বন্যা, জলাবদ্ধতা ও ভূমিধ্বসের আশঙ্কা রোহিঙ্গা ক্যাম্পে

ইমাম খাইর, সিবিএন:
আগামী বর্ষায় উখিয়া-টেকনাফের রোহিঙ্গা ক্যাম্পগুলোতে বন্যা, জলাবদ্ধতা ও ভূমিধ্বসের আশঙ্কা করেছেন কক্সবাজার শরণার্থী ত্রাণ ও প্রত্যাবাসন কমিশনার মো. আবুল কালাম। তিনি বলেন, আসন্ন বর্ষা মৌসুমে দুই লাখ রোহিঙ্গা চরম ঝুঁকিতে রয়েছে। এ অবস্থায় তাদের অন্যত্র সরিয়ে নেওয়ার পরিকল্পনা রয়েছে। একই সঙ্গে ঘূর্ণিঝড় ও সাইক্লোনের ক্ষতি এড়াতে কার্যকর উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।
রবিবার (২৫ ফেব্রুয়ারি) সকালে কক্সবাজার শহরের একটি অভিজাত হোটেলে ইন্টার সেক্টর কো-অর্ডিনেশন গ্রুপ-আইএসসিজির উদ্যোগে সাম্প্রতিক রোহিঙ্গা শরণার্থী রেসপন্স-এর ছয় মাস পূর্তি উপলক্ষে যৌথ সভায় তিনি এসব কথা বলেন।
আবুল কালাম বলেন, উখিয়ার রোহিঙ্গা ক্যাম্প সরকার নির্ধারিত তিন হাজার একর জমি ছাড়াও ক্যাম্পের আয়তন বাড়ানোর জন্য পরিকল্পনা নেওয়া হচ্ছে। ফলে ঝুঁকিপূর্ণ রোহিঙ্গা বসতিগুলো সরিয়ে সেখানে পুনঃস্থাপন করা হবে।
তিনি বলেন, বর্তমানে ৩৬ হাজারের বেশি রোহিঙ্গা শিশু এতিম হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে। এরমধ্যে প্রায় আট হাজারের কাছাকাছি শিশু মা-বাবা দুজনকেই হারিয়েছে। আমরা শুরুতেই এই শিশুদের জন্য কাজ করেছি এবং পরিবার থেকে বিচ্ছিন্ন হতে দেইনি। যে কারণে আমরা আলাদা কোনও এতিমখানা করতে দেইনি। এ ক্ষেত্রে ক্যা¤েপর মাঝিদের সঙ্গে আলোচনা করে ওই এতিম শিশুদের নিকট আতœীয়ের কাছে রেখে সব ধরনের সহযোগিতা করে যাচ্ছি। আর এসব এতিম শিশুদের দায়িত্ব যাদের দিয়েছি তাদেরও বাড়তি সুযোগ সুবিধা দেওয়া হয়েছে।
উখিয়া ও টেকনাফের বিভিন্ন ক্যা¤েপ ৯ লাখ ৮ হাজার রোহিঙ্গা অবস্থানের কথা উল্লেখ করে তিনি আরও বলেন, বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে তাদের নিবন্ধন একটি বড় বিষয় ছিল। আমরা পাসপোর্ট অধিদফতরের মাধ্যমে সেটি এখন করতে পেরেছি। যদিও নিবন্ধন করতে গিয়ে এ সংখ্যা ১০ লাখ ৭৫ হাজারের কাছাকাছি দাঁড়িয়েছে। এ ক্ষেত্রে আগে আসা রোহিঙ্গাদের মধ্যে একটি অংশ নিবন্ধনের আওতায় আসায় এই সংখ্যা বেড়ে গেছে। এ ছাড়াও আগে আসা আরও প্রায় সাড়ে তিন লাখের বেশি রোহিঙ্গা কক্সবাজারে অবস্থান করছে। আমরা তাদেরও নিবন্ধনের আওতায় আনার চেষ্টা করছি। পাশাপাশি ‘ইউএনসিআর’ এর তত্ত্বাবধানে পরিবার ভিত্তিক একটি তালিকা তৈরি করা হয়েছে। সেখানে রোহিঙ্গার সংখ্যা ৮ লাখ ২৫ হাজারের মতো। এর কারণ হচ্ছে বাইরে স্থানীয় জনগোষ্টির সঙ্গে যেসব রোহিঙ্গা রয়েছে তাদের তালিকায় আনা সম্ভব হয়নি।
তিনি বলেন, নিবন্ধন প্রক্রিয়া শেষ হওয়ার পর এই বিশাল জনগোষ্ঠির আশ্রয় দিতে প্রথমে আমাদের লক্ষ্যমাত্রা ছিল ৮৪ হাজার শেল্টার নির্মাণ করা। কিন্তু, আশ্রয় প্রার্থীর সংখ্যা বেড়ে যাওয়ায় এ পর্যন্ত এক লাখ ৯৫ হাজার শেল্টার নির্মাণ করা হয়েছে। ইতোমধ্যে আরও পাঁচ হাজার শেল্টার নির্মাণের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। অর্থাৎ শেল্টারের মান যাই হোক রোহিঙ্গাদের মাথার ওপর অন্তত ছাউনি দেওয়ার ব্যবস্থা করেছে সরকার।
এ সময় উপস্থিত ছিলেন, ইন্টার সেক্টর কো-অর্ডিনেশন গ্রুপ ‘আইএসসিজি’র সিনিয়র কো-অর্ডিনেটর সুমবুল রিজভী, ন্যাশনাল কোঅর্ডিনেশন অফিসার সৈকত বিশ্বাসসহ বিভিন্ন আন্তর্জাতিক দাতা সংস্থার লোকজন।
তাদের ভাষ্য, রোহিঙ্গা শিবিরগুলোতীব্র ঘনবসতিপূর্ণ-যা দীর্ঘ মেয়াদি পানি সরবরাহ, পয়ঃনিস্কাশন এবং স্বাস্থ্য সেবায় প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করেছে। সমস্যা সমাধান করা না গেলে প্রাকৃতিক দুর্যোগে প্রাণহানির সম্ভাবনা রয়েছে। আইএসসিজির হিসেবে অন্তত দুই লাখ রোহিঙ্গা ঝুঁকিপূর্ণ জায়গায় বসবাস করছে।
সভায় বলা হয়, রোহিঙ্গাদের কারণে স্থানীয় লোকজন প্রচুর ক্ষতিগ্রস্ত। বনাঞ্চল ধ্বংস হয়ে গেছে। হাতি চলাচলের পথ বন্ধ হয়ে গেছে। এই ক্ষতির কিছুটা হলেও পুষিয়ে দিকে তারা চেষ্টা করছে। বিকল্প জ্বালানী হিসেবে এলপিজি ব্যবস্থার চিন্তা করা হচ্ছে। স্থানীয় ২০ শতাংশ লোক এই সুবিধার আওতায় আসবে।

