সিজারিয়ান অপারেশনে প্রসব ছাগলের বাচ্চাটি সুস্থ

এম.জিয়াবুল হক, চকরিয়া
চকরিয়া উপজেলা প্রাণীসম্পদ বিভাগের ভেটেরিনারী হাসপাতালে প্রথমবারের মতো সিজারিয়ান অপারেশনের মাধ্যমে প্রসব করানো সেই ছাগলের বাচ্চাটি সুস্থ রয়েছে। বর্তমানে দিনদিন বড় হচ্ছে। অপরদিকে সিজারের সময় পেট কাটা হলেও নিয়মিত পরির্চযা ও ওষুধ লাগিয়ে দেয়ার মাধ্যমে মা ছাগলটির কাটা ঘাঁর ক্ষতস্থান ক্রমাক্রয়ে শুকিয়ে উঠছে। বর্তমানে মা ও বাচ্চা ছাগলের শাররীকি অবস্থা নিয়মিত তদারক করছেন উপজেলা প্রাণী সম্পদ বিভাগের ভেটেরিনারী সার্জন ডা.ফেরদৌসী আক্তার দিপ্তী। অপারেশনের পরদিন তিনি ছাগল মালিকের বাড়িতে যান। খোঁজ-খবর নেন মা ও বাচ্চা ছাগলের। এখনো তিনি অফিসের কার্যক্রম সম্পাদনের পাশাপাশি সময় সুযোগ পেলে নিয়মিত খবরা-খবর নিচ্ছেন। পরিচর্যার দিকনির্দেশনা দিচ্ছেন ছাগল মালিক ফালেছা বেগমকে।

২৭ ফেব্রুয়ারী মঙ্গলবার রাত আটটা ২০ মিনিটে চকরিয়া উপজেলা প্রাণী সম্পদ বিভাগের ভেটেরিনারী হাসপাতালে সিজারিয়ানের মাধ্যমে ছাগলের বাচ্চাটি প্রসব হয়। এই সফল সিজারিয়ান অপারেশনটি করেন প্রাণী সম্পদ কার্যালয়ের ভেটেরিনারী সার্জন ডা. ফেরদৌসী আকতার দিপ্তীর নেতৃত্বে একদল চিকিৎসক।

প্রাণী সম্পদ বিভাগের কর্মকর্তারা জানান, উপজেলার ফাঁসিয়াখালী ইউনিয়নের গাবতলী বাজার মুসলিমনগর এলাকার ফালেছা বেগম একটি মা ছাগল নিয়ে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় প্রাণী সম্পদ কার্যালয়ের ভেটেরিনারী হাসপাতালে আসেন। এরপর হাসপাতালের ভেটেরিনারী সার্জন ডা. ফেরদৌসী আকতার ওই ছাগলটিকে পর্যবেক্ষন করেন এবং সিজারিয়ান অপারেশনের সিদ্ধান্ত নেন।

ভেটেরিনারী হাসপাতাল সূত্র জানায়, মা ছাগলটির জরায়ুতে পানি ভাঙা শুরু হলেও বাচ্চা প্রসব হচ্ছিল না। এ কারণে ছাগল মালিক সেটিকে পশু হাসপাতালে নিয়ে আসেন। ছাগলটি গর্ভের তিনমাস আগে গাড়ি এক্সিডেন্ট করে। এতে ছাগলটির পেলভিক গার্ডলে (শ্রোণীচক্র) ক্ষতি হয়। এরফলে প্রসুতি অবস্থায় যতটুকু সম্প্রসারণ হওয়ার প্রয়োজন ছিল, ততটুকু সম্প্রসারণ হয়নি। এ কারণে ছাগলটির স্বাভাবিক প্রসবের সম্ভাবনা ছিল না।

ফলে মা ছাগলের পেট কেটে চকরিয়া উপজেলায় প্রথমবারের মতো অপারেশনের মাধ্যমে ছাগলের বাচ্চটি প্রসব করান উপজেলা প্রাণী সম্পদ বিভাগের ভেটেরিনারী সার্জন ডা. ফেরদৌসী আকতার দিপ্তী। তার সাথে অপারেশনের ছিলেন ইর্ন্টাণ চিকিৎসক সাজিদ হাসান ও ইন্টার্ণ ভেটেরিনারী ফিল্ড এ্যাসিসটেন্ট মো. বাবর।

সর্বশেষ সংবাদ

জিএম রহিমুল্লাহর মৃত্যুতে ছাত্রশিবিরের শোক 

এলাকাবাসীকে কাঁদিয়ে না ফেরার দেশে জননেতা জিএম রহিমুল্লাহ

চকরিয়ায় পিকনিকের বাস উল্টে খাদে পড়ে গার্মেন্টস কর্মী নিহত,আহত অর্ধশত

সাতকানিয়ায় নির্বাচনী প্রচার সামগ্রী অপসারণ

বাংলাদেশি স্বামী পেয়ে সুখী মালয়েশীয় নারীরা

টেকনাফে পুলিশের সাথে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ দুইজন নিহত

জিএম রহিমুল্লাহর প্রথম জানাযা সম্পন্ন, শোকাহত জনতার ঢল

সৌদিআরবে জিএম রহিমুল্লাহর গায়েবানা জানাজা

মহাজোটের মনোনয়নে ইলিয়াসসহ জাপার ৯ এমপি বাদ!

বৃহস্পতিবারের মধ্যে চূড়ান্ত হতে পারে মহাজোটের আসন বণ্টন

ভোটের আগে ওয়াজ মাহফিল বন্ধ

পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী (সা.) আজ

নড়াইলে মাশরাফির প্রচারণা শুরু

৬৪ আসনে মনোনয়ন তুলেছে জামায়াত

বিএনপি নেতা রফিকুল ইসলাম মিয়া গ্রেফতার

তিন মাস পর কারামুক্ত শহিদুল আলম

কাবুলে ঈদে মিলাদুন্নবীর জমায়েতে বোমা হামলায় নিহত ৪০

হেফাজত কাউকে সমর্থন দেবে না : আল্লামা শফী

কক্সবাজার শহরে যানজট নিরসনে জেলা পুলিশের চেকপোস্ট স্থাপন

নির্বাচনী সমীকরণ : আসন কক্সবাজার-৪