জালিয়াপালংয়ে মিথ্যা মামলা দিয়ে জমি দখলের চেষ্টা!

নিজস্ব প্রতিবেদক:
উখিয়ার জালিয়াপালং ইউনিয়নের সোনারপাড়া বাজারে মিথ্যা মামলা দিয়ে কোটি টাকা মুল্যের জমি দখলের পায়তারা শুরু করেছে একটি প্রভাবশালি মহল। এ কারণে ওই এলাকার অসহায় শফি আলম ও মোহাম্মদ নেছার সহ তিনজনের বিরুদ্ধে একই এলাকার মামলাবাজ ফরিদ আলম প্রকাশ গালু ফরিদ বাদি হয়ে উখিয়া থানায় একটি মিথ্যা মামলা দায়ের করেন।

ভুক্তভোগী শফি আলম জানান, ফরিদ আলম প্রকাশ গালু ফরিদের ভাড়াটে লোকজন নিয়ে শফি আলম গংয়ের মালিকানাধীন সোনারপাড়া বাজারের মার্কেটটি দখল করার চেষ্টা করছে। কিছুদিন আগে সে তার লোকজন নিয়ে হামলা চালিয়ে মার্কেটে ব্যাপক ভাংচুর ও ভাড়াটিয়া শাহাব উদ্দীনসহ শ্রমিকদের ব্যাপক মারধর করেছিল। তারপরও সে ক্ষান্ত হচ্ছে হয়নি। বরং এখনো দখল চেষ্টা ও হুমকি দিয়ে যাচ্ছে।

উক্ত মিথ্যা মামলার স্বীকার আরেক ভূক্তভোগি মোহাম্মদ নেছার জানান, স্থানীয় মৃত ইব্রাহিমের ছেলে ফরিদ আলম প্রকাশ গালু ফরিদ একজন মামলাবাজ ও দাঙ্গাবাজ। ওইদিন লোকজন নিয়ে আমাদের মার্কেটে যে হামলা চালিয়েছে, সই ঘটনাকে উল্টো সাজিয়ে শফি আলমসহ আমাদের বিরুদ্ধে উখিয়া থানায় একটি মিথ্যা মামলা দায়ের করেছে। তিনি স্থানীয় বিএনপি নেতা হয়েও উখিয়া থানা পুলিশকে ম্যানেজ করে সম্পূর্ণ বানোয়াট ও ভিত্তিহীন একটি মামলা দায়ের করা হয়।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, ফরিদ আলম ওরফে গালু ফরিদ অনেক অপকর্মের হোতা। তার মধ্যে অন্যের জমি দখল করা তার নেশায় পরিণত হয়েছে। গায়ের জোর আর ভাড়াটে লোক নিয়ে অন্যের জমি দখলের মরিয়া হয়ে উঠেছে সে। এরকমর কয়েকটি ঘটনা ঘটেছে জানিয়েছে লোকজন। শুধু তাই নয়; সে একজন শীর্ষ মানবপাচারকারী। সাগর পথে মালয়েশিয়া লোক পাচার করে অনেক টাকার মালিক হয়েছে। এসব অপকর্মের কারণে মানবপাচারসহ তার বিরুদ্ধে ৮টি মামলা রয়েছে। যার নং- জিআর-১৯৪/০৬, জিআর-৪২/০৬, জিআর-৮৬/০৭, জিআর-১৮০/০৫, জিআর-৪৫/০৪, জিআর-৭৬/০৬, জিআর-২৭/০৬ (দ্রুতবিচার আইনের এই মামলায় ৬মাসের সাজা হয়), জিআর-২৫৯/১৩ (মানবপাচার)।

এদিকে কোন উপায়ন্তর না দেখে ভূক্তভোগী শফি আলম তার জমি রক্ষার্থে ১৮ ফেব্রুয়ারি কক্সবাজারের অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট আদালত এই ১৪৪ ধারা আদেশ জারি চেয়ে একটি দরখাস্ত দায়ের করেন। আদালত দরখাস্তটি আমলে নিয়ে উখিয়া উপজেলার জালিয়াপালং ইউনিয়নের সোনারপাড়ার ফরিদ আলম গং বিরুদ্ধে ১৪৪ ধারা জারি করেছে।

