মুহাম্মদ জুবাইর, টেকনাফ:

টেকনাফে ৩৩ কোটি ৬০ হাজার টাকা মূল্যের ১১লাখ ২০ হাজার মালিকবিহীন ইয়াবা উদ্ধার করেছে বিজিবি। সাবরাং ইউপিস্থ খুরেরমুখ সংলগ্ন শ্বশানঘাট এলাকা দিয়ে ইয়াবার একটি চালান মায়ানমার হতে বাংলাদেশে প্রবেশ করতে পারে এমন গোপন সংবাদে নাজিরপাড়া বিওপির হাবিলদার মোঃ দেলোয়ার হোসেন এর নেতৃত্বে একটি টহলদল কাটাবুনিয়া এলাকায় নিয়মিত টহলে দল মেরিনড্রাইভ রাস্তার পার্শ্বে ওঁৎ পেতে থাকে। এক পর্যায়ে ২২ ফেব্রুয়ারি ভোর রাতে দেখতে পায় একটি নৌকা সমুদ্র উপকূলে পৌঁছা মাত্রই ০৩ জন লোক বস্তাসহ নৌকা থেকে নেমে যায় এবং নৌকাটি দ্রুত সমুদ্রের দিকে চলে যায়।

অতঃপর টহলদল ০৩ জন লোককে ০৫ (পাঁচ) টি বস্তা মাথায় মেরিনড্রাইভ রাস্তা অতিক্রম করে সরু রাস্তায় নামার প্রাক্কালে চ্যালেঞ্জ করে। আকস্মিক বিজিবি টহলদলের উপস্থিতি লক্ষ্য করা মাত্রই ইয়াবা পাচারকারীরা তাদের মাথায় থাকা বস্তাগুলো ফেলে দ্রুত দৌঁড়ে পার্শ্ববর্তী জঙ্গলাকীর্ণ এলাকায় পালিয়ে যায়। পরবর্তীতে টহলদল ইয়াবা পাচারকারী কর্তৃক ফেলে যাওয়া প্লাষ্টিকের বস্তাগুলো খুলে গণনা করে ৩৩ কোটি ৬০লাখ টাকা মূল্যমানের ১১লক্ষ ২০ হাজার পিছ ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধার করতে সক্ষম হয়।

২ বিজিবির অধিনায়ক এসএম আরিফুল ইসলাম সংবাদের সত্যতা নিশ্চিত করে জানান উদ্ধারকৃত ইয়াবা ট্যাবলেটগুলো ব্যাটালিয়ন সদরে জমা রাখা হয়েছে, যা পরবর্তীতে উর্দ্ধতন কর্মকর্তা, বেসামরিক প্রশাসন, মাদকদ্রব্য অধিদপ্তরের প্রতিনিধি, স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ ও মিডিয়া কর্মীদের উপস্থিতিতে ধ্বংস করা হবে।

আটক ইয়াবার চালানটি বিজিবি কর্তৃক একক অপারেশনে উদ্ধারকৃত ইদানিংকালের সবচেয়ে বড় চালান বলে জানান তিনি।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •