সিজারিয়ান অপারেশনে প্রসব ছাগলের বাচ্চাটি সুস্থ

এম.জিয়াবুল হক, চকরিয়া
চকরিয়া উপজেলা প্রাণীসম্পদ বিভাগের ভেটেরিনারী হাসপাতালে প্রথমবারের মতো সিজারিয়ান অপারেশনের মাধ্যমে প্রসব করানো সেই ছাগলের বাচ্চাটি সুস্থ রয়েছে। বর্তমানে দিনদিন বড় হচ্ছে। অপরদিকে সিজারের সময় পেট কাটা হলেও নিয়মিত পরির্চযা ও ওষুধ লাগিয়ে দেয়ার মাধ্যমে মা ছাগলটির কাটা ঘাঁর ক্ষতস্থান ক্রমাক্রয়ে শুকিয়ে উঠছে। বর্তমানে মা ও বাচ্চা ছাগলের শাররীকি অবস্থা নিয়মিত তদারক করছেন উপজেলা প্রাণী সম্পদ বিভাগের ভেটেরিনারী সার্জন ডা.ফেরদৌসী আক্তার দিপ্তী। অপারেশনের পরদিন তিনি ছাগল মালিকের বাড়িতে যান। খোঁজ-খবর নেন মা ও বাচ্চা ছাগলের। এখনো তিনি অফিসের কার্যক্রম সম্পাদনের পাশাপাশি সময় সুযোগ পেলে নিয়মিত খবরা-খবর নিচ্ছেন। পরিচর্যার দিকনির্দেশনা দিচ্ছেন ছাগল মালিক ফালেছা বেগমকে।

২৭ ফেব্রুয়ারী মঙ্গলবার রাত আটটা ২০ মিনিটে চকরিয়া উপজেলা প্রাণী সম্পদ বিভাগের ভেটেরিনারী হাসপাতালে সিজারিয়ানের মাধ্যমে ছাগলের বাচ্চাটি প্রসব হয়। এই সফল সিজারিয়ান অপারেশনটি করেন প্রাণী সম্পদ কার্যালয়ের ভেটেরিনারী সার্জন ডা. ফেরদৌসী আকতার দিপ্তীর নেতৃত্বে একদল চিকিৎসক।

প্রাণী সম্পদ বিভাগের কর্মকর্তারা জানান, উপজেলার ফাঁসিয়াখালী ইউনিয়নের গাবতলী বাজার মুসলিমনগর এলাকার ফালেছা বেগম একটি মা ছাগল নিয়ে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় প্রাণী সম্পদ কার্যালয়ের ভেটেরিনারী হাসপাতালে আসেন। এরপর হাসপাতালের ভেটেরিনারী সার্জন ডা. ফেরদৌসী আকতার ওই ছাগলটিকে পর্যবেক্ষন করেন এবং সিজারিয়ান অপারেশনের সিদ্ধান্ত নেন।

ভেটেরিনারী হাসপাতাল সূত্র জানায়, মা ছাগলটির জরায়ুতে পানি ভাঙা শুরু হলেও বাচ্চা প্রসব হচ্ছিল না। এ কারণে ছাগল মালিক সেটিকে পশু হাসপাতালে নিয়ে আসেন। ছাগলটি গর্ভের তিনমাস আগে গাড়ি এক্সিডেন্ট করে। এতে ছাগলটির পেলভিক গার্ডলে (শ্রোণীচক্র) ক্ষতি হয়। এরফলে প্রসুতি অবস্থায় যতটুকু সম্প্রসারণ হওয়ার প্রয়োজন ছিল, ততটুকু সম্প্রসারণ হয়নি। এ কারণে ছাগলটির স্বাভাবিক প্রসবের সম্ভাবনা ছিল না।

ফলে মা ছাগলের পেট কেটে চকরিয়া উপজেলায় প্রথমবারের মতো অপারেশনের মাধ্যমে ছাগলের বাচ্চটি প্রসব করান উপজেলা প্রাণী সম্পদ বিভাগের ভেটেরিনারী সার্জন ডা. ফেরদৌসী আকতার দিপ্তী। তার সাথে অপারেশনের ছিলেন ইর্ন্টাণ চিকিৎসক সাজিদ হাসান ও ইন্টার্ণ ভেটেরিনারী ফিল্ড এ্যাসিসটেন্ট মো. বাবর।

সর্বশেষ সংবাদ

ইয়াবার আগ্রাসন থেকে দেশ ও জাতিকে রক্ষা করতে হবে: অধ্যক্ষ হামিদ

উখিয়ায় ইয়াবাসহ আটক-৪ (আপডেট)

চকরিয়ায় শিশু ওয়াসী খুনের মামলার চার্জসিট ৬মাসেও দাখিল হয়নি

চকরিয়ায় এক স্কুল ছাত্র পেকুয়া থেকে ৩দিন ধরে নিখোঁজ

কক্সবাজার পরিবেশ ও মানবাধিকার উন্নয়ন ফোরামের ৫ম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী

কক্সবাজার সিটি কলেজে ব্লাড গ্রুপ নির্ণয় ও ব্লাড ডোনেটিং ক্যাম্প সম্পন্ন

কক্সবাজার সদর হাসপাতালকে ৫ শ’ শয্যায় উন্নীত করা হবে : স্বাস্থ্য মন্ত্রী জাহিদ

চট্টগ্রামে কলোনীতে আগুন লেগে মা-মেয়ের মৃত্যু

উখিয়ার বিশিষ্ট ঠিকাদার শাকের উদ্দিনের পিতা আর নেই

উখিয়ায় র‌্যাবের বিশেষ অভিযানে ইয়াবাসহ আটক ২

লামায় তাজিংডং ফুটবল টুর্ণামেন্টের ফাইনাল খেলা অনুষ্ঠিত

মহেশখালীতে ছাত্রলীগের আয়োজনে বঙ্গবন্ধু গোন্ডকাপ ফুটবল টূর্নামেন্ট শুরু

শহর দাপিয়ে বেড়াচ্ছে ভুয়া ও নকল লাইসেন্সধারী টমটম

মেধু বড়ুয়ার পিতার মৃত্যুতে জেলা হিন্দু বৌদ্ধ খৃষ্টান ঐক্য পরিষদের শোক

জনপ্রতিনিধিদের সহায়তায় আটক হলো মাদক ব্যবসায়ী দম্পতি

জেলা ছাত্রদলের শোকজ নোটিশের জবাব দিলেন মোঃ সানাউল্লাহ সেলিম

মাঝ সমুদ্রে পড়ে গেলেন প্রিয়াঙ্কা!

১৫ দিনের ভারী বর্ষণে ৫০ হাজার রোহিঙ্গা ক্ষতিগ্রস্ত, পাহাড়ধস ঠেকাতে ‘সেফ প্লাস’ কর্মসূচি

হাসতে হাসতে ২৫ ছাত্রী অজ্ঞান!

প্রতি কেজি পেঁয়াজ ১৬ টাকায় বিক্রি!