আবেদনে উল্লেখ করা হয়, উখিয়া জলার জালিয়াপালং ইউনিয়নের সোনারপাড়ার মৃত মো. ইব্রাহিমের পুত্র ফরিদ আলমের নেতৃত্বাধীন একটি পক্ষ একই এলাকার মৃত হাজী মছন আলীর পুত্র শফি আলম গংয়ের মালিকানাধীন ১১ শতক জমি (মৌজা- জালিয়াপালং, বিএস- ৬৭৩, সৃজিত বিএস- ১৭৪০, দাগ- ১৬৫৪) জমি জবর-দখলের চেষ্টা চালাচ্ছে। এর অংশ হিসেবে ইতিমধ্যে কয়েকবার হামলা ও দখল চেষ্টা চালিয়েছে। জবর-দখল চেষ্টাকারি ফরিদ আলম গং ভাড়াটে লোকজন নিয়ে সশস্ত্রভাবে ওই হামলা চালিয়েছিল। বর্তমানেও একই ভাবে ওই জমি দখল করার অপচেষ্টা করছে। এর প্রতিকার চেয়ে শফি আলম গং আদালতের শরণাপন্ন হন। আদালত তাদের আবেদনের প্রেক্ষিতে ওই জমিতে প্রবেশ না করতে ফরিদ গংয়ের বিরুদ্ধে ১৪৪ ধারা জারি করেন।

সর্বশেষ সংবাদ

বঙ্গোপসাগরে ৪৭৫ প্রজাতির মাছ রয়েছে

যুদ্ধ শুরু সহজ কিন্তু শেষ করা কঠিন : ভারতকে ইমরানের হুঁশিয়ারি

অবৈধ স্থাপনার বিরুদ্ধে কউকের উচ্ছেদ অভিযান, জরিমানা

কক্সবাজারে নন-এমপিও শিক্ষক-কর্মচারীদের মানববন্ধন ও স্মারকলিপি

২য়বার শ্রেষ্ঠ ওয়ারেন্ট তামিল সম্মাননা পেলেন এসআই অপু বড়ুয়া

কানিজ ফাতেমা সহ সংরক্ষিত নারী আসনের এমপি’দের শপথ বুধবার

দক্ষিণ সাহিত্যিকা পল্লী সমাজ কমিটি গঠিত

নাইক্ষ্যংছড়িতে বন্য হাতি গুড়িয়ে দিল এক উপজাতির বসত ঘর

ইন্ঞ্জিনিয়ার শফি উল্লাহ আর নেই : বুধবার সকাল ১০ টায় জানাজা

চট্রগ্রাম রেঞ্জের শ্রেষ্ঠ ওসি’র সম্মাননা পেলেন টেকনাফের ওসি প্রদীপ

সমাজকল্যাণ প্রতিমন্ত্রী শরীফ আহমেদ দু’দিনের সফরে এখন কক্সবাজারে

নাইক্ষ্যংছড়িতে ভাইস-চেয়ারম্যান পদে শাহাজান কবিরের মনোনয়ন দাখিল

নিজের অশ্লীল ভিডিও সরালেন সালমান

যে ছবি কক্সবাজারবাসীকে গৌরবান্বিত করে

জেলাজজের বদান্যতায় ১৭ বছর জেলে থাকা আনোয়ারার জামিন

কবি আল মাহমুদ স্মরণ সভা আজ বিকেল ৪ টায়

জেলা সদর হাসপাতালের দুর্নীতি তদন্তে দুদক টিম

সৌদি যুবরাজের নির্দেশে মুক্ত হচ্ছেন ২১০০ পাকিস্তানি বন্দি

ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষে জবি রণক্ষেত্র, সাংবাদিকসহ আহত ৩০

কাশ্মীরের পক্ষ নেয়ায় ধর্ষণের হুমকি, অতঃপর নিখোঁজ শিক্ষিকা