ ও সহিংসতা প্রতিরোধে দক্ষতা উন্নয়ন প্রশিক্ষণ