কক্সবাজার নিউজ সিবিএন’এ প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ।

সর্বশেষ সংবাদ

বিপুল নেতাকর্মী নিয়ে চকরিয়া ও ঈদগাঁও’র জনসভায় যোগ দিলেন ড. আনসারুল করিম

সুন্দর বিলবোর্ড দেখে নয় জনপ্রিয় নেতাকে মনোনয়ন দেওয়া হবে : ঈদগাঁওতে ওবায়দুল কাদের

জাতীয় ক্রীড়ায় কক্সবাজারের অনন্য সফলতা রয়েছে: মন্ত্রী পরিষদ সচিব

নদী পরিব্রাজক দলের বিশ্ব নদী দিবস পালন

মহেশখালীতে ১১টি বন্দুক ও বিপুল পরিমাণ সরঞ্জামসহ কারিগর আটক

টেকনাফে ২ বছরের সাজাপ্রাপ্ত আসামী গ্রেপ্তার

যারা আন্দোলনের কথা বলেন, তারা মঞ্চে ঘুমায় আর ঝিমায় : চকরিয়ায় ওবায়দুল কাদের

কোন অপশক্তি নির্বাচন বানচাল করতে পারবে না : হানিফ

৭-২৮ অক্টোবর ইলিশ ধরা নিষিদ্ধ

আলীকদমে সেনাবাহিনী হাতে ১১ পাথর শ্রমিক আটক

শ্লোগান দিয়ে নয় মানুষকে ভালবেসে নৌকার ভোট নিতে হবে : আমিন

জাতীয় ঐক্যের ডাক দিয়ে মঞ্চে নেতারা ঝিমাচ্ছে : ওবায়দুল কাদের

সরকারি কর্মকর্তা কর্মচারীদের পেশাদারীত্বের সাথে দায়িত্ব পালন করতে হবে : শফিউল আলম

কক্সবাজার জেলা সংবাদপত্র হকার সমিতির নতুন কমিটি গঠিত

অবশেষে জামিনে মুক্তি পেলেন আইনজীবী ফিরোজ

বিএনপি জামাতের প্রতারণার শিকার বাংলার জনগন : ব্যারিষ্টার নওফেল

নির্বাচন করবেন যেসব সাবেক আমলা

মরহুম এড. খালেকুজ্জামান : হৃদয় কর্ষণে বেড়ে উঠা জনতার কৃষক

মরহুম এড. খালেকুজ্জামান স্মরণে ৩য় দিনে মসজিদে মসজিদে দোয়া

ভিয়েতনামকে হারিয়েই দ্বিতীয় রাউন্ডে বাংলাদেশ